শুক্রবার , ২০ জুলাই ২০১৮
মূলপাতা » টেনিস » হরতাল বাড়লো শুক্রবার সকাল পর্যন্ত

হরতাল বাড়লো শুক্রবার সকাল পর্যন্ত

indexগণদাবি মেনে না নেয়ায় হরতালের সময়সীমা বৃদ্ধির ঘোষণা দিয়েছে বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোট। চলমান অবরোধ কর্মসূচির পাশাপাশি ডাকা হরতাল চলবে শুক্রবার সকাল পর্যন্ত। পাশাপাশি বৃহস্পতিবার সারা দেশে সকল জেলা, উপজেলা, পৌরসভা ও থানা পর্যায়ে এবং দেশের সকল মহানগরের ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে গণমিছিল অনুষ্ঠিত হবে। মঙ্গলবার বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সালাহ উদ্দিন আহমেদ এক বিবৃতিতে এ ঘোষণা দেন।

বিবৃতিতে বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব সালাহ উদ্দিন বলেন, এখন পর্যন্ত সরকার গণদাবি মেনে না নেয়ায় পুনরায় একই দাবিতে আমাদের অঙ্গীকার অনুযায়ী ২০ দলীয় জোটের উদ্যোগে চলমান অবরোধ কর্মসূচির পাশাপাশি বুধবার সকাল ৬টা থেকে শুক্রবার সকাল ৬টা পর্যন্ত দেশব্যাপী শান্তিপূর্ণ চলমান সর্বাত্মক হরতাল কর্মসূচি বর্ধিত করা হল।

এ ছাড়া আগামী বৃহস্পতিবার সারা দেশে সকল জেলা, উপজেলা, পৌরসভা ও থানা পর্যায়ে এবং দেশের সকল মহানগরের ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে গণমিছিল অনুষ্ঠিত হবে। ইতোমধ্যে সরকার গণদাবি মেনে না নিলে আমরা আবারও আগামী রোববার থেকে দেশব্যাপী হরতালসহ আরও কঠোর কর্মসূচি দিতে বাধ্য হব।

সালাহউদ্দিন আহমেদ বিবৃতিতে বলেন, নাগরিক ও রাজনৈতিক অধিকারের বিনিময়ে আওয়ামী লীগ শান্তি প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে বন্দুকের নলের মধ্যেই রাজনৈতিক সংকটের সমাধান খুঁজছে। আইয়ুব খান মডেলের আওয়ামী চর্চায় দেশে গণতন্ত্র ও উন্নয়ন দু’টোই অস্তিত্ব সংকটে পড়েছে। তিনি বলেন, রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা ও উন্নত গণতন্ত্রই টেকসই উন্নয়নের পূর্বশর্ত। সুবিধাবাদী, সর্ববিনাশী, একনায়কত্ববাদী আওয়ামী রাজনীতির অপচর্চা জাতির ভবিষ্যৎকে অন্ধকারাচ্ছন্ন করছে।

বিএনপির এ নেতা বলেন, নিয়মতান্ত্রিক ও গণতান্ত্রিক পন্থায় আন্দোলনের সকল পথ বন্ধ করে দিয়ে সরকার প্রকারান্তরে অগণতান্ত্রিক শক্তিকেই আহ্বান জানাচ্ছে। আওয়ামী লীগ অবৈধ ক্ষমতা ও দুঃশাসন প্রলম্বিত করার লক্ষ্যেই জঙ্গিবাদের জুজুর ভয় দেখাচ্ছে দেশবাসী ও আন্তর্জাতিক মহলকে। জনগণের সাথে প্রতারণা করে ক্ষমতায় টিকে থাকতে আওয়ামী লীগ এখন প্রতিদিনই জঙ্গিবাদের ‘টেস্টটিউব বেবী’র জন্ম দিচ্ছে।

বিবৃতিতে সালাহ উদ্দিন আহমেদ চলমান অবরোধ-হরতাল এবং বৃহস্পতিবারের গণমিছিল কর্মসূচি শান্তিপূর্ণভাবে পালন করতে বিএনপি ও এর সহযোগী সংগঠন এবং ২০ দলীয় জোটের নেতাকর্মীসহ দেশবাসীকে বেগম খালেদা জিয়ার পক্ষ থেকে উদাত্ত আহ্বান জানান।

৫ জানুয়ারি দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের বর্ষপূর্তিতে কর্মসূচি ঘোষণা দিয়ে গত ৩ জানুয়ারি গুলশানে নিজ কার্যালয়ে যাওয়ার পর কার্যত অবরুদ্ধ হয়ে পড়েন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। সেখান থেকে ৫ জানুয়ারি সারাদেশে লাগাতার অবরোধ কর্মসূচির ঘোষণা দেন খালেদা জিয়া। এরপর দফায় দফায় সারাদেশে হরতালের ঘোষণা দেয় ২০ দল।

সর্বশেষ গত রোববার থেকে বুধবার সকাল পর্যন্ত টানা ৭২ ঘণ্টার হরতালের ডাক দেয়া হয় বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলের পক্ষ থেকে। তবে বিশ্বকাপ ক্রিকেটে বাংলাদেশের জয় উপলক্ষে বিজয় মিছিল করার লক্ষ্যে হরতাল ১২ ঘণ্টা শিথিলের ঘোষণা দেয়া হয়।


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print