বুধবার , ২৫ এপ্রিল ২০১৮
মূলপাতা » টেনিস » চট্টগ্রামের তিন মেয়র প্রার্থীকে ইসির নোটিশ

চট্টগ্রামের তিন মেয়র প্রার্থীকে ইসির নোটিশ

14277234নির্বাচনী আচরণ বিধি লঙ্ঘন করার অভিযোগে চট্টগ্রামে তিন মেয়র প্রার্থীকে কারণ দর্শানোর নোটিস দিয়েছে নির্বাচন কমিশন। এরা হলেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত আ জ ম নাছির উদ্দিন, বিএনপি সমর্থিত এম মনজুর আলম এবং জাতীয় পার্টি সমর্থিত সোলায়মান আলম শেঠ।
তাদের বিরুদ্ধে আচরণ বিধি না মেনে ভোট গ্রহণের ২১ দিন আগেই প্রচারণা চালানোর অভিযোগ আনা হয়েছে। আগামী সাত দিনের মধ্যে তাদেরকে নোটিসের জবাব দিতে বলা হয়েছে।
আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগে সাধারণ ও সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদের কয়েকজন প্রার্থীকেও নোটিশ দেওয়ার প্রক্রিয়া চলছে বলে নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানা গেছে।
নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসার মো. আবদুল বাতেন জানান, আচরণ বিধি অনুযায়ী নির্বাচনের ২১ দিন পূর্বে অর্থাৎ আগামী ৮ এপ্রিলের পূর্বে কোনো প্রার্থী প্রচারণা চালাতে পারবেন না। কিন্তু ওই তিন প্রার্থী আচরণ বিধি না মেনে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করেছিলেন। এ জন্য তাদেরকে ইতিপূর্বে নির্বাচন কমিশন সতর্ক করেছিল। কিন্তু তারা কেউ এতে কর্ণপাত করেননি। সোমবার তাদেরকে কারণ দর্শানোর নোটিস দেয়া হয়েছে। তিন প্রার্থীকে সাত দিনের মধ্যে রিটার্নিং অফিসারের কাছে তাদের নিজ নিজ আচরণের ব্যাখ্যা দিতে হবে।
নির্বাচন কমিশন সূত্র জানায়, গত ২৬ মার্চ বিকালে চট্টগ্রাম বিএনপির পক্ষ থেকে মনজুরকে সমর্থন দেওয়ার পরই রাতে নগরীর দেওয়ানহাটে তার নির্বাচনী কার্যালয় উদ্বোধন করা হয়। ওই অনুষ্ঠানে বিএনপির কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান এবং মনজুরের নির্বাচনী পরিচালনা কমিটির আহ্বায়ক আবদুল্লাহ আল নোমান উপস্থিত ছিলেন।
এ বিষয়ে গত শনিবার মনজুরের প্রতিদ্বন্দ্বী আ জ ম নাছিরের সমর্থক নাগরিক কমিটির পক্ষ থেকে রিটার্নিং অফিসারের লিখিত অভিযোগ দেয়া হয়।
অন্যদিকে, আ জ ম নাছিরের বিরুদ্ধে কমিউনিটি সেন্টার ভাড়া করে সভা করা, প্রচার চালানো এবং নগরীর বিভিন্ন স্থানে পোস্টার লাগানোর অভিযোগ আনা হয়েছে।
জানা গেছে, গত ২৪ মার্চ নগরীর এসএস খালেদ সড়কের একটি কমিউনিটি সেন্টারে নাছিরের সমর্থনে যৌথ বর্ধিত সভার আয়োজন করে চট্টগ্রাম নগর, উত্তর ও দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগ। ওই অনুষ্ঠানে মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এবং আওয়ামী লীগ নেতা হাছান মাহমুদ নগরীর উন্নয়নের প্রতিশ্রুতি দিয়ে নাছিরের পক্ষে ভোট প্রার্থনা করেন।
গত রবিবার মনজুরের পক্ষে মনোনয়নপত্র জমা দিতে এসে আবদুল্লাহ আল নোমান এ বিষয়ে রিটার্নিং অফিসারের কাছে মৌখিক অভিযোগ করেছিলেন।
এছাড়া জাতীয় পার্টি নেতা সোলায়মান আলম শেঠের কাছে নির্ধারিত ২১ দিনের আগে নির্বাচনী কার্যালয় উদ্বোধনের ব্যাখ্যা চাওয়া হয়েছে।

আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print