সোমবার , ২৩ জুলাই ২০১৮
মূলপাতা » জাতীয় » ঢাকায় নতুন মার্কিন রাষ্ট্রদূত

ঢাকায় নতুন মার্কিন রাষ্ট্রদূত

রাষ্ট্রদূত মার্শিয়া ব্লুম বার্নিকেটঢাকায় এসেছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত নতুন মার্কিন রাষ্ট্রদূত মার্শিয়া ব্লুম বার্নিকেট। রবিবার বিকেল ৪টার দিকে তিনি রাজধানীর বারিধারায় অবস্থিত যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসে পৌঁছেছেন। মার্কিন দূতাবাস সূত্রে এ তথ্য নিশ্চিত হওয়া গেছে।
বিদায়ী মার্কিন রাষ্ট্রদূত ড্যান ডব্লিউ মজীনার স্থলাভিষিক্ত হয়েছেন মার্সিয়া স্টিফেনস ব্লুম বার্নিকেট। তিনি হলেন বাংলাদেশে নিযুক্ত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পঞ্চদশ রাষ্ট্রদূত।
প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা বাংলাদেশে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত পদে গত ২২ মে বার্নিকেটকে মনোনীত করেন। এরপর বার্নিকেট মার্কিন সিনেটের পররাষ্ট্র বিষয়ক কমিটির শুনানিতে অংশ নেন। শুনানি শেষে বার্নিকেটের নিয়োগ চূড়ান্ত হয়। গত বছরের ১৮ নভেম্বর যুক্তরাষ্ট্রের স্থানীয় সময় রাত সাড়ে ৮টার দিকে কণ্ঠভোটে মার্কিন সিনেটে আরও চারজন রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে বার্নিকেটকে বাংলাদেশে নিয়োগের প্রস্তাবটিও চূড়ান্তভাবে অনুমোদিত হয়।
উল্লেখ্য, জর্জটাউন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর করেন মার্সিয়া। তিনি একজন পেশাদার মার্কিন কূটনীতিক। বাংলাদেশে রাষ্ট্রদূত হিসেবে মনোনয়নের আগ পর্যন্ত তিনি মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের উপ-সহকারী মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। এছাড়া ২০০৮ থেকে ২০১১ সাল পর্যন্ত সেনেগাল ও গিনি বিসাউতে মার্কিন রাষ্ট্রদূত ছিলেন।
এর আগে ২০০৬ সাল থেকে ২০০৮ সাল পর্যন্ত তিনি মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের দক্ষিণ এশিয়া বিষয়ক অধিদপ্তরে ভারত, নেপাল, শ্রীলঙ্কা, মালদ্বীপ এবং ভুটান বিষয়ক পরিচালক হিসেবে কাজ করেছেন। ২০০৪ থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত তিনি মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের মানবসম্পদ বিভাগে জ্যেষ্ঠ পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।
এর আগে ড্যান ডব্লিউ মজিনা প্রায় ৩ বছর সময় ধরে বাংলাদেশে রাষ্ট্রদূত হিসেবে দায়িত্ব পালন শেষে গত বছরের ডিসেম্বর মাসের শেষদিকে যুক্তরাষ্ট্রে ফিরে যান। গত ১৪ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় তাকে বিদায় সংবর্ধনা জানানো হয়।
২০১১ সালের ২৪ নভেম্বর মার্কিন রাষ্ট্রদূত হিসেবে ঢাকায় দায়িত্বে আসেন ড্যান ডব্লিউ মজিনা। এর আগেও ১৯৯৮ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত তিনি বাংলাদেশে মার্কিন দূতাবাসের রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক কনস্যুলার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।
বাংলাদেশ ছাড়াও মজিনা দক্ষিণ এশিয়ার ভারত, পাকিস্তান এবং আফ্রিকার দেশ জাম্বিয়াতে মার্কিন দূতাবাসের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print