বুধবার , ২৫ এপ্রিল ২০১৮
মূলপাতা » প্রধান খবর » শেষ বিশ্বকাপের তারকারা

শেষ বিশ্বকাপের তারকারা

এম এ ইসলাম আরেফিন

বিmisbah-afridi-pakistan-world-cupশ্বকাপের পর্দা উঠবে আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারি থেকে। আসন্ন বিশ্বকাপের জন্য প্রস্তুতি চলছে অংশগ্রহণকারী ১৪টি দলের। অনেকেই অপেক্ষা করছেন প্রথম বিশ্বকাপ খেলার রোমাঞ্চ উপভোগ করতে। আবার অনেক তারকা শেষ বিশ্বকাপ খেলার জন্য প্রহর গুনছেন।

আসন্ন অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ড বিশ্বকাপ যেই তারকাদের শেষ বিশ্বকাপ হতে যাচ্ছে তাদের নিয়েই আমাদের এই আয়োজন।

 কুমার সাঙ্গাকারা: আসন্ন বিশ্বকাপের পর সব ধরনের ক্রিকেট থেকে অবসরের ঘোষণা দিয়েছেন শ্রীলঙ্কার সাবেক অধিনায়ক কুমার সাঙ্গাকারা। ৩৭ বছর বয়সী সাঙ্গাকারা লঙ্কানদের হয়ে ৩৯৭টি ওয়ানডে খেলে ১৩ হাজারের বেশি রান সংগ্রহ করেছেন। ওয়ানডেতে ২১টি সেঞ্চুরি ও ৮৪টি হাফ-সেঞ্চুরি করা সাঙ্গাকারার অবসরের ফলে লঙ্কান দলে যে একটা শুন্যতা তৈরি হবে সেটা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। ২০১৪ সালে দলকে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়ে শ্রীলঙ্কাকে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জেতানো কুমার সাঙ্গাকারা যে সন্দেহাতীতভাবে ১৯৯৬ বিশ্বকাপজয়ীদের দ্বিতীয়বারের মতো শিরোপা জয়ের প্রধান সেনানী সেটা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।

শহিদ আফ্রিদি: বিশ্বের সর্বকালের অন্যতম ‘ভয়ঙ্কর’  ওয়ানডে খেলোয়াড়টির নাম শহিদ খান আফ্রিদি। ধুম-ধাড়াক্কা চার-ছয়ের জন্য ক্যারিয়ারের শুরুর দিকেই ‘বুম বুম’ আফ্রিদি উপাধি পান তিনি। ১৯৯৬-১৯৯৭ সালে ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় ওয়ানডেতে প্রথমবারের মতো ব্যাটিংয়ে নেমে ৩৭ বলে সেঞ্চুরি করে বিশ্বরেকর্ড গড়ে ক্রিকেট-বিশ্বে সাড়া ফেলে দেন এই পাঠান। যেই রেকর্ডটি ২০১৪ সাল পর্য-ন্ত অক্ষুণ্ন ছিল।

তবে শুধু ব্যাটিং নয়, গত কয়েক বছরে স্পিন বোলিংয়েও নিজের সেরা নৈপুণ্য প্রদর্শন করেছেন পাকিস্তানের ২০০৯ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জয়ের এই নায়ক। এর আগে চারটি বিশ্বকাপে (১৯৯৯, ২০০৩, ২০০৭ ও ২০১১) অংশ নেয়া আফ্রিদি এবার তার শেষ বিশ্বকাপ খেলতে যাচ্ছেন।

বিশ্বকাপের মেগা ইভেন্টের পরই ওয়ানডে ক্রিকেট থেকে অবসর নিবেন বলে আফ্রিদি এর আগেই ঘোষণা দিয়ে রেখেছেন। ক্যারিয়ারে ইতোমধ্যে ৩৯১টি ওয়ানডে খেলা আফ্রিদি এরই মধ্যে ৭ হাজার ৯০০ রানের বেশি করেছেন। বল হাতে নিয়েছেন ৩৯৩টি উইকেট, যেটি ওয়ানডের ইতিহাসে পঞ্চম সর্বোচ্চ। পাকিস্তানের দ্বিতীয় শিরোপা জয়ের জন্য আফ্রিদির দিকেই তাকিয়ে রয়েছে দল।

