সোমবার , ১৬ জুলাই ২০১৮
মূলপাতা » বিনোদন » ২০১৫ এর অস্কার বিজয়ীরা

২০১৫ এর অস্কার বিজয়ীরা

oscar-1424673565যুক্তরাষ্ট্রের লস অ্যাঞ্জেলেসে হলিউডের ডলবি থিয়েটারে আজ সোমবার সকালে অ্যাকাডেমি (অস্কার) অ্যাওয়ার্ডসের ৮৭তম আসর অনুষ্ঠিত হয়েছে। অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করেছেন হলিউড অভিনেতা নীল প্যাট্রিক হ্যারিস।

‘অ্যান্ড দ্য অস্কার গোজ টু..’ ডলবি থিয়েটারের স্টেজে এই কয়েকটি শব্দের উচ্চারণ আবারও জাগিয়েছিল শিহরণ। সিনেদুনিয়ার সেরাদের মধ্যেও কে আসলে সেরার সেরা সেটাই ঠিক করে দেয় লম্বায় ৩৪.২ সেমি আর ৮.৫ পাউন্ড ওজনের অস্কারের গোল্ডেন ট্রফিটি।

৮৭ তম অ্যাকাডেমি অ্যাওয়ার্ডের মোট ২৪টি ক্যাটেগরিতে সেরাদের হাতে উঠেছে এই গোল্ডেন ট্রফিটি। আর ১০০-টিরও বেশি দেশের মানুষের কাছে সরাসরি সম্প্রচার দেখতে পেয়েছে অনুষ্ঠানটির। এ ছাড়া অনুষ্ঠান স্থলে এই ঐতিহাসিক মুহূর্তের সাক্ষী ছিলেন প্রায় ৩৩০০ জন।

নিল প্যাট্রিক হ্যারিসের রসিকতায় শুরু হয়েছিল এবারের অস্কার। বললেন, আজ আমরা সম্মান জানাতে এসেছি ‘হোয়াইটেস্ট’দের..পরে যেন ভুল সংশোধনের ভঙ্গিমায় বললেন, আসলে ‘ব্রাইটেস্ট’দের। এ কথায় হাসিতে গড়িয়ে পড়েছিল উপস্থিত সকলেই। যদিও এর মধ্যে মজার বাইরে খানিকটা সত্যিও আছে। এবারের নমিনেশনের তালিকায় জুড়ে আছেন শ্বেতাঙ্গরাই। তাই বোধহয় হ্যারিসের এমন মজা কিংবা খোঁচা। রসিকতা শেষ করে ধরলেন গান। তার সঙ্গে আচমকা যোগ দিলেন আন্না কেনড্রিক। সব মিলিয়ে প্রত্যাশা মতোই জমজমাট শুরু হয়েছিল অস্কার অনুষ্ঠানের।

সেরা সিনেমার ভীড়ে এবার কোন পরিচালকের মেধাকে স্বীকৃতি দেয়া হবে তা নিয়ে ছিল বরাবরের মতোই উৎসাহ৷ সেরা সিনেমার বিভাগে এবার ফেভারিট ভাবা হচ্ছিল ‘বয়হুড’কে। গোল্ডেন গ্লোব, বাফটা, ক্রিটিকস চয়েস অ্যাওয়ার্ডস-সহ বছরের গুরুত্বপূর্ণ বেশিরভাগ পুরস্কারই জিতেছে এই সিনেমাটি। কিন্তু অস্কারটা জুটলো না। সেরা সিনেমার অস্কার জিতেছে ‘বার্ডম্যান’।

সেরা অভিনেতার পুরস্কারেও ছিল হাড্ডাহাড্ডি লড়াই। তবে ‘দ্য থিওরি অব এভরিথিং’ সিনেমায় বিজ্ঞানী স্টিফেন হকিংয়ের ভূমিকায় অনবদ্য অভিনয় করায় অ্যাকাডেমি অ্যাওয়ার্ডসের ৮৭তম আসরে সেরা অভিনেতার পুরস্কার জিতেছেন ৩৩ বছর বয়সী ব্রিটিশ অভিনেতা এডি রেডমেইন।

সেরা অভিনেত্রীর পুরস্কার জিতেছেন ৫৪ বছর বয়সী মার্কিন অভিনেত্রী জুলিয়ান মুর। ‘স্টিল অ্যালিস’ সিনেমায় আলজেইমার রোগে আক্রান্ত অধ্যাপিকার ভূমিকায় অনবদ্য অভিনয়ের কারণে তিনি যে এবার অস্কার জিতবেন, সেই আভাস আগেই দিয়ে রেখেছিলেন এর আগে গোল্ডেন গ্লোব, বাফটা, স্ক্রিন অ্যাক্টরস গিল্ড (এসএজি) অ্যাওয়ার্ডস, ক্রিটিকস চয়েস অ্যাওয়ার্ডস, স্পিরিট অ্যাওয়ার্ডস জিতেও।

