রবিবার , ২২ এপ্রিল ২০১৮
মূলপাতা » ক্রিকেট » বাংলাদেশ দলের করণীয় যা

বাংলাদেশ দলের করণীয় যা

xpert131_1354557448_1-msh_shakibএ মুহূর্তে বিশ্বকাপের পয়েন্ট টেবিলটা বাংলাদেশের দর্শকদের জন্য বেশ স্বস্তিদায়ক। আসলে এমন স্বস্তি আগেও কখনো পায়নি বাংলাদেশ!
‘এ’ গ্রুপের পয়েন্ট টেবিল দেখুন। সবার ওপরে দুই স্বাগতিক। শক্তিমত্তা আর ঘরের মাঠের সুবিধার বিচারে তা তারা থাকতেই পারে। কিন্তু এর পরের নামটি গ্রুপের অন্য দুই শক্তিশালী দল শ্রীলঙ্কা, ইংল্যান্ডও নয়; বাংলাদেশ! বলা হচ্ছিল, এবার বিশ্বকাপের দুই গ্রপের মধ্যে কঠিন গ্রুপ এটিই।
আজকের বৃষ্টি বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় উপকার যেটি করেছে, টুর্নামেন্ট শুরুর আগে বাংলাদেশের সামনে সমীকরণ ছিল, আফগানিস্তান-স্কটল্যান্ডকে হারানোর পাশাপাশি কমপক্ষে দুটো বড় দলকে হারাতে হবে। টুর্নামেন্টের সবচেয়ে বড় ফেবারিট অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গেই পয়েন্টটা পেয়ে যাওয়ায় এখন আর একটা বড় দলকে হারালেই সম্ভাবনাটা উজ্জ্বল হবে। আর সেই ‘বড়’ দল হিসেবে বাংলাদেশ লক্ষ্য বানাতে পারে কোণঠাসা ইংল্যান্ডকে, যাদের গত বিশ্বকাপেই হারিয়েছে বাংলাদেশ।
এখনো পর্যন্ত বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সাফল্য ২০০৭ বিশ্বকাপে দ্বিতীয় রাউন্ডে যাওয়া। সেবারও কিন্তু প্রথম দুই ম্যাচ পর পয়েন্ট টেবিলে এমন পরিস্থিতি ছিল না। প্রথম ম্যাচে ভারতের বিপক্ষে ঐতিহাসিক জয় পাওয়ার পরই শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বড় ব্যবধানে হার। মজার ব্যাপার হচ্ছে, সেবারও বাংলাদেশের দ্বিতীয় ম্যাচে বাগড়া দিয়েছিল বৃষ্টি। তবুও ডাকওয়ার্থ লুইস পদ্ধতিতে বাংলাদেশে হেরেছিল বড় ব্যবধানে। এবারও দ্বিতীয় ম্যাচে বৃষ্টি বাগড়া। তবে এ বৃষ্টি বাংলাদেশের জন্য আশীর্বাদ হয়েই এসেছে।
সুযোগ কাজে লাগাতে কয়েকটি কঠিন সমীকরণ মেলাতে হবে মাশরাফিদের। বাংলাদেশের পরের ম্যাচটা শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে। গত কয়েক মাসে অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ড কন্ডিশনে লঙ্কানদের পারফরম্যান্স যাচ্ছেতাই। এ সুযোগ কাজে লাগিয়ে মেলবোর্নের ম্যাচে দারুণ কিছু করতেই পারেন মাশরাফিরা। অবশ্য না জিততে পারলেও সুযোগ নষ্ট হবে না। ওই ম্যাচে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে হারলেও বাংলাদেশের লাভ। তাতেও নেট রান রেটে বাংলাদেশ সুবিধাজনক জায়গাতেই থাকবে।
বাংলাদেশকে অবশ্যই জিততে হবে ৫ মার্চ স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে। এরপর ৯ মার্চ সামনে থাকবে ইংল্যান্ড। সাম্প্রতিক পারফরম্যান্সের বিচারে ইংলিশদের অবস্থা খুব একটা ভালো নয়। এ মুহূর্ত গ্রুপ পয়েন্ট টেবিলে তাদের অবস্থান একদম তলানিতে। পয়েন্ট, নেট রান রেট—দুটোতেই বাংলাদেশের সঙ্গে বিস্তর ব্যবধান। ইংলিশদের আত্মবিশ্বাসও তথৈবচ। আর এ সুযোগটা যদি কাজে লাগাতে পারে মাশরাফি বিন মুর্তজার দল, তবে ভিন্ন কিছুই হবে।
গুরুত্বপূর্ণ শ্রীলঙ্কা-ইংল্যান্ড ম্যাচও
আগামী ১ মার্চ মুখোমুখি হবে শ্রীলঙ্কা-ইংল্যান্ড। এ ম্যাচে শ্রীলঙ্কা জিতে গেলে ৯ মার্চ ইংল্যান্ডের বিপক্ষে বাংলাদেশের জয় নিশ্চিত করে দেবে শেষ আট। তবে ইংল্যান্ড যদি শ্রীলঙ্কার বিপক্ষেও জেতে, তাতেও কিন্তু আশা হারিয়ে যাবে না। স্কটল্যান্ড, শ্রীলঙ্কা, আফগানিস্তান—এই তিন জয় নিয়ে ইংল্যান্ডের পয়েন্ট হতে পারে ৬। আফগানিস্তান, স্কটল্যান্ড, ইংল্যান্ডকে হারানোর পাশাপাশি অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে পাওয়া এক পয়েন্টে বাংলাদেশের পয়েন্ট হবে ৭।
হিসাব পরিষ্কার, প্রথম দুই ম্যাচে একেবারে নাকানিচুবানি খাওয়া ইংল্যান্ডকে হারাও!


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print