রবিবার , ২২ জুলাই ২০১৮
মূলপাতা » জাতীয় » ঢাকা মেট্রো রেলের নকশা চূড়ান্ত

ঢাকা মেট্রো রেলের নকশা চূড়ান্ত

অবশেষে শেষ হলো ঢাকা মেট্রো রেলের নকশা। ঢাকা মেট্রো রেল ট্রানজিট অথরিটি আয়োজিত নকশা প্রতিযোগিতায় জয়ী হয়েছে স্বনামধম্য বিট্রিশ সংস্থা জন ম্যাকআসলান অ্যান্ড পার্টনার্স জেএমপি। ৬৪ বছরের পুরানো এই সংস্থাটি বিশ্বে বেশ জনপ্রিয়। নয়া দিল্লির ‘আনন্দ বিহার’ ট্রান্সপোর্ট হাব ও ইংল্যান্ডের ঐতিহাসিক ‘কিংস ক্রস’ পাতাল রেল স্টেশনের নতুন নকশাটি তাদেরই করা।

ঢাকার মেট্রো রেলের নকশা করতে তারা পরিবেশকে প্রাধান্য একে পরিবেশবান্ধব করেও নকশা করা হয়েছে, যাতে করে ঢাকার ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যার চাপ এবং বায়ু ও শব্দ দূষন সামলাতে পারে।

ঢাকার মেট্রো রেলের প্রসঙ্গে ম্যাকআসলানের প্রধান পরিচালক হিরো আসো বলেন, “ঢাকার মতো শহরের জন্য অত্যান্ত তাৎপর্যপূর্ণ এই অবকাঠামোগত পদ্ধতিটি গড়ে তুলতে পারার অনবদ্য সুযোগ লাভ করায় আমাদের কোম্পানি অত্যন্ত আনন্দিত। বাংলাদেশের সড়কপরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওয়ায়দুল কাদের আমাদের নকশাকে অনুমোদন করেছেন। এটা আমাদের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি সুযোগ। এর ফলে এশিয়াতে আমাদের পরিচয় তৈরি হচ্ছে, যেমনটি হয়েছিল দিল্লির আনন্দ বিহার ট্রান্সপোর্ট হাব তৈরির পর।”

metro1

তিনি জানান, এই নকশায় মোট মোট ১৬টি স্টেশন রয়েছে। একটা নির্দিষ্ট থিমের আউট লুক বজায় রাখতে সবগুলো ষ্টেশনই একই নকশা মেনে করা হয়েছে। শুধু তাই নয়, এর মধ্যে একটি ট্রেন ডিপো এর নকশাও তৈরি করা হয়েছে। দিনশেষে ট্রেনগুলোকে এখানেই রাখা হবে।

মেট্রোরেল প্রকল্পের জন্য আনুমানিক ব্যয় ধরা হয়েছে ৩০০ কোটি ইউএস ডলার যা বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ২৪ হাজার কোটি টাকা। এই মেট্রো রেল ঢাকা উত্তরকে ঢাকা দক্ষিণের সঙ্গে মিলিত করবে। এই প্রকল্প শেষ শেষের সম্ভাব্য সময়সীমা ২০২১ সাল। প্লাটফর্মগুলো ২০২২ সালের মধ্যেই পুরোপুরি ব্যবহার করা শুরু হবে।

metro rail

ধারণা করা হচ্ছে, মেট্রো রেইলের মাধ্যমে প্রতিদিন গড়ে সাড়ে ৫ লাখ লোক তাদের বাসা থেকে শিক্ষা অথবা কর্মক্ষেত্রে যাতায়াত করবেন। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসির মাথার উপরেও একটা স্টেশন স্থাপন করা হবে।


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print