সোমবার , ১৬ জুলাই ২০১৮
মূলপাতা » ক্রিকেট » কেকেআরের আইপিএল বর্জনের হুমকি

কেকেআরের আইপিএল বর্জনের হুমকি

কেকেআরেনিকট প্রতিবেশী, ভাষা-সংস্কৃতির মিল… কলকাতার প্রতি একটা টান বাংলাদেশিদের তো আছেই। স্বাভাবিকভাবে এ দেশে কলকাতা নাইট রাইডার্সের অনেক সমর্থক। প্রথমে মাশরাফি বিন মুর্তজা, পরে সাকিব আল হাসানের খেলার সূত্র ধরে সেই সম্পর্ক আরও জোরালো হয়েছে। সেই কলকাতাই নাকি এবারের আসর বয়কট করতে পারে। এমন খবর দিয়েছে মুম্বাই মিরর।

ঝামেলাটা বেঁধেছে সুনীল নারাইনকে নিয়ে। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড বলছে, সুনীল নারাইনের অ্যাকশনের বৈধতার পরীক্ষা দিতে হবে আবার। সেই পরীক্ষায় পাস করলে তবেই মিলবে খেলার অধিকার। কিন্তু কেকেআরের দাবি, একবার পরীক্ষা দিয়ে অ্যাকশনের বৈধতা তো নারাইন পেয়েই গেছে। আবার পরীক্ষা দিতে হবে কেন?
ঝামেলাটা হলো, নারাইনের অ্যাকশন ​অবৈধ ঘোষিত হয় চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনালে। এরপর অ্যাকশন শুধরে লাফবরোর গবেষণাগারে বায়োমেকানিক পরীক্ষা দেন। সেই পরীক্ষায় সবুজ সংকেতও পান। কিন্তু যেহেতু নারাইনের অ্যাকশন আইসিসির কোনো টুর্নামেন্ট বা আন্তর্জাতিক ম্যাচে অবৈধ ঘোষিত হয়নি, এ কারণে এই পরীক্ষার আয়োজন আইসিসি করেনি। তবে তাঁর অ্যাকশনের বৈধতা আইসিসি দিয়েছে। কিন্তু বিসিসিআইয়ের নিয়ম অনুযায়ী, বিসিসিআই আয়োজিত কোনো টুর্নামেন্টে তিনি খেলতে পারবেন না। খেলতে হলে আবারও পরীক্ষা দিতে হবে। সেই পরীক্ষাটি দিতে হবে চেন্নাইয়ে বসানো নতুন গবেষণাগারটিতে।

কিন্তু কেকেআর আবার এতে রাজি নয়। দুই পক্ষই নিজেদের অবস্থানে অটল থাকায় সমাধানও হচ্ছে না। এদিকে সময়ও ফুরিয়ে আসছে দ্রুত। ৮ এপ্রিল শুরু হবে আইপিএল​। সমস্যা তো মিটছেই না, উল্টো কেকেআর আইনি লড়াইয়ের কথা ভাবছে। এমনকি এও শোনা যাচ্ছে, শেষ পর্যন্ত সমাধান না হলে নারাইনকে ছাড়া তারা খেলবেই না। বয়কট করবে পুরো আইপিএল।
কেকেআরের ক্ষিপ্ত হওয়ার কারণও আছে। তাদের অনুমান, পরিকল্পিতভাবেই এসব করা হচ্ছে। গত আসরে ২২ উইকেট নিয়ে কলকাতাকে শিরোপা জিতিয়েছিলেন নারাইন। ২০১২ সালেও যেবার কলকাতা প্রথম শিরোপা জিতল, নারাইন নিয়েছিলেন ২৪ উইকেট। দলের মূল অস্ত্রটাকে ভোঁতা করতেই প্রতিপক্ষ শিবির উঠেপড়ে লেগেছে বলে মনে করে কেকেআর। এ কারণেই আ​ইপিএলে এক ম্যাচেও তাঁর অ্যাকশন নিয়ে প্রশ্ন না উঠলেও হুট করে চ্যাম্পিয়নস লিগে পরপর দুবার অ্যাকশন প্রশ্নবিদ্ধ করা হয়েছে।
এমনিতেই ম্যাচ পাতানো, দলের মালিকানা নিয়ে জলঘোলা করা, ক্রিকেটের সঙ্গে গ্ল্যামার মেশানো, স্বল্পবসনার প্রেরণাবালিকাসহ নানা বিতর্কে জড়িয়ে আছে আইপিএল। এর সূত্র ধরে বিসিসিআইয়ের পদ থেকে শ্রীনিবাসনকে সরেও যেতে হয়েছে। এখন কেকেআর সত্যি সত্যি আইপিএল বয়কট করলে নাটকে নতুন অঙ্ক যোগ তো হবেই!


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print