রবিবার , ২২ জুলাই ২০১৮
মূলপাতা » প্রধান খবর » যাত্রাবাড়ীতে বাসে পেট্রলবোমায় দগ্ধ ২৯

যাত্রাবাড়ীতে বাসে পেট্রলবোমায় দগ্ধ ২৯

বাসে আগুনvরাজধানীর যাত্রাবাড়ী থানার কাঠের পুল এলাকায় গ্লোরি পরিবহনের একটি বাসে পেট্রলবোমা ও ককটেল হামলা করেছে দুষ্কৃতিকারীরা। পেট্রলবোমার আগুনে দগ্ধ হয়েছেন ২৯ যাত্রী। এদের মধ্যে ২৬ জন পুরুষ ও ৩ জন মহিলা। বেশ কয়েকজনের অবস্থান আংশকাজনক বলে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ণ ইউনিটের ডাক্তারা জানিয়েছেন।

ঘটনার পর রাত পৌনে ১২টার দিকে সংবাদ সম্মেলনে ঢামেকের বার্ণ ইউনিটের প্রফেসর সাজ্জাত খন্দকার জানিয়েছেন, যাত্রাবাড়ীর ঘটনায় এখন পর্যন্ত ২৬ জন অগ্নিদগ্ধ হয়ে ঢামেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন। এর মধ্যে ৯ জনের অবস্থা আংশাজনক। তাদের শ্বাসনালী দগ্ধ হয়েছে। এছাড়া বাকি ২০ জনের শরীরের ২০ থেকে ৬০ শতাংশ দগ্ধ হয়েছে। তাড়াহড়ো করে বাস থেকে বের হতে গিয়ে অনেকের হাত পা ভেঙ্গে গেছে। অনেকের চিকিৎসার জন্য দ্রুত রক্তের প্রয়োজন। অনেকের অবস্থা গুরুতর। তাদের নিবীড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) নিতে হবে।

দগ্ধরা হলেন, জয়নাল আবেদীন, ইসতিয়াক মো. বাবর, সালাউদ্দিন পলাশ, সালমান, নাজমুল হোসেন, মো. শরীফ. মো. রাশেদ, শাহিদা আক্তার, তার স্বামী ইয়াসির আরাফাত, সালাউদ্দিন, মোশারফ হোসেন, মো. হৃদয়, ওসমান গনি, মোহাম্মদ খোকন, মো. মোমেন, মো. হারিছ ও নূর আলম। তবে বাকিদের পরিচয় এখনো পাওয়া যায়নি। ককটেল বিস্ফোরণে আহতরা হলেন তাকবির ইসলাম, আফরোজা আক্তার।

যাত্রাবাড়ী থানার ডিউটি অফিসর মো. শাজাহান বলেন, গ্লোরী পরিবহনের গাড়ীটি গুলিস্তান থেকে নারায়নগঞ্জ যাতায়াত করে। শুক্রবার রাতে গাড়ীটি যাত্রাবাড়ী থানার কাঠের পুল এলাকায় পৌঁছালে দুর্বৃত্তরা পেট্রোবোমা ছুড়ে মারলে সঙ্গে সঙ্গে গাড়ীটিতে আগুন ধরে যায়। এতে দগ্ধ হন ২২ জন যাত্রী। এছাড়া আহত হয়েছেন দুজন। দগ্ধ ও আহতদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print