সোমবার , ১১ ডিসেম্বর ২০১৭
মূলপাতা » সরকারি » রাত পোহালেই অমর একুশে গ্রন্থমেলা

রাত পোহালেই অমর একুশে গ্রন্থমেলা

mela-03-1422696192হাসান ইমাম সাগর ॥ রাত পোহালেই অমর একুশে গ্রন্থমেলা। ভাষা আন্দোলনের স্মৃতিবিজড়িত মাসব্যাপী এ মেলা একুশে বইমেলা হিসেবেও পরিচিত। বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকায় প্রতি বছর পহেলা ফেব্রুয়ারি থেকে আয়োজন করা হয় এই মেলার।

বছরের এই মাসটিতে বইপ্রেমীদের মিলনমেলায় পরিনত হয় বাংলা একাডেমী প্রাঙ্গন। পাঠক, লেখক ও প্রকাশক সকলেই অপেক্ষায় থাকেন এই মাসটির জন্য। তাই মেলাকে কেন্দ্র করে এবারও বইয়ের পাড়া বাংলাবাজারে বিরামহীনভাবে চলছে বই ছাপা, ডিজাইন আর বাঁধায়ের কাজ। ব্যস্ত সময় পার করছেন প্রকাশকরা। ইতোমধ্যে অধিকাংশ বই চলে এসেছে প্রকাশকদের হাতে। তিনশতাধিক প্রকাশনী থেকে প্রায় তিন হাজারেরও বেশি বই প্রকাশিত হতে যাচ্ছে এবার।

এবারের বইমেলায় পাঠকদের আকর্ষণ বাড়াতে যোগ হচ্ছে নতুন মাত্রা। মেলার প্রথম চারদিনে আয়োজন করা হয়েছে অন্তর্জাতিক সাহিত্য সম্মেলন। যুক্তরাষ্ট্র, জার্মানি, ফ্রান্স, সুইজারল্যান্ড, ভারত, বেলজিয়াম, ডেনমার্ক মালায়েশিয়া, সুইডেন ও ইকুয়েডরের লেখক, কবি, উপন্যাসিকসহ বিশিষ্ট জনেরা অংশগ্রহন করবেন এই সম্মেলনে। এখানে কথাসহিত্য, কবিতা এবং নাটক নিয়ে অলোচনা করা হবে। বাংলাদেশের শতাধিক কবি সাহিত্যিকও এই সম্মেলনে অংশগ্রহণ করবে বলে জানালেন বাংলা একাডেমীর মহাপরিচালক ড. শামসুজ্জামান।
লেখক-পাঠকদের প্রত্যাশা পূরণে এবারও বাংলা একাডেমী প্রাঙ্গণসহ সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের এক অংশজুড়ে এ মেলার আয়োজন করছে বাঙলা একাডেমী। বিভিন্ন প্রকাশনী সংস্থার প্রায় পাঁচশতাধিক স্টল সাজানোর কাজ শেষ হয়েছে।

এদিকে মেলাকে ঘিরে আজ সকাল ১১টা থেকে নিরাপত্তা বলায় গড়ে তোলা হয়েছে বলে জানালেন বাংলা একাডেমির নিরাপত্তা কর্মকর্তা আইয়ুব মুহাম্মদ খান। তিনি বলেন, দেশে চলমান পরিস্থিতিতে বইমেলার পুরো এলাকা জুড়ে কড়া নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছে। এতে পুলিশ, র‌্যাব, গোয়েন্দা সংস্থা, ডিবি, এনএসআই, সিটিএসবিসহ সাদা পোশাকে ডিফেন্সের লোক নিরাপত্তার জন্য কাজ করবে। এবং পর্যাপ্ত সংখ্যক সিসি ক্যামেরা বসানো হয়েছে এই এলাকায়। সন্ধেহ হলেই আমরা তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা গ্রহণ করব।

