রবিবার , ২২ জুলাই ২০১৮
মূলপাতা » জাতীয় » সংলাপের জন্য প্রেসিডেন্ট ও দুই নেত্রীকে চিঠি

সংলাপের জন্য প্রেসিডেন্ট ও দুই নেত্রীকে চিঠি

dinkhon24.jpgfজাতীয় সংলাপের উদ্যোগ গ্রহণের জন্য প্রেসিডেন্ট, প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপি চেয়ারপারসনকে চিঠি দিয়েছেন নাগরিক সমাজ। সোমবার সন্ধ্যায় সাবেক প্রধান নির্বাচন কমিশনার এটিএম শামসুল হুদা সাক্ষরিত চিঠিগুলো সংশ্লিষ্ট দপ্তরগুলোতে পাঠানো হয়। দেশের চলমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি ও বিরাজমান সংকট উত্তরণের লক্ষ্যে গত ৭ই ফেব্রুয়ারি নাগরিক সমাজ মতবিনিময় সভার আয়োজন করে।

সভার সকলের বক্তব্যের আলোকে ও ঐক্যমত্যের ভিত্তিতে একটি প্রস্তাবনা গৃহীত হয়। চিঠির সঙ্গে সংযুক্তি হিসাবে ওই প্রস্তাবনাগুলো পাঠানো হয়েছে। জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার সঙ্গে যুক্ত নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না চিঠি পাঠানোর বিষয়টি নিশ্চিত করে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট দপ্তরে তা গ্রহণ করা হয়েছে। সংলাপের আহ্বান ছাড়াও দুই নেত্রী ও প্রেসিডেন্টের সঙ্গে আলোচনার জন্য নাগরিক সমাজের পক্ষ থেকে একটি কমিটি গঠনেরও প্রক্রিয়া চলছে। দু’একদিনের মধ্যে এই কমিটি গঠন হবে বলে মান্না জানান।

এর আগে রাজধানীর গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে চিঠিটি পৌঁছে দেন সংবিধান প্রণেতা ও বিশিষ্ট আইনজীবী ড. কামাল হোসেনের ব্যক্তিগত সহকারি অ্যাডভোকেট প্রিন্স চঞ্চল মাহমুদ। সোমবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে তিনি গুলশানের কার্যালয়ে যান। তিনি খালেদা জিয়ার কার্যালয়ে ঢুকতে চাইলে গেটে দায়িত্বরত পুলিশের বিশেষ শাখা-সিটি এসবির সদস্যরা তাকে প্রবেশের অনুমতি দেননি। মূল ফটক থেকে চিঠিটি বিএনপির চেয়ারপারসনের প্রেস উইংয়ের সদস্য শায়রুল কবির খান গ্রহণ করেন। পরে খালেদা জিয়ার বিশেষ সহকারী অ্যাডভোকেট শামসুর রহমান শিমুল বিশ্বাস গ্রহণ করে চিঠির একটি কপি বাহককে ফেরত দেন।

শায়রুল কবির খান চিঠির ব্যাপারে বলেন, চিঠিতে দেশের চলমান সঙ্কট নিরসনে জাতীয় সংলাপের উদোগ নেয়ার কথা জানানো হয়েছে।

জাতীয় সঙ্কট নিরসনে জাতীয় সংলাপের দাবিতে শনিবার রাজধানীতে একটি গোলটেবিলের আয়োজন করা হয়। এতে দেশের বরেণ্য ব্যক্তিত্ব, বুদ্ধিজীবী ও পেশাজীবী ব্যক্তিবর্গ অংশ নিয়েছিলেন। সেই গোলটেবিলে দেশের চলমান রাজনৈতিক সঙ্কট নিরসনের লক্ষ্যে দুই নেত্রীকে সংলাপে বসার ব্যাপারে প্রয়োজনীয় করণীয় বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। এরই প্রেক্ষিতে সোমবার বিএনপি চেয়ারপারসনের কাছে চিঠি দেয়া হয় বলে মন্তব্য করেন শায়রুল কবির খান। জাতীয় সংলাপের উদ্যোগ নিতে নাগরিক সমাজের পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকেও একই রকম একটি চিঠি দেয়া হবে বলে জানা গেছে।


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print