রবিবার , ২২ জুলাই ২০১৮
মূলপাতা » টেনিস » ‘প্রয়োজনে অসহযোগ আন্দোলন’

‘প্রয়োজনে অসহযোগ আন্দোলন’

bnp-1423822742সরকার রাষ্ট্রশক্তির চূড়ান্ত অপব্যবহার করছে, এ অভিযোগ করে এর বিরুদ্ধে অসহযোগ আন্দোলনের হুমকি দিয়েছে বিএনপি।

শুক্রবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে দলের যুগ্ম-মহাসচিব সালাহ উদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘অবৈধ, সরকার রাষ্ট্রশক্তির চূড়ান্ত অপব্যবহারের মাধ্যমে দেশকে অবরুদ্ধ করে রেখেছে। এই শ্বেতসন্ত্রাসের বিরুদ্ধে প্রতিবাদমুখর জনগণ অচিরেই আইন অমান্য ও অসহযোগ আন্দোলন শুরু করতে বাধ্য হবে।’

গণদাবি মেনে নিয়ে দেশে প্রকৃত গণতান্ত্রিক শাসনব্যবস্থা পুনঃপ্রতিষ্ঠায় সহযোগিতা করতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানান বিএনপির এ নেতা।

তিনি বলেন, ‘আমি প্রধানমন্ত্রীকে আহ্বান জানাচ্ছি, এখনো সময় আছে, ফ্যাসিবাদী একদলীয় রাষ্ট্রব্যবস্থা কায়েমের উন্মাদনা ও ব্যর্থ প্রচেষ্টা থেকে সরে আসুন।

দ্রুত পদত্যাগ করুন। অন্যথায় গণ-আন্দোলনে পতনের পর গণরোষে নিপতিত হলে পরিণাম শুভ হবে না।’ বিবৃতিতে অভিযোগ করা হয়, ইদানীং আওয়ামী নেতা-মন্ত্রীরা প্রকাশ্য জনসমাবেশে আন্দোলনকারীদের এনকাউন্টার এবং ক্রসফায়ারে হত্যার ঘোষণা দিয়ে যাচ্ছেন।

আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর বড় কর্তারাও প্রকাশ্যে সভা-সমিতি করে ক্রসফায়ারে হত্যার কৃতিত্ব দাবি করে বেড়াচ্ছেন। সালাহ উদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘এসব বিকৃত মস্তিষ্কের নেতা-মন্ত্রী ও পুলিশ কর্মকর্তাদের পরিণতি গণকারফিউ এবং গণপিটুনিতে নির্ধারিত হওয়ার আশঙ্কা উড়িয়ে দেওয়া যায় না।

মানবাধিকার লঙ্ঘনের প্রকাশ্য দাম্ভিক এই ঘোষণা দেওয়ায় তাদের আগামীতে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতে বিচারের আওতায় আনা হবে।’

বিএনপির এই যুগ্ম-মহাসচিব বলেন, ‘সরকার হত্যা-নির্যাতনের উন্মত্ততায় মূলত জনগণকে আতঙ্কিত করে রাষ্ট্রক্ষমতা দীর্ঘায়িত করতে চায়। বিরোধী দলের নেতা-কর্মীসহ নির্বিচারে মানুষ হত্যা, গুম, অপহরণ ও গণগ্রেফতার করে সরকার নিজের নিরাপদ অবতরণের পথকেই ক্রমশ সংকুচিত করে যাচ্ছে।’


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print