বৃহস্পতিবার , ১৯ জুলাই ২০১৮
মূলপাতা » প্রধান খবর » সামরিক কবরস্থানে দাফনের অনুমতি মেলেনি কোকো’র মরদেহ

সামরিক কবরস্থানে দাফনের অনুমতি মেলেনি কোকো’র মরদেহ

Grave-1422336569প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান ও বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকোর মরদেহ বনানীর সামরিক কবরস্থানে দাফন করা হচ্ছে না।

লাশ দাফনের জন্য যথাযথ প্রক্রিয়া অনুসরণ করে অনুতি চাওয়া হলেও এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে কোনো ধরনের ইতিবাচক কিছু জানা যায়নি।

কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম মঙ্গলবার দুপুর সোয়া ১২টার দিকে সাংবাদিকদের জানান, প্রাক্তন সেনাপ্রধান জিয়াউর রহমানের সন্তান হিসেবে কোকোর মরদেহ বনানীর সামরিক কবরস্থানে দাফনের অনুমতি চাওয়া হয়েছিল। তবে অজ্ঞাত কারণে তার অনুমতি মেলেনি। এখন তাকে সাধারণ কবরস্থানে দাফন করা হবে।

তবে ঠিক কোথায় কোকোকে দাফন করা হবে সে বিষয়ে পরে জানানো হবে বলে জানান তিনি।

বিএনপি সূত্রে জানা গেছে, শেষ পর্যন্ত সামরিক কবরস্থানে লাশ দাফনের অনুমতি না পাওয়া গেলে বগুড়ায় নিজের গ্রামের বাড়িয়ে কোকোর লাশ দাফন করা হ পারে।

এদিকে, গুলশান-বনানীর ১৯ নম্বর ওয়ার্ডের প্রাক্তন কমিশনার আবদুল আলীম নকি জানিয়েছেন, কোকোর লাশ বনানীর সামরিক কবরস্থানে দাফনের জন্য অনুমতি না মিললেও কবরস্থানের পূর্ব পাশে বেসামরিক জনগণের জন্য নির্ধারিত স্থানে দাফনের জন্য অনুমতি মিলেছে।

এর আগে সোমবার রাতে প্রাক্তন সেনাপ্রধান জিয়াউর রহমানের সন্তান হিসেবে বনানীর সামরিক কবরস্থানে আরাফাত রহমান কোকোর মরদেহ দাফনের অনুমতি পাওয়া যাবে বলে প্রত্যাশা ব্যক্ত করেছিল বিএনপি।

দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছিলেন, ‘প্রাক্তন একজন সেনাপ্রধানের সন্তান হিসেবে প্রচলিত নিয়মেই এটি তার (আরাফাত রহমান কোকো) প্রাপ্য। কিন্তু দেশের তো এখন সবকিছু ন্যায্যভাবে হচ্ছে না। তবুও প্রত্যাশা করি সেখানে লাশ দাফনের অনুমতি পাওয়া যাবে। অনুমতি না দিয়ে কেউ নষ্ট দৃষ্টান্ত স্থাপন করবে না।’ বনানী কবরস্থানের ব্যাপারে অনুমতি চাওয়া হয়েছে বলে জানান তিনি।

এদিকে প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান ও বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার ছোট ছেলে প্রয়াত আরাফাত রহমান কোকোর মরদেহ বিমানবন্দর থেকে সরাসরি গুলশান কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। ইতিমধ্যে কোকোর মরদেহ নিয়ে গুলশানের কার্যালয়ের উদ্দেশে রওনা দিয়েছে বিএনপির উচ্চপর্যায়ের একটি প্রতিনিধিদল।

মঙ্গলবার মালয়েশিয়ার স্থানীয় সময় সকাল ৯টা ৪০ মিনিটে মালয়েশিয়া এয়ারলাইনসের এমএইচ-১০২ বিমানে ঢাকার উদ্দেশে রওনা দেন কোকোর স্বজনরা। দুপুর ১১টা ৩৭ মিনিটে বিমানটি ঢাকায় অবতরণ করে।
#


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print