শনিবার , ১৮ আগস্ট ২০১৮
মূলপাতা » প্রধান খবর » ব্লগ কি জানে না খুনিরা, ‘হুজুরের’ নির্দেশে খুন

ব্লগ কি জানে না খুনিরা, ‘হুজুরের’ নির্দেশে খুন

425 ব্লগার ওয়াশিকুর রহমান বাবুকে চিনতোই না তার খুনিরা। তাদের চট্টগ্রাম থেকে ঢাকায় আনা হয় শুধু খুন করার জন্যই। এরা শুধু একজনের হুকুম তামিল করেছে মাত্র। তবে ধর্মীয় অনুভূতি কাজে লাগিয়ে এ কাজে তাদের প্ররোচিত করা হয়েছে।

ব্লগার বাবু হত্যায় আটক সন্দেহভাজন দুই মাদরাসা ছাত্র প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের এমন তথ্য দিয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

পুলিশ জানায়, বাবুকে হত্যা করার জন্য গত শনিবার চট্টগ্রাম থেকে ঢাকায় নিয়ে আসা হয় জিকুল্লাহ, আরিফ ও তাহিরকে। তারা ঢাকায় এসে আশ্রয় নেয় যাত্রাবাড়ী থানাধীন একটি মাদরাসায়। সেখান থেকে সোমবার সকালে তারা ধারালো অস্ত্র নিয়ে উপস্থিত হয় তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানাধীন জিপিকার মোড়ে, বাবুর কর্মস্থল ফারইষ্ট এভিয়েশনের নিকটে।

ডিএমপির তেজগাঁও জোনের উপ কমিশনার (ডিসি) বিপ্লব কুমার সরকার তিনি বাংলামেইলকে জানান, আটক জিকির ও আরিফ প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানিয়েছে, মাসুম নামে এক ব্যক্তি তাদেরকে বাবুর ছবি দেখিয়ে তাকে হত্যা করার জন্য নির্দেশ দেয়। এর আগে তারা বাবুকে কখনো দেখেনি কিংবা তাকে তারা চিনতোও না। তাদেরকে বলা হয়, বাবু ইসলাম সম্পর্কে কটূক্তিমুলক মন্তব্য করছে। সে ইসলামের শত্রু। তাকে হত্যা করা উচিৎ। গত রোববার রাতে হাতিরঝিলে মাসুমের সঙ্গে তাদের দেখা হয়। সেখানেই মাসুম তাদের কাছে বাবুর একটি ছবি হস্তান্তর করে এবং তাদেরকে বাবুর কর্মস্থলের কাছে নিয়ে যায়।

ডিসি বিপ্লব কুমার বলেন, মাসুম হয়তো তার ছদ্মনাম। এ ধরনের ব্যক্তিদের একাধিক নাম থাকে। আমাদের কাছে মাসুম সম্পর্কে যেসব তথ্য আছে তা যাচাই-বাছাই করা হচ্ছে। এই মাসুম সেই মাসুম কি না তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। সেই সাথে বেশ কিছু ছবিও আমরা সংগ্রহ করেছি। খুনিরা যাত্রাবাড়ীর যে মাদরাসায় আশ্রয় নিয়েছিল সেখানেও অভিযান চালানো হচ্ছে।

এ ঘটনায় সোমবার বিকেল পৌনে ৫টা পর্যন্ত থানায় কোনো মামলা হয়নি বলে জানিয়েছেন তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানার ডিউটি অফিসার এসআই সাহিদা আক্তার। তিনি জানান, ঘটনাস্থল থেকে একটি রক্তমাখা চাপাতি উদ্ধার করা হয়েছে।

এদিকে এই খুনের প্রতিবাদে বিকেল ৫টায় শাহবাগে গণজাগরণ মঞ্চের উদ্যেগে বিক্ষোভ হয়েছে। মঞ্চের মুখপাত্র ইমরান এইচ সরকার এই খুনের বিষয়ে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে বলেন, ‘একের পর এক ব্লগার খুন হলো সরকার কিংবা রাষ্ট্র কোনো খুনিকে বিচারের আওতায় আনতে পারেনি। একটি গোষ্ঠী সরকার ও রাষ্ট্রকে ব্যর্থ প্রমাণ করতে চাচ্ছে। সরকার যদি এটি বুঝেও না বুঝার ভান করে থাকে তাহলে তাদেরকে এর উপযুক্ত খেসারত দিতে হবে।’


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print