শুক্রবার , ২৭ এপ্রিল ২০১৮
মূলপাতা » প্রধান খবর » খানজাহানের ‘ধলাপাহাড়ের’ মৃত্যু! (ভিডিও)

খানজাহানের ‘ধলাপাহাড়ের’ মৃত্যু! (ভিডিও)

বৃহস্পতিবার ভোরে মাজার সংলগ্ন দীঘিতে কুমিরটিকে মৃত অবস্থায় ভাসতে দেখা যায় বলে খাদেমরা জানান।

পরে স্থানীয় ষাটগম্বুজ ইউনিয়ন পরিষদ ও বাগেরহাট সদর থানায় খবর দেওয়া হলে বেলা ১২টার দিকে পুলিশ ও প্রশাসনের কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে কুমিরটিকে পাড়ে তোলা হয়।

বাগেরহাটের ঐতিহ্যবাহী হয়রত খানজাহান (র.)-এর মাজারের দিঘির শতবর্ষী ‘ধলাপাহাড়’ নামের কুমিরটি মারা গেছে। দিঘির পানিতে বৃহস্পতিবার সকালে কুমিরটির মৃতদেহ ভাসতে দেখেন মাজারের বাসিন্দারা।

 মাজারের খাদেম হুমায়ুন কবির ফকির জানান, মাজারের দিঘির পাড়ের বাসিন্দারা সকালে দিঘির পানিতে কুমিরটিকে ভাসতে দেখে জেলা প্রশাসনে খবর দেয়। পরে প্রশাসনের লোকজন এসে কুমিরটিকে উদ্ধার করে।

বাগেরহাট জেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডা. সুখেন্দু শেখর গায়েন জানান, মৃত কুমিরটি প্রায় ৯ ফুট লম্বা। এই প্রজাতির মিঠাপানির কুমির সাধারণত ১১ ফুট পর্যন্ত লম্বা হয়ে থাকে। কুমিরটির বয়স আনুমানিক ১০০ বছর।

তিনি আরো জানান, Pan Statits রোগে আক্রান্ত হয়ে অথবা খাবারে বিষক্রিয়ায় মাদি এই কুমিরটির মৃত্যু হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। মাজার প্রাঙ্গণে কুমিরটির ময়নাতদন্ত চলছে বলে জানিয়েছেন ওই প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা।

ধলাপাহাড়ের সঙ্গী কালাপাহাড়ও কয়েক বছর আগে মারা যায়। ভারতের মাদ্রাজ ক্রোকোডাইল ব্যাঙ্ক থেকে ২০০৫ সালে আনা একই প্রজাতির দুটি কুমির বর্তমানে এ দিঘীতে রয়েছে।

বিশ্ব ঐতিহ্য ষাটগম্বুজ মসজিদ ও জাদুঘরের কিউরেটর গোলাম ফেরদৌস জানান, ১৪০১ সালে এই অঞ্চলে হযরত খানজাহান আলীর (র.) আগমন। তার হাতে খলিফতাবাদ নগর প্রতিষ্ঠা ও পরবর্তী ইতিহাসের সঙ্গে কালাপাহাড় ও ধলাপাহাড়ের নাম জড়িয়ে আছে অবিচ্ছেদ্যভাবে।

ভিডিও এখানে…


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print