সোমবার , ২৩ জুলাই ২০১৮
মূলপাতা » প্রধান খবর » জনগণই তাদের নির্বাচনের দাবি আদায় করবে: ফখরুল

জনগণই তাদের নির্বাচনের দাবি আদায় করবে: ফখরুল

 আন্দোলনের মাধ্যমে জনগণ নির্বাচনের দাবি আদায় করবে বলে জানিয়েছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।  ২০১৯ সালের আগে কোনো নির্বাচন নয় সরকারের মন্ত্রীদের এমন বক্তব্যের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

শুক্রবার সকালে রাজধানীর শের-ই বাংলা নগরে জিয়াউর রহমানের কবরে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া নেতাকর্মীদের নিয়ে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান।

পরে সাংবাদিকদের মির্জা ফখরুল বলেন, বর্তমান প্রেক্ষাপটে দেশে গণতন্ত্র হুমকির মুখে। সংকট উত্তরণে দেশে একটি অর্থবহ নির্বাচনের মাধ্যমে জনগণের সরকার প্রয়োজন।

তিনি জানান, সেজন্য বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। আন্দোলনের মাধ্যমে নির্বাচনের দাবি আদায় করতে হবে।

মির্জা ফখরুল বলেন, জিয়াউর রহমান ৭ নভেম্বরের ঘটনার পর দ্বিতীয়বারের মতো দেশে গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়া শুরু করেছিলেন।

আওয়ামী লীগের দাবি, জিয়াউর রহমান আইএসআইয়ের চর ছিলেন। সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এটা পাগলের প্রলাপ। জিয়াউর রহমান মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন। তিনি রণাঙ্গনে যুদ্ধ করেছেন, ইতিহাস এর সাক্ষী।

বিএনপির মুখপাত্র বলেন, জিয়াউর রহমান স্বাধীনতার ঘোষক। তার ঘোষণার পর জনগণ দেশমাতৃকার মুক্তিসংগ্রামে ঝাঁপিয়ে পড়েছিল।

তিনি বলেন, বর্তমানে দেশে গণতান্ত্রিক পরিবেশ নেই। দেশের সকল গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে ধ্বংস করছে এই অবৈধ সরকার।

বিএনপির এই মুখপাত্র বলেন, ১৯৭৫ সালের ৭ নভেম্বর সিপাহী-জনতার আন্দোলনে জিয়াউর রহমানকে মুক্তি দিতে বাধ্য হয় সরকার। তাই এ দিনটি অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ।

জিয়াউর রহমান দেশকে রাজনৈতিক সংকট থেকে মুক্ত করে গোটা জাতিকে ঐক্যবদ্ধ করেছিলেন এবং তার নেতৃত্বেই স্বাধীনতা এসেছিল বলেও মন্তব্য করেন মির্জা ফখরুল।

এর আগে শ্রদ্ধা নিবেদনের সময় খালেদা জিয়ার সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন- বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, এমকে আনোয়ার, ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়া, নজরুল ইসলাম খান, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, লে. জে. (অব.) মাহবুবুর রহমান, ভাইস চেয়ারম্যান আলতাফ হোসেন চৌধুরী, সেলিমা রহমান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা শামসুজ্জামান দুদু, ব্যারিস্টার শাজাহান ওমর, ডা. জেডএম জাহিদ হোসেন, যুগ্ম-মহাসচিব আমান উল্লাহ আমান, বরকত উল্লাহ বুলু, রুহুল কবির রিজভী, আন্তর্জাতিকবিষয়ক সম্পাদক নাজিম উদ্দিন আলম, শিক্ষাবিষয়ক সম্পাদক খায়রুল কবির খোকন, অর্থনৈতিক বিষয়ক সম্পাদক আব্দুস সালাম, মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক শিরিন সুলতানা প্রমুখ।

 


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print