শুক্রবার , ২০ এপ্রিল ২০১৮
মূলপাতা » প্রধান খবর » গাইবান্ধা ও বরিশালে পেট্রোলবোমায় নিহত ৯

গাইবান্ধা ও বরিশালে পেট্রোলবোমায় নিহত ৯

গাইবান্ধাগাইবান্ধা ও বরিশালে পেট্রোলবোমা হামলায় নয় জন নিহত হয়েছে। পৃথক এ ঘটনায় দগ্ধ হয়েছে আরো ৪৬ জন। আহতদের মধ্যে কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

গাইবান্ধা:

গাইবান্ধায় যাত্রীবাহী বাসে পেট্রোল বোমা হামলায় নিহত হয়েছে ছয়জন এবং দগ্ধ হয়েছে ৪৬ জন। নিহতদের মধ্যে দুজন শিশু।

পেট্রোল বোমার আগুনে পুড়ে ঘটনাস্থলে এবং গাইবান্ধা আধুনিক সদর হাসপাতালে নেওয়ার পর মারা যায় শিশুসহ চারজন। দগ্ধ ১৭ জনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে পাঠানো হয়। সেখানে মারা যায় দুজন। এদের মধ্যে একজন শিশু এবং ঘটনাস্থলে নিহত হওয়া এক শিশুর মা।

শুক্রবার রাত ১১টার দিকে গাইবান্ধা-পলাশবাড়ী সড়কের তুলসীঘাট এলাকায় এ হামলার ঘটনা ঘটে।

জেলার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার পাঁচপীর থেকে নাপু এন্টারপ্রাইজের একটি বাস প্রায় ৫০ থেকে ৬৫ জন যাত্রী নিয়ে ঢাকার উদ্দেশে যাচ্ছিল। পথে তুলসীঘাট এলাকার বুড়িরঘর নামক স্থানে ওই বাসে পেট্রোল বোমা ছুড়ে মারে দুর্বৃত্তরা।

গাইবান্ধা থেকে পুলিশ-বিজিবি পাহারা দিয়ে আনছিল একটি গাড়িবহর। ওই গাড়িবহরে ছিল নাপু এন্টারপ্রাইজের বাসটি। পুলিশ-বিজিবি থাকার পরও বাসে পেট্রোল বোমা হামলা হওয়ায় তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছে এলাকাবাসী।

হতাহত হওয়া সবাই ওই বাসের যাত্রী। তাদের মধ্যে কেউ গার্মেন্ট শ্রমিক, কেউ রিকশাওয়ালা এবং অধিকাংশই ঢাকার বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শ্রমিক। কারো কারো সঙ্গে পরিবারের সদস্যরাও ঢাকায় যাচ্ছিল।

গাইবান্ধা সদর আধুনিক হাসপাতালের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার (আরএমও) আবু হানিফ জানিয়েছেন, চারজনের মরদেহ হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। রংপুরে পাঠানোর পর এক শিশু মারা গেছে। পরে সেখানে অগ্নিদগ্ধ আরো এক নারী মারা যান।

তিনি আরো জানান, প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে ছয়জনকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। যারা এখন গাইবান্ধায় চিকিৎসা নিচ্ছে, তাদের কারো ২০ শতাংশ, কারো ৩০ শতাংশ, কারো ৫০ শতাংশ এমনকি কয়েকজনের ৪০-৫০ শতাংশ পুড়ে গেছে।

বরিশাল:

বরিশালের গৌরনদীতে ট্রাকে পেট্রোল বোমা হামলা চালিয়েছে দুর্বৃত্তরা। এতে দগ্ধ হয়ে ওই ট্রাকে থাকা চালক, হেলপার ও এক শ্রমিক নিহত হয়েছেন।

 

শনিবার ভোর সোয়া ৫টার দিকে এই হামলা চালায় দুর্বৃত্তরা।

 

গৌরনদী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. সাজ্জাদ হোসেন জানান, ঢাকা থেকে পোলট্রি ফিড বহনকারী (ঢাকা মেট্রো ট-১৫-৯৩২৬) ট্রাকটি বরিশালের উদ্দেশ্যে আসছিল। ভোর সোয়া ৫টার দিকে ট্রাকটি ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কের বাটাজোর-মাহিলারার মধ্যস্থলে আসলে দুর্বৃত্তরা পেট্রোল বোমা নিক্ষেপ করে। এতে ওই ট্রাকের চালক, হেলপার ও এক শ্রমিক ঘটনস্থলেই পুড়ে মারা যান। নিহতদের নাম-পরিচয় এখনো জানা যায়নি বলে জানান ওসি সাজ্জাদ।

 

পরে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে সুরাতহাল করেছে। ময়নাতদন্তের জন্য লাশগুলো বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

 

এদিকে সকাল ৯টার দিকে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) এ কে এম এহসানউল্লাহ। তিনি জানান, ট্রাকটির মালিক ফরিদপুরের বাসিন্দা। তার সঙ্গে যোগযোগ করার চেষ্টা করা হচ্ছে।

 

তিনি আরো জানান, ট্রাকটিতে ওই তিনজনই ছিল এবং তিনজনই নিহত হয়েছে। তাই তাদের পরিচয় পাওয়া যাচ্ছে না।


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print