সোমবার , ২৩ জুলাই ২০১৮
মূলপাতা » প্রধান খবর » ২৫৭ রানে জয় পেল দক্ষিণ আফ্রিকা

২৫৭ রানে জয় পেল দক্ষিণ আফ্রিকা

soutg৪০৯ রানের পাহাড়সম টার্গেট নিয়ে মাঠে নেমেছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। কিন্তু ৩৩.১ ওভার কোন রকেমে খেলতে পেরে সব উইকেট হারিয়ে তারা সংগ্রহ করতে পারলো মাত্র ১৫১ রান। ২৫৭ রানের বিশাল ব্যবধানে দক্ষিণ আফ্রিকা জয়লাভ করলো এবারের বিশ্বকাপের ১৯তম ম্যাচে।
ওয়েস্ট ইন্ডিজের পক্ষে ওপেনিং করতে নেমেছিলেন ক্রিস গেইল এবং ডোয়েন স্মিথ। কিন্তু খেলার মাত্র ১ ওভার গিয়ে ৩ বলে ক্রিস গেইল মাত্র ৩ রান নিয়ে অ্যাবোটের বলে বোল্ড হয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন।

শুক্রবার সিডনির পুল বির মাঠে টসে জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় দক্ষিণ আফ্রিকা। তারপর দি ভিলিয়ার্সের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে ৪০৮ রানের পাহাড় গড়ে ৫০ ওভার খেলে মাঠ ছাড়ে দক্ষিণ আফ্রিকা। তাদের বেঁধে দেওয়া টার্গেট পুরনের লক্ষ্যে খেলতে নামে ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

বলাবাহুল্য টার্গেট বড়, কিন্তু দ্বিতীয় আর তৃতীয় ওভারের খেলা দেখেই মনে হচ্ছিল টার্গেটটি সত্যিই ওয়েস্ট ইন্ডিজের জন্য মাথা ব্যাথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। তাই ক্রিস গেইলের পর খেলতে নেমে ০ রানে ৩.৩ ওভারে প্যাভিলিয়নে ফিরে যান স্যামুয়েল। নতুন ব্যাটসম্যান হিসেবে মাঠে প্রবেশ করেন জোনাথান কার্টার। মনে হচ্ছে বড় চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা বড় মুশকিল হয়ে পড়ছে ওয়েস্ট ইন্ডিজের জন্য! ১১তম ওভারে দলের তৃতীয় উইকেটটির পতন হয়। মরকেলের বলে, ভিলিয়ার্সের ক্যাচে প্যাভিলিয়নে ফেরেন জোনাথান কার্টার। চতুর্থ ব্যাটসম্যান হিসেবে মাঠে নামেন দিনেশ রামদীন। রামদীন নামার পর পরের ১২ তম ওভারের প্রথম বলটি করেন ইমরান তাহির। ব্যাস, পেয়ে যান পরের উইকেটটি। ডোয়েন স্মিথ ব্যক্তিগত ৩১ রান নিয়ে ফেরেন প্যাভিলিয়নে।  নামেন লেনডি সাইমন্স। কিন্তু একই ওভারের শেষ বলে ইমরান তাহির এলবিডব্লিউ থেকে পেয়ে যান সাইমন্সের উইকেটটি। দিনেশ রামদীনের সঙ্গে জুটি বাঁধতে আসেন ড্যারেন স্যামি।

দক্ষিণ আফ্রিকা ব্যাটিং ভালো যে করেছে তা বলাবাহুল্য। ফিল্ডিংটাও কোন অংশে কম দেখাননি। একটি ক্যাচ মিস করা ছাড়া পুরো ফিল্ডিংটিই ছিল এক কথায় পারফেক্ট। দুর্দান্ত বোলিং আর টাইট ফিল্ডিংয়ের কাছে বেশি গতিতে এগুতে পারেনি ওয়েস্ট ইন্ডিজ। শুরু থেকে বোঝা যাচ্ছিল ২শ রান পার করা মুশকিল হয়ে যাবে!

খেলার ১৭ ওভারের প্রথম বলে আরও একটি উইকেটের পতন হলো, ইমরান তাহিরের বলে উইকেট রক্ষক ডি কক স্ট্যাম্পিং করে নিলেন ড্যারেন স্মিথের উইকেটটি। তার মাত্র একটি বল বাদ দিয়ে তৃতীয় বলে পড়ে গেল আদ্রে রাসেলের উইকেটটি। ইমরান তাহিরের বলে রাসেলের ক্যাচটি ধরেন অ্যাবোট। ২৫ ওভারের শেষ বলে ইমরান তাহিরের হাতে বোল্ড হয়ে ব্যক্তিগত ২২ রান নিয়ে মাঠের বাইরে যান দীনেশ রামদীন। জ্যাসন হোল্ডারের সঙ্গে জুটি বাধতে নেমেছেন জেরোমি টেইলর।

খেলার ৩০ তম ওভারে এসে যেন ঝলসে ওঠে হোল্ডারের ব্যাট। একের পর এক তিনিও যেন ভিলিয়ার্সকে অনুসরণ করে হাকাতে শুরু করেন চার, ছয়। ৩২.৩ ওভারে দলীয় রানতে তিনি নিয়ে যান ১৫০এ। শেষের দিকে পেটানো খেলার মাধ্যমে ৪৮ বলে ৫৬ রান করেন তিনি। কিন্তু ডেল স্টেইনের করা তারপরের বলটি খেলতে গিয়ে ক্যাচ তুলে দেন হাশিম আমলার হাতে। শেষ উইকেট হিসেবে ব্যাটিংয়ে নামেন সুলেইমান বেন।

কিন্তু তিনিও মাত্র ১ রানে মরকেলের বলে হাশিম আমলার হাতে ক্যাচ তুলে আজকের ম্যাচ গুটিয়ে ফেলেন। হার নিশ্চিত হয় ওয়েস্ট ইন্ডিজের!


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print