রবিবার , ২২ জুলাই ২০১৮
মূলপাতা » অন্যান্য » অসুস্থ মান্নাকে হাসপাতালে ভর্তি

অসুস্থ মান্নাকে হাসপাতালে ভর্তি

manna1-1424735700রাষ্ট্রদ্রোহ মামলায় গোয়েন্দা পুলিশের হেফাজতে ১০ দিনের রিমান্ডে থাকা মাহমুদুর রহমান মান্না অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। মঙ্গলবার রাতে হঠাৎ বুকে ব্যথা অনুভব করায় তাকে তাৎক্ষণিকভাবে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। কার্ডিওলজি বিভাগে বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর রাত সাড়ে ১২টায় তাকে ওই বিভাগে ভর্তি করা হয়।

মাহমুদুর রহমান মান্না রাত পৌনে ১১টার দিকে হঠাৎ বুকে ব্যথা অনুভব করেন। গোয়েন্দা কর্মকর্তারা বলেছেন, বিষয়টি তাদের জানানোর পর তাৎক্ষণিকভাবে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে ইসিজিসহ বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর রাত সাড়ে ১২টায় তাকে কার্ডিওলজি বিভাগে ভর্তি করা হয়।

কার্ডিওলজি বিভাগের চিকিৎসক ডা. তাহছিন রাতে বলেছেন, ইসিজি রিপোর্টে মাহমুদুর রহমান মান্নাকে স্বাভাবিক মনে হচ্ছে। তবে হার্ট বিট বেশি থাকায় তাকে হাসপাতালে ভর্তি রাখা হয়েছে।

এদিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য যে কোনো সময়ে মাহমুদুর রহমান মান্নাকে টাস্ক ফোর্স ইন্টারোগেশন সেলে (টিএফআই) নেয়া হবে। ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের ডিসি (উত্তর) শেখ নাজমুল আলম রাতে যুগান্তরকে বলেছেন, মান্নাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য টিএফআই সেলে নেয়ার অনুমতি পাওয়া গেছে।

গোয়েন্দা পুলিশের একটি সূত্র জানায়, মাহমুদুর রহমান মান্নাকে টিএফআই সেলে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য মঙ্গলবার পুলিশ সদর দফতর থেকে অনুমতি দেয়া হয়েছে।

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি রাজধানীর বনানীতে এক আত্মীয়র বাসা থেকে গোয়েন্দা পুলিশ পরিচয়ে মান্নাকে আটক করা হয়। তবে প্রথমে আইনশৃংখলা বাহিনীর কোনো সংস্থা তাকে আটকের খবর নিশ্চিত করেনি। পরদিন গভীর রাতে সেনাবাহিনীতে বিদ্রোহে উসকানির চেষ্টা ও প্ররোচনার অভিযোগে দায়ের করা গুলশান থানার একটি মামলায় মান্নাকে গ্রেফতার দেখানো হয়। পরে ওই রাতেই তাকে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) কাছে হস্তান্তর করা হয়।

গুলশান থানায় দায়ের হওয়া মামলায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য প্রথম দফায় মান্নাকে ১০ দিনের রিমান্ডে নেয় পুলিশ। পরে রাষ্ট্রদ্রোহের মামলায় তাকে দ্বিতীয় দফায় ১০ দিনের রিমান্ডে নেয়া হয়েছে।

গোয়েন্দা পুলিশের দায়িত্বশীল এক কর্মকর্তা জানান, টেলি কথোপকথন প্রসঙ্গে প্রবাসে থাকা ব্যক্তির ব্যাপারে মান্নার কাছে জানতে চাওয়া হয়েছে। এছাড়া আন্দোলনের নামে বিএনপির জ্বালাও-পোড়াও সম্পর্কে সাদেক হোসেন খোকা ছাড়া আর কার সঙ্গে কথা হয়েছে সে বিষয়টি মান্নার কাছে জানতে চাওয়া হয়। তবে মাহমুদুর রহমান মান্না বরাবর কৌশলে এসব প্রশ্নের উত্তর এড়িয়ে গেছেন।


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print