রবিবার , ২৪ জুন ২০১৮
মূলপাতা » কলেজ » কোন পরীক্ষার্থীর ক্ষতি হলে দায় বিএনপির :নাহিদ

কোন পরীক্ষার্থীর ক্ষতি হলে দায় বিএনপির :নাহিদ

nahid_541345175e945উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার আগের দিন মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে মন্ত্রী বলেন, “আমি হরতাল-অবরোধ ও সন্ত্রাসী কার্যক্রম পরিচালনাকারী জোটের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি পরীক্ষার্থীদের শান্তিপূর্ণভাবে পরীক্ষা দিতে দিন। দয়া করে কোনো হটকারী ঘটনা ঘটাবেন না।

“আমি স্পষ্ট ভাষায় জানিয়ে দিতে চাই- দেশের যে কোনো স্থানে আমাদের একজন পরীক্ষার্থীরও যদি কোনো ক্ষতি হয়, তার দায়দায়িত্ব আপনাদেরকেই বহন করতে হবে। মানুষ আপনাদের ক্ষমা করবে না।”

গত ৫ জানুয়ারি থেকে সারা দেশে টানা অবরোধ চালিয়ে আসা বিএনপি জোট ফেব্রুয়ারি ও মার্চের বেশিরভাগ সময় ছুটি ছাড়া প্রতিদিনই হরতাল করে এসেছে।

বিএনপি জোটের অবরোধ-হরতালে চলতি এসএসসি ও সমমানের সবগুলো অর্থাৎ, ১৬ দিনের ৩৬৮টি পরীক্ষা পেছাতে বাধ্য হয় শিক্ষা মন্ত্রণালয়। পরীক্ষাগুলো নেওয়া হয় ছুটির দিনে, শুক্র ও শনিবার।

তবে এ ধরনের রাজনৈতিক কর্মসূচির কারণে যে এইচএসসি পরীক্ষা পেছানো হবে না তা আগেই জানিয়ে রেখেছেন শিক্ষামন্ত্রী।

বিবৃতিতে নাহিদ বলেন, “সংকটের মধ্যে এসএসসি পরীক্ষা শেষ হতে না হতেই এইচএসসি পরীক্ষা শুরু হচ্ছে। জাতির দুর্ভাগ্য যে, একটি রাজনৈতিক জোটের বিবেকবর্জিত অব্যাহত হরতাল-অবরোধের কারণে এসএসসির রুটিন অনুযায়ী একটি পরীক্ষাও নেওয়া সম্ভব হয়নি।

“পরীক্ষার্থী, অভিভাবক, শিক্ষকসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষের দাবি, মতামত ও পরামর্শের প্রতি সম্মান দেখিয়ে আমরা যে কোনো পরিস্থিতিতে রুটিনমাফিক পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছি। এর কোনো ব্যত্যয় হবে না।”

পরীক্ষার্থীদের যাতায়াত নির্বিঘ্ন করতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাবাহিনীর ‘সর্বাত্মক’ নজরদারি থাকবে বলেও আশ্বস্ত করেছেন শিক্ষামন্ত্রী।

তিনি বলেন, “ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গিসম্পন্ন রাজনৈতিক দলের নেতা-কর্মী, সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের সদস্য, সাধারণ জনগণ তোমাদের পাশে আছে। তোমরা নিশ্চিন্ত মনে পরীক্ষা দেবে।”

প্রশ্ন ফাঁসের গুজবে শিক্ষার্থী-অভিভাবকদের বিভ্রান্ত না হওয়ার আহ্বান জানিয়ে পরীক্ষার্থীদের মন দিয়ে লেখাপড়া করার পরামর্শ দিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী।

অবরোধের মধ্যেই এবার এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় বসছেন ১০ লাখ ৭৩ হাজার ৮৮৪ জন শিক্ষার্থী।

আগামী ১ এপ্রিল থেকে ১১ জুন পর্যন্ত এইচএসসি ও সমমানের তত্ত্বীয় বিষয়ের পরীক্ষা হবে। আর ব্যবহারিক পরীক্ষা হবে ১৩ জুন থেকে ২২ জুন।


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print