অস্কারের ৮৭তম আসরে সেরা পরিচালক কে হবেন, বয়হুডের জন্য রিচার্ড লিঙ্কলেটার, নাকি বার্ডম্যানের জন্য আলেহান্ড্রো গঞ্জালেজ ইনারিতু?- তা নিয়ে জল্পনা ছিল তুঙ্গে। শেষ পর্যন্ত বাজিমাত করে বিজয়ের হাসি হাসলেন আলেহান্ড্রো গঞ্জালেজ ইনারিতু। ‘বার্ডম্যান’ তৈরির জন্য সেরা পরিচালকের অস্কার পেয়েছেন মেক্সিকান এই চলচ্চিত্রকার।

সেরা সহ-অভিনেতার পুরস্কার জিতেছেন জেকে সিমন্স। ‘হুইপ্ল্যাশ’ সিনেমায় জ্যাজসংগীত শিক্ষকের ভূমিকায় দুর্দান্ত অভিনয়ের জন্য এই স্বীকৃতি পেয়েছেন তিনি।

সেরা সহ-অভিনেত্রীর অস্কার পুরস্কার জিতেছেন ৪৬ বছর বয়সী প্যাট্রিসিয়া আর্কেট। ‘বয়হুড’ সিনেমায় মায়ের ভূমিকায় অনবদ্য অভিনয়ের জন্য স্বীকৃতি হিসেবে তিনি এ পুরস্কার অর্জন করেছেন। ফলে তার কারণে সেরা সহ-অভিনেত্রী বিভাগে অস্কার জেতা হলো না রেকর্ড ১৯বারের মতো মনোনয়ন পাওয়া মেরিল স্ট্রিপের। এর আগে তিনবার অস্কার জিতেছেন তিনি। ৬৫ বছর বয়সী এই অভিনেত্রীর আগে কেবল প্রয়াত ক্যাথারিন হেপবার্নের চারবার অস্কার জয়ের রেকর্ড আছে।

৮৭তম অস্কারে বিদেশী ভাষার সেরা সিনেমার দৌঁড়ে এগিয়ে ছিল রাশিয়ান সিনেমা ‘লেভিয়াথান’। তবে শেষমেশ অস্কার পেল ‘ইডা’। পাওয়েল পাউলিকসকি পরিচালিত এই সিনেমাটি ৬০ দশকের পোল্যান্ড এবং সেসময়ের এক তরুণী নানকে কেন্দ্র করে নির্মিত। এর আগে বাফটা ও স্পিরিট অ্যাওয়ার্ডসেও সেরা বিদেশি ভাষার চলচ্চিত্রের পুরস্কার জিতেছিল ‘ইডা’।

অভিনেতাদের চরিত্র অনুযায়ী তাদের সাজিয়ে তোলার শিল্পকেও সম্মাননা জানায় অ্যাকাডেমি অ্যাওয়ার্ড। কস্টিউম ডিজাইন বিভাগে সেরার সম্মান এবার গেল মিলেনা ক্যানোনোরার কাছে। পেয়েছেন- ‘দ্য গ্র্যান্ড বুদাপেস্ট হোটেল’ সিনেমার জন্য।

মেকআপ ও হেয়ারস্টাইলে সেরার স্বীকৃতি ফ্রান্সিস হ্যানন ও মার্ক কোলির। ‘দ্য গ্র্যান্ড বুদাপেস্ট হোটেল’ সিনেমার জন্য। এ ছাড়া অন্যান্য যেসব ক্যাটাগরিতে অস্কার দেওয়া হয়েছে সেগুলো হচ্ছে-

সেরা শর্ট ফিল্ম- দ্য ফোন কল।

সেরা ডকুমেন্ট্রি শর্ট সাবজেক্ট- ক্রাইসিস হটলাইন: ভেটরান প্রেস ওয়ান।

সেরা ডকুমেন্ট্রি ফিচার- সিটিজেন ফোর।

সাউন্ড মিক্সিংয়ে সেরা- হুইপ্ল্যাশ।

সাউন্ড এডিটিং- আমেরিকান স্নাইপার।

ভিজ্যুয়াল ইফেক্টস- ইনটারস্টেলর।

সেরা অ্যানিমেটেড শর্ট ফিল্ম- ফিস্ট।

সেরা অ্যানিমেটেড ফিচার ফিল্ম- বিগ হিরো সিক্স।

সেরা প্রোডাকশন ডিজাইন- দ্য গ্র্যান্ড বুডাপেস্ট হোটেল (অ্যাডাম স্টকহাউসেন ও আনা পিনক)

সেরা সিনেমাটোগ্রাফি- বার্ডম্যান (ইমানুয়েল লুবেজকি)।

সেরা এডিটিং- হুইপ্ল্যাশ (টম ক্রস)।

সঙ্গীতে অরিজিনাল সং- গ্লোরি (সেলমা-জন স্টিফেন্স ও লুনি লিন)

সঙ্গীতে অরিজিনাল স্কোর- দ্য গ্র্যান্ড বুদাপেস্ট হোটেল।

অরিজিনাল স্ক্রিন প্লে- বার্ডম্যান।

অ্যাডাপ্টেড স্ক্রিন প্লে- দ্য ইমিটেশন গেম (গ্রাহাম মুর)।


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print