বৃহস্পতিবার , ২৬ এপ্রিল ২০১৮
মূলপাতা » টেনিস » চট্টগ্রামে নিস্ক্রিয় বিএনপি!

চট্টগ্রামে নিস্ক্রিয় বিএনপি!

CTG-1425459295চলমান টানা হরতাল, অবরোধ এবং ঢাকার রাজনীতিতে টানটান উত্তেজনাকর পরিস্থিতি বিরাজ করলেও চট্টগ্রামের রাজনীতির মাঠে অনেকটা অস্তিত্বহীন বিএনপি। গত ৫ জানুয়ারীর পর থেকেই বিএনপিকে আর মাঠে দেখা যাচ্ছে না।

ঢাকা থেকে বিবৃতির মাধ্যমে হরতাল অবরোধের ডাক দেওয়া হলেও সেসব অবরোধ হরতালের সমর্থনে কোন কর্মসূচী পালন করতে দেখা যাচ্ছে না চট্টগ্রামে বিএনপি’র নেতা-কর্মীদের। পুলিশ প্রহরায় যথারীতি দুই মাস ধরে তালাবদ্ধ রয়েছে চট্টগ্রামের কাজীর দেউড়িস্থ চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির দলীয় কার্যালয়।

এছাড়া, আত্মগোপনে রয়েছেন দলের সব সিনিয়র নেতা। চট্টগ্রামে বিএনপির রাজনীতির নীতি নির্ধারক হিসেবে খ্যাত কেন্দ্রীয় বিএনপি নেতা আবদুল্লাহ আল নোমান এবং মীর মোহাম্মদ নাসির উদ্দিন ছাড়া দলের চট্টগ্রামের সব সিনিয়র নেতা একাধিক মামলার আসামী হিসেবে বর্তমানে আত্মগোপনে রয়েছে। মামলা না থাকলেও মাঠে নামছেন না আবদুল্লাহ আল নোমান এবং মীর মোহাম্মদ নাসির উদ্দিন।

বুধবার চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সভাপতি মীর মোহাম্মদ নাসির উদ্দিন এবং সাধারণ সম্পাদক ডা. শাহাদাত হোসেনের মোবাইল ফোনে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্ঠা করেও বন্ধ পাওয়া যায়। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপি’র একাধিক নেতা  জানান, নেতারা সবাই নিজেদের গা বাঁচিয়ে পালিয়ে রয়েছেন। সঠিক নেতৃত্ব ও নির্দেশনা না থাকায় এবং পুলিশের কঠোর অবস্থানের কারনে সাধারণ কর্মীরা মাঠে নেই।

তবে কয়েকজন সিনিয়র নেতা জানান, কৌশলগত কারনে নেতারা আত্মগোপনে থেকে দলের মাঠ পর্যায়ের নেতা-কর্মীদের দিক নির্দেশনা প্রদান করছেন।

এদিকে বিএনপির নেতা-কর্মীরা মাঠে না থাকায় চট্টগ্রামের সর্বত্র মাঠ দখল করে নিয়েছে আওয়ামীলীগ, ছাত্রলীগ ও যুবলীগ। প্রতিদিন আওয়ামীলীগ হরতাল, নৈরাজ্য ও সন্ত্রাস বিরোধী মিছিল সমাবেশ করলেও হরতাল-অবরোধের সমর্থনে কোন কর্মসূচী নিয়ে মাঠে নামতে দেখা যায়নি বিএনপি নেতাকর্মীদের।

চট্টগ্রাম বিএনপির দলীয় সূত্র জানায়, বিএনপির চট্টগ্রামের তিন সাংগঠনিক জেলা ও নগরের শীর্ষ পর্যায়ের নেতারা ঢাকা ও চট্টগ্রামের বিভিন্ন এলাকায় আত্মগোপন করে আছেন। নেতারা আত্মগোপনে থাকায় কর্মীরাও মাঠে নেই।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন সিনিয়র নেতা  জানান, ৫ জানুয়ারির পর থেকে গণহারে গ্রেফতার শুরু হওয়ায় কেন্দ্রীয় নির্দেশনায় অনেকেই আত্মগোপন করেছেন। তবে তাঁরা বিভিন্ন এলাকায় গোপন বৈঠক করছেন। কেন্দ্রের নির্দেশে বিএনপি নেতারা আত্মগোপনে থেকে দলের নের্তৃত্ব দিচ্ছেন উল্লেখ করে বিএনপি নেতারা বলেন পরিস্থিতি ও কেন্দ্রীয় নির্দেশনা পেলে ফের মাঠে নামবেন সবাই।

চট্টগ্রাম বিএনপির শ্রম বিষয়ক সম্পাদক এম নাজিম উদ্দিন রাইজিংবিডিকে বলেন, কৌশলগত কারনে বিএনপির নেতা-কর্মীরা এই মুহুর্তে মাঠ নামছেন না।

এ ছাড়া মামলা হামলায় বিএনপির প্রতিটি নেতাকর্মীকে জর্জরিত করেছে সরকার। আমার বিরুদ্ধে গত এক বছরে পাঁচটি মামলা হয়েছে। খসরু ভাই, শাহাদাতসহ অন্য নেতাদের বিরুদ্ধেও একাধিক মামলা হয়েছে। গ্রেফতার এড়াতে নেতারা মাঠে নেই। তবে সব নেতাদের কেন্দ্রের সাথে যোগাযোগ রয়েছে। কেন্দ্র থেকে দলকে আরও শক্তিশালি করার নির্দেশনা রয়েছে। সেই নির্দেশ বাস্তবায়ন করতে নেতা-কর্মীরা চট্টগ্রামে সরকার বিরোধী তীব্র আন্দোলন গড়ে তুলবে।


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print