মাহেলা জয়াবর্ধনে: শ্রীলঙ্কার ব্যাটিংয়ের অন্যতম ‘স্তম্ভ’ বলা হয় মাহেলা জয়াবর্ধনেকে। দেশটির এমনকি ক্রিকেট ইতিহাসেরও অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান তিনি। আসন্ন বিশ্বকাপের পরই ওয়ানডে ক্রিকেট থেকে অবসর নিবেন তিনি। এর আগে টেস্ট ক্রিকেটকেও গুডবাই জানিয়েছেন জয়াবর্ধনে। গত বিশ্বকাপে ৯ ম্যাচে ৩০৪ রানে করেছিলেন তিনি। তবে তার দল ফাইনালে ভারতের কাছে পরাজিত হয়।

গত ১৭ বছর ধরে শ্রীলঙ্কার হয়ে ৪৪১ ওয়ানডে খেলা জয়াবর্ধনে এবার তার ক্যারিয়ারের পঞ্চম ও শেষ বিশ্বকাপ খেলতে যাচ্ছেন। ওয়ানডেতে ১৮টি সেঞ্চুরিতে ১২ হাজার ৫০০ এর বেশি রান করেছেন এই লঙ্কান গ্রেট। ১৮ বার জিতেছেন ম্যান অব দ্য ম্যাচের পুরস্কার। দ্বিতীয় বিশ্বকাপ জয়ের জন্য গত দুই বিশ্বকাপের রানার্স-আপরা সাঙ্গাকারার মতো জয়াবর্ধনের দিকেও তাকিয়ে রয়েছে।

মাইকেল ক্লার্ক: অস্ট্রেলিয়ার নিয়মিত অধিনায়ক মাইকেল ক্লার্কও তার শেষ বিশ্বকাপ থেলতে যাচ্ছেন। এখনো ওয়ানডে থেকে অবসরের ঘোষণা না দিলেও ৩৩ বছর বয়সী এই তারকার এটিই যে শেষ বিশ্বকাপ তা চোখ বন্ধ করে বলে দেয়া যায়। ফিটনেস ফিরে পেতে লড়াই করা মাইকেল ক্লার্ক এর আগে দুটি বিশ্বকাপে অংশ নিয়েছেন। গত বিশ্বকাপে ৭০ গড়ে ৩০০ এর অধিক রান করেছেন তিনি।

২০০৩ সালে ওয়ানডে অভিষেক হওয়া মাইকেল ক্লার্ক গত ১০ বছর ধরে দলের সেরা খেলোয়াড়ে পরিণত হন।

জেমস অ্যান্ডারসন: জেমস অ্যান্ডারসন ইংলিশ দলের সেরা পেসার। দেশটির ইতিহাসের সেরা পেসারও বটে। বয়স ইতোমধ্যেই ৩২ হয়ে গেছে। ফলে এর আগে তিনটি বিশ্বকাপে খেলা অ্যান্ডারসনের এটিই হতে যাচ্ছে শেষ বিশ্বকাপ। ২০০২ সালে ওয়ানডে অভিষেক হওয়ার পর এর মধ্যে ২৬৪ উইকেট নিয়েছেন অ্যান্ডারসন। ক্যারিয়ারের সেরা ফর্মে রয়েছেন তিনি। ফলে নিজের শেষ বিশ্বকাপকে স্মরণীয় করে রাখতে সম্ভাব্য সবকিছুই করতে চাইবেন তিনি।

এছাড়া পাকিস্তানের মিসবাহ উল হক, ইউনিস খান, ভারতের অধিনায়ক মাহেন্দ্র সিং ধোনি, নিউজিল্যান্ডের ব্রেন্ডন ম্যাককালাম ও ডেনিয়েল ভেট্টরি, শ্রীলঙ্কার তিলকরত্নে দিলশান ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের ক্রিস গেইল ও চন্দরপলও এবার শেষ বিশ্বকাপ খেলতে যাচ্ছেন।   -ক্রিকইনফো ও এনডিটিভি


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print