মঙ্গলবার , ২৪ এপ্রিল ২০১৮
মূলপাতা » বিনোদন » সালমান ভক্তদের ঐতিহাসিক রেকর্ড

সালমান ভক্তদের ঐতিহাসিক রেকর্ড

salman1বাংলাদেশের ইতিহাসে এমন ঘটনা এই প্রথম। বিশ্বেও এরকম ঘটনা দেখা যায়নি। আর সেই ইতিহাস সৃষ্টি করা ঘটনাটি ঘটালেন বাংলা চলচ্চিত্রের প্রয়াত অভিনেতা সালমান শাহের ভক্তরা। মৃত্যুর প্রায় ১৮ বছর পরেও যে সালমান শাহের জনপ্রিয়তা আকাশ ছোঁয়া পরিমান, তা  চোখে না দেখলে বিশ্বাসই করা যেত না।

কোন অভিনেতার অপমৃত্যুর এত দীর্ঘ বছর পর তার ভক্তরা তার হত্যার বিচারের দাবিতে যে আন্দোলন করতে পারে এর ধারণা ছিল না কারো। সে ঘটনা ঘটিয়ে ইতিহাস তৈরি করলেন সালমান ভক্তরা।

 

 

 

salman-2

১৭ ডিসেম্বর সিলেট শহরের ঐতিহাসিক রেজিস্টারি মাঠে সালমান শাহ ঐক্য জোটের কেন্দ্রীয় কমিটির আয়োজনে সালমান হত্যার বিচারের দাবিতে অনুষ্ঠিত হয় এক মহাসমাবেশ। লাখো ভক্তের পদাচারণায় মুখরিত হয়ে উঠেছিল এ সমাবেশ।

সমাবেশের প্রধান অতিথি সালমান শাহ্’র মা বেগম নিলা চৌধুরী কান্না জড়িত কণ্ঠে বলেন, ‘সিলেটবাসীসহ দেশবাসী সালমান শাহ হত্যার বিচার চায়। সালমান ভক্তরা দাবি তুলেছে ঢাকায় সালমান শাহ’র নামে রাস্তা করতে হবে, এফডিসির একটি ফ্লোরের নাম করতে হবে সালমান শাহর নামে, জাদুঘর তৈরি করতে হবে এবং সিলেট স্টেডিয়ামের নাম করণ ও সিলেটের একটি সড়কের নামও সালমানের নামে করতে হবে। এটা সালমান ভক্তদের ন্যায্য দাবি। অবিলম্বে সরকারের উচিৎ এ দাবি মেনে তা বাস্তবায়ন করা।’

প্রধান বক্তার বক্তব্যে অভিনেতা আহমেদ শরীফ বলেন, সালমান শাহ ছিল বাংলা ছবির আধুনিক নায়ক। সে চলচ্চিত্র শিল্পকে বিশ্বের দরবারে প্রসংশিত করেছিল। তার অকাল মৃত্যুতে আজ যে শুন্যতার সৃষ্টি হয়েছে তা পূরণ হওয়ার নয়। সকারের উচিত অবিলম্বে আজকের সমাবেশ থেকে যে দাবিগুলো উঠেছে তা মেনে নেওয়া।’

অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন সালমান শাহর বন্ধু সংগীত শিল্পী আগুন। তিনি সমাবেশে সালমান শাহর বিভিন্ন ছবির গান পরিবেশন করে সালমান ভক্তদের অনুপ্রেরণা দেন। তিনি তার বক্তব্যে বলেন, ‘সালমান শাহ আমাদের মাঝে নেই দেড় যুগ ধরে। কিন্তু দেশে কোটি মানুষের প্রাণে এখনো সালমান বেঁচে আছে। সালমান ভক্তরা আজ যে দাবি করেছে তা সালমানের প্রাপ্য থেকেও কম।’

সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন- অভিনেতা আলগীর কুমকুম। সমাবেশ পরিচালনা করেন সালমান শাহ ঐক্য জোট কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক সজীব উদ্দিন।

 


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print