সোমবার , ২৩ এপ্রিল ২০১৮
মূলপাতা » প্রধান খবর » গণভবনে হাসিনা-মমতা একাকার

গণভবনে হাসিনা-মমতা একাকার

HASINA-1424506976বাংলাদেশে সফররত ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, এপারে পানি প্রবাহিত হতে শুরু হলে ওপারে ইলিশ যাবে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পশ্চিমবঙ্গে ইলিশের দুষ্প্রাপ্যতার বিষয়টি অবহিত করলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এভাবেই তাঁর প্রতিক্রিয়া জানান।
আজ শনিবার প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে শেখ হাসিনার সঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বৈঠক হয়। বৈঠকের পর প্রধানমন্ত্রীর গণমাধ্যমবিষয়ক উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী এক ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের এসব কথা জানান। খবর ইউএনবির।
বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে তিস্তা চুক্তির বিষয়ে আশ্বস্ত করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, বহুল আলোচিত তিস্তা নদীর পানি বণ্টন চুক্তি যাতে দ্রুত সই হয়, এ বিষয়ে তিনি ইতিবাচক ভূমিকা পালন করবেন। যাতে বাংলাদেশ ও ভারত উভয়েরই স্বার্থ রক্ষা হয় এবং কোনো পক্ষেরই ক্ষতি না হয়। এ ছাড়া স্থল সীমান্ত চুক্তি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ভারতের পার্লামেন্টে ২৩ ফেব্রুয়ারি থেকে বাজেট অধিবেশনে শুরু হবে। এই অধিবেশন চলাকালে দীর্ঘ প্রতীক্ষিত স্থল সীমান্ত চুক্তি অনুমোদন করানো হবে।
বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে দুই বাংলার শিল্পীদের নিয়ে সাংস্কৃতিক উৎসব আয়োজনের জন্য একটি কমিটি গঠনের আহ্বান জানান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বাংলাদেশের সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর বাংলাদেশ পক্ষের কমিটির নেতৃত্ব দেবেন। অন্যদিকে নিজ মন্ত্রিসভা থেকে তাঁদের পক্ষের কমিটির জন্য একজনকে মনোনীত করবেন মমতা।

বৈঠকে কলকাতা থেকে ঢাকা হয়ে আগরতলা পর্যন্ত সরাসরি বাস সার্ভিস চালুর প্রস্তাব দিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এ ছাড়া কলকাতায় নির্মিতব্য বঙ্গবন্ধু ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের জন্য পশ্চিমবঙ্গ সফরে যেতে শেখ হাসিনাকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন তিনি। পাশাপাশি বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ে বঙ্গবন্ধু চেয়ার ও নজরুল ফেলোশিপ উদ্বোধনের জন্য প্রধানমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ জানান।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে একটি ছোটো নৌকা উপহার দেন প্রধানমন্ত্রী। এ ছাড়া বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের একটি ছবি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে উপহার দেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

আনুষ্ঠানিক বৈঠকের পর দুই নেতা আধঘণ্টা একান্ত বৈঠক করেন।


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print