শুক্রবার , ২০ জুলাই ২০১৮
মূলপাতা » টেনিস » স্ত্রীর থেকেও আয় কম আনিসুল হকের

স্ত্রীর থেকেও আয় কম আনিসুল হকের

আনিসুল হকেস্ত্রী রুবনা হকের বাৎসরিক আয় থেকে আওয়ামী সমর্থিত ঢাকা উত্তর সিটি নির্বাচনের সম্ভাব্য মেয়র প্রার্থী আনিসুল হকের বাৎসরিক আয় কম। মনোনয়ন পত্রের সঙ্গে জমাকৃত হলফনামায় আনিসুল হকের বাৎসরিক আয় দেখানো হয়েছে ৭৫ লাখ ৮২ হাজার ৯৮৭ টাকা। অন্যদিকে তার স্ত্রীর আয় দেখানো হয়েছে প্রায় ৮৫ লাখ টাকা।

ইসির ওয়েব সাইটে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র পদে আনিসুল হকের মনোনয়ন পত্রের সঙ্গে জমা দেয়া হলফনামায় এ তথ্য মিলেছে।

হলফনামায় আনিসুল হক নিজেকে একজন ব্যবসায়ী হিসেবে উল্লেখ করেছেন। তিনি হিসেবে নিজের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান মোহাম্মদী গ্রুপ লি., মোহাম্মদী ফ্যাশন সুয়েটারস লি., দি মোহাম্মাদ লি., টেকনোভিস্তা লি., এম জি প্রোপার্টিজ লি., মোহাম্মদী নিট স্টার লি., এমজি সার্টেক্স লি., দেশ এর্নাজি লি. এবং এমজি নিট ফ্লেয়ার লি. সহ মোট ২২টি প্রতিষ্ঠানের নাম উল্লেখ করেছেন তিনি।

আনিসুল হক হলফনামায় বাৎসরিক আয় উল্লেখ করেছেন,৭৫ লাখ ৮২ হাজার ৯৮৭ টাকা। সে হিসেবে প্রতিমাসে তার গড় আয় দাঁড়ায় ৬ লাখ ৩১ হাজার ৯১৫ টাকা। আয়ের উৎসগুলো মধ্যে প্রতিবছর বাড়ি-দোকান-অ্যাপার্টমেন্ট ভাড়া থেকে তার আয় হয় ২ লাখ ৪০ হাজার টাকা। ব্যবসা (পারিতোষিক) থেকে তার আয় ২৫ লাখ ৯২ হাজার টাকা। শেয়ার, সঞ্চয়পত্র এবং ব্যাংক আমানতের মাধ্যমে তার আয় ১ লাখ ৬১ হাজার ১৫৬ টাকা। অন্যান্য ব্যবসা (এফ ডিআর মুনাফা) থেকে ৪৫ লাখ ৮৯ হাজার ৮৩১ টাকা বছরে আয় করেন তিনি।

সম্ভাব্য এ প্রার্থীর পরিবারে তার ওপর নির্ভরশীল ব্যক্তিদের মোট বাৎসরিক আয় ১ কোটি ৩৬লাখ ৪২ হাজার ৪৪১ টাকা। এর মধ্যে স্ত্রীর ৮৪ লাখ ৯৩ হাজার ৪৬২ টাকা এবং ছেলেসহ দুই কন্যার ৫১ লাখ ৪৮ হাজার ৯৭১ টাকা।

আনিসুল হকের অস্থাবর সম্পদের মূল্য ২২ কোটি ৭৫ লাখ ৬৫ হাজার ৮৪৪ টাকা। যেখানে নগদ টাকা রয়েছে ১ কোটি ৯৫ লাখ ১৩ হাজার টাকা, ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানে জমানো টাকা ৬ লাখ ৫৮ হাজার ৭৯৯ টাকা, বন্ড মার্কেট-শেয়ারবাজার তালিকা ভুক্ত ও তালিকাভুক্ত নয় এমন কোম্পানিতে শেয়ার রয়েছে ১১ কোটি ৪৮ লাখ ৪৫ হাজার ৬৮৬ টাকা, পোস্টাল, সেভিং সার্টিফিকেটসহ বিভিন্ন ধরনের সঞ্চয়পত্রে আমানত বিনিয়োগ ৩ কোটি ৫৩ লাখ ৪৫ হাজার ৬৮৬ টাকা। স্বর্ণালঙ্কার ও অন্যান্য মূল্যবান ধাতু রয়েছে ১১ লাখ ১২ হাজার ৭৫০ টাকা। এছাড়া ইলেকট্রনিক সামগ্রী রয়েছে ৯ লাখ ৮৩ হাজার, আসবাবপত্র ১৪ লাখ ২৪ হাজার ও অন্যান্য (ঋণ প্রদান) ৫ কোটি ৩৬ লাখ ৮৩ হাজার ৭৯ টাকা। আর তার স্ত্রীর অস্থাবর সম্পদের পরিমাণ ৫ কোটি ৬২ লাখ ৬৬ হাজার টাকা।

আনিসুল হকের স্থাবর সম্পত্তির মধ্যে কোনো প্রকার কৃষি জমি না থাকলেও ৩ কোটি ৫৭ লাখ ৬৮ হাজার টাকা মূল্যের অকৃষি জমি রয়েছে। এছাড়া তার স্ত্রীর স্থাবর সম্পত্তির পরিমান ৭০ লাখ ৬১ হাজার ৮৮০ টাকা।

তবে আনিসুল হকের জামানতবিহীন দেনা ৫ কোটি ২৯ লাখ ৪৭ হাজার ৮৯৭ টাকা বলে হলফনামায় উল্লেখ করেছেন। হলফনামায় তিনি ঋণখেলাপি নয় বলেও উল্লেখ আছে হলফনামায়।

শিক্ষাগত যোগ্যতায় আনিসুল হক স্নাতকোত্তর বলে হলফনামায় উল্লেখ আছে। সরকার দলীয় সমর্থিত এই সম্ভাব্য মেয়র প্রার্থীর বিরুদ্ধে কোনো ধরনের ফৌজদারি মামলায় অভিযুক্ত হওয়ার অভিযোগ বর্তমান বা অতীতে কোনো সময়ে ছিল না। তিনি ব্যবসায়ীদের সংগঠন এফবিসিসিআইয়ের সাবেক প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print