বাংলা একাডেমির সদস্য সচিব ড. জালাল আহমেদ বলেন, এবারের মেলায় বাংলা একাডেমীর নিজস্ব প্রায় শতাধিক বই প্রকাশিত হবে। এবং মেলায় ছোট-বড় মিলিয়ে ৫ শতর অধিক স্টল থাকবে। প্যাভিলিয়ন থাকবে ১২টি। নতুন বইয়ের পাশাপাশি প্রতিদিন আলোচনা সভার আয়োজন করা হবে মেলা প্রাঙ্গণে স্থাপিত মঞ্চে।

বাংলাদেশর প্রাতিষ্ঠানিক ও সৃজনশীল প্রকাশনা সমিতির সভাপতি এবং আগামী প্রকাশনীর প্রকাশক ওসমান গণী বলেন, আগামী প্রকাশনী থেকে এবার প্রায় শতাধিক বই প্রকাশিত হবে। এরই মধ্যে অধিকাংশ বইয়ের কাজ সম্পূর্ণ শেষ হয়ে আমাদের হাতে চলে এসেছে। কিছু বই বাঁধাইয়ের কাজ চলছে। সেগুলোও মেলা শুরুর কয়েক দিনের মধ্যেই চলে আসবে। তিনি আরও বলেন, গতবারের চেয়ে এবার বেশকিছু বই প্রকাশিত হচ্ছে যা পাঠকদের আকৃষ্ট করবে। দেশের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার লেখা শেখ মুজিব আমার পিতা, কর্ণেল শওকত আলীর গণপরিষদ থেকে নবম জাতীয় সংসদ, আখতার হোসনের শিশু সাহিত্য, আহমদ শরীফের আহমদ শরীফ রচনাবলী, তসলিমা নাসরিনের আত্মজীবনী সমগ্র ১-২ এবং গদ্য পদ্যসহ অনেক লেখকের বই প্রকাশ করা হবে এবারের অমার একুশে গ্রন্থমেলায়।

অনন্য প্রকাশনার প্রকাশক জানায়, এবারের মেলায় এমদাদুল হক মিলনের থকছে সাড়ে তিন হাত ভূমি, সুরভি, সমগ্র কিশোর উপন্যাস, থ্রি নোভেলস। এছাড়া মুক্তিযুদ্ধের উপর তার লেখা সমগ্র কিছু নিয়ে প্রকাশিত হচ্ছে ১৯৭১। আনিসুল হকের লেখা যখন আমি মটকু ছিলাম, মুনতাসির মামুনের ইতিহাসের খেরোখাতা সমগ্র-১, মেজর জেনারেল (অব) সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিমের লড়াই চলছে লড়াই চলবে এবং গণমাধ্যমে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ এর ২১ ও ২২ তম খ-, ফকির আলমগীরের লেখা মুক্তিযুদ্ধে বিদেশী বন্ধুরা, নাছিম উদ্দিন মালিথার রবীন্দ্রলোকসহ অনেক লেখকের বই প্রকাশ করা হচ্ছে।

সময় প্রকাশনীর প্রকাশক ও সম্পাদক ফরিদ আহমেদ বলেন, জাফর ইকবালের বিজ্ঞান ভিত্তিক লেখা সেলিনা, সুমন্ত আসলাম এবং আমি আছি কাছাকাছি, অনিসুল হকের প্রিয় ৫০, অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিতের বসবাসের উপযুক্ত বংলাদেশ চাই ও বাংলাদেশের অভ্যুদয়, যেগাযোগমন্ত্রী ওবাইদুল কাদেরের গাংচিল, আহসান হাবিবের লেখা ফিরে যায়, আল মাহমুদের উপন্যাস সমগ্র-৪, অদ্বয় দত্তের লেখা অনুপ্রবেশ, রশিদ হায়দারের আত্ম কথন। সহ অনেক লেখকের বই প্রকাশীত হবে বলে জানান তিনি। এছাড়া মাওলা ব্রাদার্স ও অন্য প্রকাশনীর প্রকাশকরা জানান, তাদের প্রকাশনী থেকে প্রায় শতাধিক বই প্রকাশিত হচ্ছে।

#


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print