বুধবার , ১৫ আগস্ট ২০১৮
মূলপাতা » ক্রিকেট » টি-টোয়েন্টিতেও পাকিস্তানকে বাংলাওয়াশ

টি-টোয়েন্টিতেও পাকিস্তানকে বাংলাওয়াশ

bdওয়ানডে ক্রিকেটে বাংলাদেশ যেভাবে নিজের শ্রেষ্ঠত্ব প্রমাণ করেছে, টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে তা এখনো করতে পারেনি।  নিয়মিত টি-টোয়েন্টি না খেলার কারণেই এ রকমটা হচ্ছে। তবে বদলে যাওয়া বাংলাদেশ যেকোন সময়ে ঘুরে দাঁড়াতে পারে তার প্রমাণ বারবার পেয়েছে ক্রিকেট বিশ্ব।

 

সেই বাংলাদেশের বিপক্ষে সন্ধ্যায় একটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলতে মাঠে নেমেছে পাকিস্তান। মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হচ্ছে।  টসে জিতে পাকিস্তান ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়ে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৪১ রান করেছে পাকিস্তান। জয়ের জন্য বাংলাদেশের সামনে ১৪২ রানের টার্গেট ছুড়ে দিয়েছে শহীদ আফ্রিদির দল।

 

১৪২ রানের জয়ের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ১৬.২ ওভারে মাত্র ৩ উইকেট হারিয়ে লক্ষ্যে পৌঁছে যায় বাংলাদেশ।  সাকিব আল হাসান (৫৭) ও সাব্বির রহমান রুম্মন (৫১) ম্যাচ জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন।

 

লক্ষ্যমাত্রা তাড়া করতে নেমে বাংলাদেশের সূচনাটা হয়েছে হতাশাজনক। মোহাম্মদ হাফিজের করা প্রথম ওভারে প্রথম চার বলে ১৪ নেন তামিম ইকবাল। এরপর পঞ্চম বলে রানআউটে কাটা পড়লেন সৌম্য সরকার। টি-টোয়েন্টিতে অভিষেক ম্যাচে রানের খাতাই খোলা হলো না বাংলাদেশের এই ওপেনারের।

 

দলীয় ১৭ রানের মাথায় প্যাভিলিয়নের পথ ধরেন আরেক ওপেনার তামিম ইকবাল। ১০ বলে ২ চার ও ১ ছক্কায় ১৪ রান করার পর উমর গুলের শিকার হন তিনি।

 

এরপর মুশফিকুর রহিম নেমে বেশ ভালোই ব্যাট করছিলেন। তবে ১৫ বলে ৪টি চারের মারে ১৯ রান করার পর ওয়াহাব রিয়াজের বলে সরাসরি বোল্ড হয়ে যান মুশফিক।

 

এর আগে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা অবশ্য ভালোই ছিল পাকিস্তানের। দলীয় ৫০ রানের মাথায় প্রথম উইকেট হারায় তারা। তাসকিনের বলে উড়িয়ে মারতে গিয়ে মাশরাফির হাতে ধরা পড়েন আহমেদ শেহজাদ (১৭)।

 

দলীয় ৬৪ রানে মুস্তাফিজের বলে মুশফিকের হাতে ক্যাচ দিয়ে আউট হন শহীদ আফ্রিদি (১২)। ৭৭ রানের মাথায় স্ট্যাম্পিং হয়ে যান মুক্তার আহমেদ (৩৭)।

 

এরপর মুস্তাফিজের দ্বিতীয় শিকার হন মোহাম্মদ হাফিজ। এলবিডব্লিউর ফাঁদে পড়ার আগে ১৮ বলে ২৬ রান করে পাকিস্তানের এই অলরাউন্ডার। শেষ ওভারের শেষ বলে রানআউটে কাটা পড়েন সোহেল তানভীর (৮)। ২৪ বলে ৩০ রান নিয়ে অপরাজিত ছিলেন হারিস সোহেল।

 

৪ ওভার বোলিং করে ২০ রান দিয়ে ২ উইকেট নিয়ে বাংলাদেশের সেরা বোলার অভিষিক্ত মুস্তাফিজুর রহমান। ১টি করে উইকেট নিয়েছেন তাসকিন আহমেদ ও আরাফাত সানী।

 

২০১১ সালের পর তৃতীয়বারের মতো বাংলাদেশ সফরে এসেছে পাকিস্তান। টি-টোয়েন্টির আগে তিনটি ওয়ানডে খেলেছে দুই দল। ওয়ানডে সিরিজে একটিতেও জয়ের মুখ দেখেনি সফরকারীরা। পাকিস্তানকে ৩-০ তে হোয়াইটওয়াশ করেছে বাংলাদেশ। ওয়ানডে সিরিজে হোয়াইটওয়াশ করা বাংলাদেশ স্বাভাবিকভাবেই টি-টোয়েন্টিতে এগিয়ে থাকবে। সেই সুযোগে বাংলাদেশ টি-টোয়েন্টিতেও জয় তুলে নিবে এমনটিই প্রত্যাশা করছে ক্রিকেটপ্রেমিরা।

 

দুই দল এখন পর্যন্ত ৭টি টি-টোয়েন্টি খেলেছে। প্রতিটিতেই জয় তুলে নিয়েছে পাকিস্তান।

 

বাংলাদেশ দলে আজ দুজনের অভিষেক হচ্ছে। পাকিস্তানের বিপক্ষে তৃতীয় ওয়ানডের সেঞ্চুরিয়ান সৌম্য সরকার একাদশে জায়গা পেয়েছেন। এ ছাড়া সেরা একাদশে আছেন মুস্তাফিজুর রহমান।

 

বাংলাদেশ দল: তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম, নাসির হোসেন, সাব্বির রহমান রুম্মান, মাশরাফি বিন মর্তুজা, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, আরাফাত সানী, মুস্তাফিজুর রহমান ও তাসকিন আহমেদ।

পাকিস্তান দল: শহীদ আফ্রিদি, আহমেদ শেহজাদ, হারিস হোসেল, মোহাম্মদ রিজওয়ান, মোহাম্মদ হাফিজ, মুক্তার আহমেদ, সারফরাজ আহমেদ, সোহেল তানভির, উমর গুল, ওয়াহাব রিয়াজ ও সাঈদ আজমল।


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print