সোমবার , ২৩ এপ্রিল ২০১৮
মূলপাতা » প্রধান খবর » কোয়ার্টার ফাইনালে যাওয়ার আশা থাকছে বাংলাদেশের

কোয়ার্টার ফাইনালে যাওয়ার আশা থাকছে বাংলাদেশের

CRICKET-WC-2015-SRI-BANএই মুহূর্তে ‘এ’ গ্রুপের পয়েন্ট টেবিলে ৩ ম্যাচে ৪ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে শ্রীলঙ্কা আর সমানসংখ্যক ম্যাচে ৩ পয়েন্ট নিয়ে চারে আছে বাংলাদেশ। তবে নেট রানরেটে শ্রীলঙ্কার চেয়ে এগিয়ে বাংলাদেশ। লঙ্কানদের নেট রানরেট ‍+০.০৪ আর বাংলাদেশের ‍‍+০.১৩।
শ্রীলঙ্কার কাছে হেরে যাওয়ায় আপাতত তাদের চিন্তা না-হয় মাথা থেকে দূরে ঠেলা গেল। এখন বাংলাদেশের সব হিসাব-নিকাশ আসলে নিউজিল্যান্ড, স্কটল্যান্ড ও ইংল্যান্ডকে ঘিরেই। এই তিনটি ম্যাচের যেকোনো দুটিতে জয় বাংলাদেশকে পৌঁছে দিতে পারে কোয়ার্টার ফাইনালের লড়াইয়ে।
এ তিন ম্যাচের কোন দুটিকে লক্ষ্য হিসেবে নেবে বাংলাদেশ? ক্রিকেটীয় মানে স্কটল্যান্ডের চেয়ে এগিয়ে বাংলাদেশ। এ দলটিকে নেলসনে বাংলাদেশ হারাবে, এটা তো আশা করাই যায়। নিউজিল্যান্ড ও ইংল্যান্ডকে তো অতীতে হারানোর অভিজ্ঞতা আছে বাংলাদেশের।

সাম্প্রতিক পারফরম্যান্সের বিচারে ইংলিশদের অবস্থা খুব একটা ভালো নয়। এ মুহূর্ত গ্রুপ পয়েন্ট টেবিলে ২ পয়েন্ট নিয়ে তাদের অবস্থান ছয়ে। পয়েন্ট, নেট রান রেট-দুটিতেই বাংলাদেশের সঙ্গে যথেষ্ট ব্যবধান। আগামী ৯ মার্চ অ্যাডিলেডে ইংল্যান্ডের নড়বড়ে অবস্থার সুযোগে তাদের যদি হারিয়ে দেওয়ার সুযোগটা যদি কাজে লাগাতে পারে মাশরাফি বিন মুর্তজার দল, তবে বড় সুসংবাদই অপেক্ষা করছে বাংলাদেশের দর্শকদের জন্য।
তবে বাংলাদেশের জন্য মহা গুরুত্বপূর্ণ হয়ে দাঁড়িয়েছে ১ মার্চের শ্রীলঙ্কা-ইংল্যান্ড ম্যাচ। এ ম্যাচে শ্রীলঙ্কা জিতে গেলে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে বাংলাদেশের জয়ই নিশ্চিত করে দেবে শেষ আট। তবে ইংল্যান্ড যদি শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে জিতেই যায়, তাতেও আশা হারিয়ে যাবে না। স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে জয় তো আছেই, সঙ্গে শ্রীলঙ্কা, আফগানিস্তান-এই তিন জয় নিয়ে ইংল্যান্ডের পয়েন্ট হবে ৬। আর আফগানিস্তান, স্কটল্যান্ড, ইংল্যান্ডকে হারানোর পাশাপাশি অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে পাওয়া এক পয়েন্টে বাংলাদেশের পয়েন্ট হবে ৭।

icc

জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক রকিবুল হাসানও আশা হারাচ্ছেন না। বললেন, ‘শেষ আটে যাওয়ার দারুণ সুযোগ আছে। এ জন্য দুটো ম্যাচ জিততেই হবে। আর এ দুটো ম্যাচ জেতার সামর্থ্য আমাদের আছে। একটা জিততে হবে স্কটল্যান্ড আর বাকিটা ইংল্যান্ড বা নিউজিল্যান্ড—যে কোনো একটি দলের বিপক্ষে। তবে তার আগে যদি ১ মার্চ শ্রীলঙ্কা-ইংল্যান্ড ম্যাচে লঙ্কানরা জিতে যায় তবে ইংলিশদের বিপক্ষে আমাদের লড়াইটা পরিণত মহাগুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে! তবে শ্রীলঙ্কাও সহজে পার পাবে না। সামনে ইংল্যান্ড তো আছেই। তাদের সামনে রয়েছে আরেক কঠিন প্রতিপক্ষ অস্ট্রেলিয়া। এখন বাংলাদেশ নিজেদের কাজটা ঠিকঠাক করতে পারলেই হয়।’
ফলে আশার সলতে এখনো জ্বলছে, আর সেই সলতের জ্বালানি মাশরাফিদের হাতেই। স্কটল্যান্ডকে হারাতে হবে, তারা সঙ্গে ইংল্যান্ডকে।


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print