শুক্রবার , ২৭ এপ্রিল ২০১৮
মূলপাতা » বেসরকারি » স্ত্রী নির্যাতনে বাংলাদেশ শীর্ষে: ইউনিসেফ

স্ত্রী নির্যাতনে বাংলাদেশ শীর্ষে: ইউনিসেফ

persecution‘হিডেন ইন পেইন সাইট’ (দৃষ্টির মধ্যেই সুপ্ত) শীর্ষক জাতিসংঘ শিশু তহবিল ইউনিসেফ-এর সর্বশেষ এক প্রতিবেদনে জানা গেছে, স্ত্রী নিপীড়নে দক্ষিণ এশিয়ায় বর্তমানে বাংলাদেশ শীর্ষ অবস্থানে রয়েছে। দেশে প্রতি ৫ জনের মধ্যে ১ জন বিবাহিত নারী স্বামীর হাতে যৌন নিপীড়নের শিকার হচ্ছেন। আর বিশ্বে প্রতি ১০ জনে একজন মেয়েকে ১৯ বছর বয়স পেরোনোর আগেই যৌন নির্যতনের শিকার হতে হয়।

১৯০টি দেশএর উপর পরিচালিত জরিপের মাধ্যমে এ প্রতিবেদনটি তৈরি করেছে ইউরিসেফ। প্রতিবেদনে বাংলাদেশের পরেই রয়েছে ভারত ও নেপাল।

এশিয়ার ৪২টি দেশের ওপর জরিপ চালিয়ে প্রতিবেদনটি প্রকাশ করা হয়েছে। প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়, দক্ষিণ এশিয়ায় প্রতি ১০ জনে ১ জন স্বামীর হাতে যৌন নিপীড়নের শিকার হন। আর বাংলাদেশে স্বামীর হাতে স্ত্রীর যৌন নির্যাতনকে একটি স্বাভাবিক ঘটনা হিসেবে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

সারা বিশ্বে ১৫ থেকে ১৯ বছর বয়সী নারীরা শারীরিক ও মানসিক ভাবে যৌন নির্যাতনের শিকার প্রতি ৩ জনে ১ জন। আর বাংলাদেশে শতকরা ৪৭ ভাগ এই বয়সী নারীরা এরকম নির্যতনের শিকার হচ্ছে প্রতিনিয়ত। এক্ষেত্রে, ১৯০টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান এ ক্ষেত্রে ৭ নম্বরে। এরপর ভারত, পাকিস্তান ও নেপালে এ হার যথাক্রমে ৩৪, ২৮ ও ২৩ ভাগ।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, কম বয়সে বিবাহিত মেয়েরা পরিবারের মধ্যে স্বামী বা পরিবারের অন্য সদস্যদের দ্বারা বেশি নির্যাতনের শিকার হন।

বাংলাদেশ হিউম্যান রাইটস ফাউন্ডেশনের প্রধান নির্বাহী নারী নেত্রী অ্যাডভোকেট এলিনা খান বলেন, এ কথা সত্য যে, নারীরা স্বামীর হাতে নিপীড়নের শিকার হচ্ছেন। তবে নারীরা নারীর হাতেও নিপীড়নের শিকার হন। যেমন শাশুড়ি ও ননদ। এজন্য নারী-পুরুষ সমানভাবে দায়ী।

 


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print