সোমবার , ২৩ জুলাই ২০১৮
মূলপাতা » জাতীয় » সুন্দরবনের ভেতর দিয়ে আবারও নৌযান চলাচলের অনুমতি

সুন্দরবনের ভেতর দিয়ে আবারও নৌযান চলাচলের অনুমতি

sondobanসুন্দরবনের শ্যালা নদী দিয়ে নিয়ন্ত্রিত উপায়ে দিনের বেলায় নৌযান চলাচলের অনুমতি দিয়েছে সরকার। তবে আপাতত কোন তেলবাহি ট্যাঙ্কার চলাচল করতে পারবেনা।
 
গত ৯ ডিসেম্বর শ্যালা নদীতে সাড়ে তিন লাখ লিটার তেলসহ একটি ট্যাঙ্কার ডুবির ঘটনায় এই নৌ পথটি বন্ধ করা হয়।
 
দুর্ঘটনায় সুন্দরবনের প্রায় ৪০ কিলোমিটার এলাকায় তেল ছড়িয়ে পড়েছে বলে জাতিসংঘের বিশেষজ্ঞ দলের প্রাথমিক প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে। জাতিসংঘের বিশেষজ্ঞ দল আগামী ১৫ জানুয়ারির মধ্যে তাদের চুড়ান্ত প্রতিবেদন এবং সুপারিশ দেওয়ার কথা রয়েছে।
 
মঙ্গলবার নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে এক আন্ত:মন্ত্রণালয় সভায় এই সিদ্ধান্ত হয়। নৌ-পরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন। নৌ মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানানো হয়।
 
বৈঠকে অন্যদের মধ্যে উপস্থি ছিলেন পরিবেশ ও বনমন্ত্রী আনোয়ার হোসেন মঞ্জু, নৌ-পরিবহন সচিব শফিক আলম মেহেদী, পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয় সচিব নজিবুর রহমান প্রমুখ।
 
আন্তঃমনালয়ের সভায় সিদ্ধান্ত হয়, মংলা-ঘষিয়াখালি চ্যানেলের খনন কাজ সম্পন্ন না হওয়া পর্যন্ত শ্যালা নদী দিয়ে  নিয়ন্ত্রিত উপায়ে সাময়িকভাবে নৌযান চলাচল করতে পারবে।
 
বৈঠকে সিদ্ধান্ত  হয় যে, মংলা-ঘষিয়াখালি চ্যানেলের খনন কাজ জুন মাসের মধ্যে সম্পন্ন করতে হবে। সুন্দরবন এলাকায় শ্যালা নদী  দিয়ে জাহাজ চলাচলের ক্ষেত্রে ট্রাফিক ব্যবস্থাপনার জন্য কোস্টগার্ড দায়িত্ব পালন করবে। কোস্টগার্ডকে সহায়তা করবে বিআইডব্লিউটিএ, বন বিভাগ, মংলা বন্দর কর্তৃপক্ষ ও সমুদ্র পরিবহন অধিদফতর।
 
এদিকে মঙ্গলবার সকালে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে এক সংবাদ সম্মেলনে ঘষিয়াখালী চ্যালেন দ্রুত খনন করে নৌ চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করার দাবি জানায় নৌযান শ্রমিক ফেডারেশন।
 
২৪ ঘন্টার মধ্যে দাবি না পূরণ হলে সারাদেশের পণ্যবাহী নৌযান শ্রমিকরা অবিরাম কর্মবিরতি পালনের আল্টিমেটাম দেয় নৌ পরিবহণ শ্রমিকরা।
 

আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print