শুক্রবার , ২০ জুলাই ২০১৮
মূলপাতা » প্রধান খবর » শ্রীলঙ্কার অসহায় আত্মসমর্পণ, সেমিতে দ.আফ্রিকা

শ্রীলঙ্কার অসহায় আত্মসমর্পণ, সেমিতে দ.আফ্রিকা

208871.3বিশ্বকাপের প্রথম কোয়ার্টার ফাইনালে দক্ষিণ আফ্রিকার সামনে প্রতিরোধই গড়তে পারল না শ্রীলঙ্কা। প্রোটিয়াদের কাছে ৯ উইকেটে হেরে বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নিয়েছে লঙ্কানরা। আর সহজ জয়ে সেমিফাইনালে উঠে গেছে প্রোটিয়ারা।

বুধবার সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ডে টস জিতে আগে ব্যাট করতে নেমে জেপি ডুমিনির হ্যাটট্রিকে মাত্র ১৩৩ রানে অলআউট হয়ে যায় শ্রীলঙ্কা। জবাবে কুইন্টন ডি ককের নৈপুণ্যে ৯ উইকেট ও ৩২ ওভার হাতে রেখে জয় তুলে নেয় দক্ষিণ আফ্রিকা। ৭৮ রানে অপরাজিত থাকেন ডি কিক।

টস জিতে ব্যাট করতে নেমে মাত্র ৪ রানের মধ্যেই দুই ওপেনার কুশাল পেরেরা ও তিলকারত্নে দিলশানের উইকেট হারায় লঙ্কানরা। ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারে দলীয় ৩ রানে সাজঘরে ফেরেন কুশাল পেরেরা (৩)। এই ওপেনারকে উইকেটরক্ষক কুইন্টন ডি ককের গ্লাভসবন্দি করান প্রোটিয়া পেসার কাইল অ্যাবট। এরপর স্কোরবোর্ডে আর ১ রান জমা হতেই বিদায় নেন আরেক ওপেনার তিলকারত্নে দিলশান (০)। তাকে ফাফ ডু প্লেসির ক্যাচ বানিয়ে সাজঘরের পথ দেখান ডেল স্টেইন।

দ্বিতীয় উইকেটে প্রতিরোধ গড়ে তোলেন কুমার সাঙ্গাকারার ও লাহিরু থিরিমান্নে। তবে থিরিমান্নেকে ফিরিয়ে তাদের ৬৫ রানের জুটি ভাঙেন ‍স্পিনার ইমরান তাহির। থিরিমান্নেকে নিজের ফিরতি ক্যাচে পরিণত করেন তিনি। ৪৮ বলে ৫ চারে ৪১ রান করেন থিরিমান্নে। দলীয় ৮১ রানে মাহেলা জয়াবর্ধনেকেও বিদায় করেন তাহির। ৪ রান করা জয়াবর্ধনেকে ডু প্লেসির তালুবন্দি করান এই লেগস্পিনার।

এরপর পঞ্চম উইকেটে অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুসকে নিয়ে এগোতে থাকেন সাঙ্গাকারা। কিন্তু দলীয় ১১৪ থেকে ১১৬, মাত্র ২ রানের ব্যবধানেম্যাথুসসহ আরো ৩ ব্যাটসম্যানকে হারিয়ে মহাবিপদে পড়ে শ্রীলঙ্কা। প্রথমে ম্যাথুসকে ফিরিয়ে ৩৩ রানের জুটি ভাঙেন জেপি ডুমিনি। ১৯ রান করা ম্যাথুসকে ডু প্লেসির ক্যাচে পরিণত করেন তিনি। ম্যাথুসের বিদায়ের পর দ্রুতই ডাক খেয়ে ফেরেন তিশারা পেরেরা। তাহিরের বলে রিলে রুশোর হাতে ক্যাচ তুলে দেন তিনি।

 

দলীয় ১১৬ রানে একই ওভারে পর পর দুই বলে নুয়ান কুলাসেকারা ও অভিষিক্ত থারিন্ডু কৌশলকে বিদায় করে হ্যাটট্রিক পূরুণ করেন ডুমিনি। আগের ওভারের শেষ বলে ম্যাথুসকে আউট করেছিলেন তিনি। এক প্রান্ত আগলে রাখা সাঙ্গাকারাও বিদায় নেন দলীয় ১২৭ রানে। মরনে মরকেলের বলে ডেভিড মিলারের হাতে ক্যাচ দেন সাঙ্গাকারা। সাঙ্গাকারা এদিন করেন ৪৫ রান। দলীয় ১৩৩ রানে শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে মালিঙ্গাকে আউট করেন তাহির।

 

দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৪৫ রান করেন কুমার সাঙ্গাকারা। দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে সর্বোচ্চ ৪ উইকেট নেন তাহির। হ্যাটট্রিকসহ ৩ উইকেট নেন ডুমিনি।


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print