রবিবার , ২২ জুলাই ২০১৮
মূলপাতা » প্রধান খবর » নরসিংদীতে ডাকাত সন্দেহে গণপিটুনিতে নিহত ৭

নরসিংদীতে ডাকাত সন্দেহে গণপিটুনিতে নিহত ৭

গণপিটুনিতে নিহত ৭নরসিংদীতে স্থানীয়দের গণপিটুনিতে সাতজন নিহত হয়েছেন। পুলিশ ও স্থানীয়দের ভাষ্য অনুযায়ী নিহত সবাই ডাকাত দলের সদস্য ছিলেন। এ ঘটনায় আহত আরও এক জনকে উদ্ধার করেছে পুলিশ।

সদর উপজেলার পাঁচদোনা ও বাটপাড়া এলাকায় রবিবার রাতে এ ঘটনা ঘটে। তাৎক্ষণিক নিহতদের নাম-পরিচয় জানা যায়নি। তবে আহত রহিম মিয়ার (২৪) বাড়ি নারায়ণগঞ্জ জেলার আড়াইহাজার উপজেলায় বলে জানা গেছে।

স্থানীয় লোকজন সোমবার ভোরে মাঠে কাজ করতে গিয়ে জমিতে লাশ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশে খবর দেন। খবর পেয়ে সকাল সাড়ে ৭টার দিকে ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যান সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কে এম আবুল কাশেম, পাঁচদোনা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান। পরে ধীরে ধীরে ঘটনার আশপাশে এখন সহস্রাধিক উৎসুক জনতার সমাগম। তবে তাদের কেউ মুখ খুলতে নারাজ।

পাঁচদোনা ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য বাচ্চু মিয়া জানান, রবিবার গভীর রাতে পাঁচদোনা ইউনিয়নের বাটপাড়া এলাকার ট্রাকশাল গ্রামের এরশাদ মুন্সীর বাড়িতে ডাকাতরা হানা দেয়। এ সময় বাড়ির লোকজন ডাক-চিৎকার শুরু করলে আশপাশের মানুষ চারদিক থেকে বের হন।

ডাকাতরা অবস্থা বেগতিক দেখে পালানোর চেষ্টা করলে উত্তেজিত জনতার পিটুনিতে সাতজন নিহত হন।

তবে এতবড় একটি ঘটনা ঘটলেও রাতেই কেন পুলিশকে খবর দেওয়া হয়নি তার কোনো উত্তর পাওয়া যায়নি স্থানীয়দের কাছ থেকে।

ওসি কে এম আবুল কাশেম জানান, ওই এলাকার তিন কিলোমিটারের মধ্যে তাদের লাশ ছড়িয়ে ছিটিয়ে পড়ে আছে। আহতাবস্থায় রহিমকে উদ্ধার করা হয়েছে এবং চিকিৎসার জন্য তাকে নরসিংদী জেলা হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে।

ওসি জানান, প্রাথমিকভাবে তারা নিশ্চিত হয়েছেন নিহত ও আহতরা ডাকাত দলের সদস্য। ডাকাতিকালে গণপিটুনিতে তারা নিহত হয়েছেন।

ওসি আবুল কাশেম আরও জানান, লাশগুলো কাদামাটিতে পড়ে থাকায় এখনও উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। তবে অল্প সময়ের মধ্যেই উদ্ধারকাজ শুরু হবে।


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print