মঙ্গলবার , ১৯ জুন ২০১৮
মূলপাতা » জ্ঞান-বিজ্ঞান » উইন্ডোজই যখন বস!

উইন্ডোজই যখন বস!

উইন্ডোজেঅ্যান্ড্রয়েডকে টেক্কা দিতে বিস্তর পরিকল্পনা নিয়ে এগোচ্ছে বিশ্বের বৃহত্তম সফটওয়্যার নির্মাতাপ্রতিষ্ঠান মাইক্রোসফট। প্রযুক্তি বিশ্লেষকেরা ধারণা করছেন, মাইক্রোসফটের উইন্ডোজের নতুন সংস্করণ যদি অ্যান্ড্রয়েডকে টেক্কা দিতে না পারে, তবে বিশেষ কয়েকটি পরিকল্পনা নিয়ে এগোবে প্রতিষ্ঠানটি।
মাইক্রোসফট যে কয়েকটি প্ল্যান বা পরিকল্পনা নিয়ে এগোবে এর মধ্যে একটি হবে ‘প্ল্যান বি’। কী থাকছে ‘প্ল্যান বি’তে? মাইক্রোসফটের সূত্রের বরাতে প্রযুক্তি বিশ্লেষকেরা বলছেন, উইন্ডোজকে এমনভাবে বানানো হবে, যাতে সব অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ উইন্ডোজে চালানো যাবে। তবে ঠিক কবে নাগাদ এই সুবিধাটি মাইক্রোসফট চালু করবে, সে বিষয়টি এখনো পরিষ্কার নয়।
উইন্ডোজে অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ চালানোর সুবিধা দেওয়ার পাশাপাশি ‘প্ল্যান সি’ নামে আরও একটি বিশেষ পরিকল্পনা নিয়ে এগোচ্ছে মাইক্রোসফট।
প্ল্যান সি অ্যান্ড্রয়েড প্ল্যাটফর্মে জনপ্রিয় বেশ কিছু অ্যাপ তৈরি করবে মাইক্রোসফট। এরপর সুযোগ বুঝে ওই অ্যাপসমেত অ্যান্ড্রয়েডচালিত পণ্য নির্মাতাদের সঙ্গে চুক্তি করে ফেলবে এবং স্মার্টফোনে মাইক্রোসফটের অ্যান্ড্রয়েড সুবিধা যুক্ত করে দেবে। সাইনোজেন প্ল্যাটফর্মে মাইক্রোসফটের বিনিয়োগের পর থেকেই ‘প্ল্যান সি’ নিয়ে প্রযুক্তি বিশ্বে আলোচনা শুরু হয়। ক্রমশ জনপ্রিয় হচ্ছে সাইনোজেন অপারেটিং সিস্টেম। গুগলের অ্যান্ড্রয়েডের কাস্টমাইজ সংস্করণ এটি। ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সাত কোটি মার্কিন ডলার সাইনোজেন মোডের উদ্যোক্তা প্রতিষ্ঠান সাইনোজেনে বিনিয়োগের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিশ্বের বৃহত্তম সফটওয়্যার নির্মাতাপ্রতিষ্ঠানটি। সাইনোজেন তাই গুগলের অ্যান্ড্রয়েডের বিকল্প হিসেবেই ব্যবহার করা যায় যাতে নতুন থিম, উন্নত প্রাইভেসি টুলের মতো ফিচার রয়েছে।
সম্প্রতি সাইনোজেন তাদের অপারেটিং সিস্টেম সরাসরি স্মার্টফোন নির্মাতাদের কাছে সরবরাহ করা শুরু করেছে। ইতিমধ্যে চীনের স্মার্টফোন নির্মাতা ওয়ান প্লাস তাদের জনপ্রিয় ওয়ান প্লাস ওয়ান স্মার্টফোন তৈরি করেছে সাইনোজেন দিয়ে। এ ছাড়া ভারতের স্মার্টফোন নির্মাতা মাইক্রোম্যাক্স ও চীনের অপো সাইনোজেননির্ভর ফোন তৈরি করছে। সাইনোজেনে বিনিয়োগের মাধ্যমে মাইক্রোসফট আরও বেশি মোবাইল গ্রাহককে টানতে পারবে বলেই মনে করছেন বাজার বিশ্লেষকেরা।
সাইনোজেন ছাড়াও আরও একটি পরিকল্পনা রয়েছে মাইক্রোসফটের আর তা হচ্ছে স্যামসাংকে হাত করা। সম্প্রতি মাইক্রোসফট ও স্যামসাংয়ের বোঝাপড়া সেই ইঙ্গিত দিচ্ছে। বেশ কিছুদিন ধরে চলা পারস্পরিক মামলার সমঝোতা করে নিয়েছে মাইক্রোসফট ও স্যামসাং। এখন স্যামসাং মাইক্রোসফটের জন্য অ্যান্ড্রয়েডের বিপক্ষে লড়তে কিছুটা সুবিধা করে দিতে পারে। উইন্ডোজ প্ল্যাটফর্মের ট্যাব ও স্মার্টফোন শুরু করতে পারে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রতিষ্ঠানটি। এ জন্য মাইক্রোসফট কর্তৃপক্ষ স্যামসাংকে লোভনীয় অফার দিতে পারে।
বাজার বিশ্লেষকেরা ধারণা করছেন, মাইক্রোসফট ও উইন্ডোজের ব্যাটে বলে মিলে গেলেই ছক্কা অর্থাৎ গ্যালাক্সি এস ৬ স্মার্টফোনে দেখা যাবে অভিনবত্ব।
এস ৬ স্মার্টফোনে স্যামসাংয়ের প্রি-লোড অ্যাপ্লিকেশন এস ভয়েস, এস হেলথ, এস নোট ও স্ক্র্যাপবুকের পরিবর্তে দেখা যেতে পারে মাইক্রোসফটের ওয়ানড্রাইভ, ওয়াননোট, অফিস, স্কাইপ, সানরাইজ ক্যালেন্ডার, আউটলুক মেইলের মতো অ্যাপ।
মাইক্রোসফট আদৌ এ ধরনের পরিকল্পনা কার্যকর করবে কি না, সে বিষয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু জানায়নি। অবশ্য এ বছরের মধ্যেই মাইক্রোসফট কোন পরিকল্পনা বাস্তবায়ন শুরু করবে তা পাঠকেরা নিশ্চয়ই জেনে যাবেন।(জেডনেট)


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print