মঙ্গলবার , ১৪ আগস্ট ২০১৮
মূলপাতা » জাতীয় » মার্চে চালু হচ্ছে চট্টগ্রামের প্রথম পাঁচতারা হোটেল

মার্চে চালু হচ্ছে চট্টগ্রামের প্রথম পাঁচতারা হোটেল

radison-1424676894দেশের প্রধান বাণিজ্য ও বন্দরনগরী চট্টগ্রামে প্রথম পাঁচ তারকা মানের হোটেল র‌্যাডিসনের যাত্রা শুরু হতে যাচ্ছে আগামী ১ মার্চ থেকে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চট্টগ্রাম এসে এই হোটেলের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন।

বাংলাদেশ সেনাকল্যাণ সংস্থার অর্থায়নে প্রায় পাঁচশ’ কোটি টাকা ব্যয়ে এই হোটেলের নির্মাণ কাজ শতভাগ সম্পন্ন হয়েছে। চট্টগ্রাম মহানগরীর লালখান বাজার ও কাজীর দেউড়ি এলাকার মাঝামাঝি এবং চট্টগ্রাম এমএ আজিজ স্টেডিয়ামের উল্টোদিকে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর চার দশমিক ১৮ একর জমির ওপর এই পাঁচ তারকা মানের হোটেলটি নির্মাণ করেছে সেনা হোটেল ডেভেলপমেন্ট লিমিটেড।

র‌্যাডিসন বে ভিউ হোটেল চিটাগাং প্রকল্পের মেজর এস এম গোলাম কাওসার রাইজিংবিডিকে বলেন, ‘দেশের বাণিজ্যিক রাজধানী খ্যাত বন্দরনগরী চট্টগ্রামে এটিই প্রথম পাঁচ তারকা মানের হোটেল। ভিস্তারা আর্কিটেক্টসের স্থপতি মুস্তাসিম পলাশ খালিদের নকশায় এবং প্রকৌশলী মো. রফিকের স্ট্রাকচারাল ডিজাইনে ২২ তলা বিশিষ্ট চট্টগ্রাম র‌্যাডিসন হোটেলটি নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হয়েছে।’

গোলাম কাওসার আরো জানান, প্রাচ্যের রাণী খ্যাত চট্টগ্রামের পাহাড়-নদী-সমুদ্রের অসাধারণ প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের সঙ্গে মিল রেখে সবুজ বান্ধব নানা আয়োজনে হোটেলটি নির্মাণ করা হয়েছে। এই হোটেলে রয়েছে দুটি বেইজমেন্টসহ ২২টি ফ্লোর। প্রথম পাঁচ তলা পর্যন্ত প্রতিটি ফ্লোরের আয়তন ৮৬ হাজার বর্গফুট। এরপরের ফ্লোরগুলো প্রতিটি ২০ হাজার বর্গফুটের। দেশি-বিদেশি অতিথিদের রাত্রিযাপনের জন্য এখানে রয়েছে ২৪৯টি কক্ষ। এর বাইরে একটি প্রেসিডেন্সিয়াল স্যুট ও একটি রয়েল স্যুট রয়েছে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর মতো অতিথিদের থাকার জন্য।

হোটেলে ষষ্ঠ তলা পর্যন্ত  বিশেষ র‌্যাম্পের মাধ্যমে ঘুরে ঘুরে উঠতে পারবে গাড়ি। ষষ্ঠ তলাতেই থাকছে সার্কুলার কার পার্কিং ও সুইমিং পুল। পাঁচ তারকা এই হোটেলে চট্টগ্রামের ঐতিহ্যকে ধারন করে মেজবান হল নামে পরিচিত দুটি ব্যাংকুইট হল করা হয়েছে। প্রতিটিতে একসঙ্গে মেজবানে অংশ নিতে পারবেন এক হাজার অতিথি। হোটেলের ভেতরে বাইরে মিলে এক হাজার অতিথির গাড়ি পার্কিংয়ের প্রয়োজনীয় অবকাঠামো নির্মাণ করা হয়েছে। এ ছাড়া সাতটি লিফট, দুটি লং টেনিস কোর্ট, একটি ডিসকো থিক, মিনি শপিং মার্ট, ব্যাংকসহ পাঁচ তারকা হোটেলের যাবতীয় সব সুযোগ-সুবিধা এই হোটেলে পরিপূর্ণভাবে বিদ্যমান থাকবে।

সেনাকল্যাণ সংস্থা সূত্র জানায়, ২০১০ সালের সেপ্টেম্বর মাসে নির্ধারিত স্থানে মাটি কাটার মাধ্যমে র‌্যাডিসন হোটেলের নির্মাণ কাজ শুরু হয়েছিল। ২০১১ সালের ১৭ জুলাই ভবন নির্মাণের কাজ শুরু হয়। মাত্র তিন বছরের মধ্যেই এই বিশাল প্রকল্পের কাজ শতভাগ সম্পন্ন হয়। ডিসেম্বর মাসের মধ্যেই এটি উদ্বোধনের জন্য পুরোপুরি প্রস্তুত করা হয়েছে।

আগামী ১ মার্চ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চট্টগ্রাম এসে হোটেল র‌্যাডিসনের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন বলে হোটেল কর্তৃপক্ষ সূত্র নিশ্চিত করেছে। প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক হোটেল র‌্যাডিসন উদ্বোধন উপলক্ষ্যে রেডিসনের পার্শ্ববর্তী এলাকায় বিভিন্ন ক্ষতিগ্রস্ত সড়ক সংস্কারের জন্য চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনকে (চসিক) চিঠি দিয়েছে চট্টগ্রাম সেনানিবাস।

রোববার এক দাপ্তরিক চিঠির মাধ্যমে ২৬ ফেব্রুয়ারির মধ্যে ক্ষতিগ্রস্ত সড়ক সংস্কারের নির্দেশনা রয়েছে। পাশাপাশি এম এ আজিজ স্টেডিয়াম সংলগ্ন এলাকায় সৌন্দর্য বর্ধনের জন্যও সিটি করপোরেশনকে অনুরোধ জানিয়েছে সেনানিবাস কর্তৃপক্ষ।

চসিকের নির্বাহী প্রকৌশলী আবু ছালেহ চট্টগ্রাম সেনানিবাসের কাছ থেকে চিঠি প্রাপ্তির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print