রবিবার , ২২ জুলাই ২০১৮
মূলপাতা » প্রধান খবর » নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৬, আরো ৫ লাশ উদ্ধার

নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৬, আরো ৫ লাশ উদ্ধার

imagesনারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লার আলীগঞ্জ খেয়াঘাট সংলগ্ন বুড়িগঙ্গা নদীতে যাত্রীবাহী ট্রলার ডুবির ঘটনায় শনিবার আরো পাঁচজনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এ নিয়ে নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ১৬ তে।
শনিবার উদ্ধার করা পাঁচজনের মধ্যে তিনজনের পরিচয় পাওয়া গেছে। তারা হলেন- রাজধানীর লালবাগ শহীদনগর এলাকার বাসিন্দা মৃত. ওয়াহেদ আলীর ছেলে আব্দুস সামাদ (৩৫), একই এলাকার আব্দুল আজিজের ছেলে হাবিব (১২) এবং মানিক মিয়ার ছেলে কাজল (২৮)।
নারায়ণগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের উপ সহকারী পরিচালক মমতাজউদ্দিন উদ্ধারের বিষয়টি করেছেন।
এর আগে ট্রলার ডুবির ঘটনায় শুক্রবার সকাল ১০টায় জমিলা খাতুন (৬৫), বিকেলে রাসেলের (২২) ও রাত ৭টায় আলমগীর হোসেনের (৩০) লাশ উদ্ধার করা হয়। নিহত জমিলা খাতুন ঢাকার লালবাগ শহীদনগর এলাকার মৃত আবদুর রশিদের স্ত্রী, রাসেল শহীনগর এলাকার রাজকুমারের ছেলে ও আলমগীর লালবাগ শহীদ নগর এলাকার কোরবান আলীর ছেলে।
বৃহস্পতিবার দুপুরে ট্রলার ডুবির ঘটনায় ঘটনাস্থল থেকে সাতজন ও ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে আরো একজনের মৃত্যু ঘটে। নিহত সকলের বাড়ি ঢাকার মিরপুর ও লালবাগ এলাকাতে। মতলবে সোলায়মান শাহ ওরফে লেংটার মেলা শেষে ট্রলারে করে এসব লোকজন ঢাকার সদরঘাটে ফিরছিল। নিহত প্রত্যেক পরিবারকে ২০হাজার টাকা করে অনুদান দেওয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার নিহতরা হলো – ঢাকার লালবাগের ১৭৪ সৈয়দনগরের মৃত লাটমিয়ার ছেলে মো. ছমির হোসেন (৪৫) এবং একই এলাকার আব্দুল হক ওরফে ওহাব মাতবরের ছেলে রুবেল (১৮), হাফিজউদ্দিন মিয়ার ছেলে রুবেল (৩০), মো: নিজামের ছেলে ছেলে সাগর (১০), মিরপুর সিনেমা হল এলাকার এলাকার নুরউদ্দিনের ছেলে জাকির হোসেন (৩০), লালবাগ এলাকার কাজল মিয়া (২৮), আইউব আলীর স্ত্রী করমজান বিবি (৬৫) ও রাজীব হোসেন হৃদয় (২২)।
ট্রলারের যাত্রী মো. রিপন জানান, দু’দিন আগে ট্রলারটি ভাড়া করে মতলবে সোলায়মান লেংটার মেলার মাজারে যান তারা। ওই মাজার থেকে যাত্রী নিয়ে বৃহস্পতিবার সকাল ৮টার দিকে ঢাকার সদরঘাটের উদ্দেশে রওনা দেয় ট্রলারটি। নারায়ণগঞ্জের পাগলার আলীগঞ্জ এলাকায় বিপরীত দিক থেকে আসা একটি বালুবাহী ট্রলার আমাদের ট্রলারে ধাক্কা দিলে ট্রলারটি ডুবে যায়।


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print