শুক্রবার , ২০ জুলাই ২০১৮
মূলপাতা » প্রধান খবর » স্মৃতিসৌধে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

স্মৃতিসৌধে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

download (3)১৯৭১ সালের আজকের এই দিনে বিশ্বের বুকে নতুন এক স্বাধীন রাষ্ট্রের মানচিত্র সৃষ্টি হয়েছিল। তাই ১৬ ডিসেম্বর বাঙালি জাতির গৌরবের দিন, বিজয়ের দিন। যাকে আমরা বলে থাকি বিজয় দিবস।

৩০ লাখ শহীদের রক্তে ও দুই লাখ মা-বোনের সম্ভ্রমের বিনিময়ে এই দিনে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর কবল থেকে দেশকে মুক্ত করেছিল বাংলার দামাল ছেলেরা। অভ্যুদয় হয়েছিল এক স্বাধীন সার্বভৌম রাষ্ট্রের।

আজ মঙ্গলবার প্রত্যুষে ৩১ বার তোপধ্বনির মাধ্যমে মহান বিজয় দিবসের সূচনা হয়। রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ৬টা ৩৪ মিনিটে সাভার জাতীয় স্মৃতিসৌধে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে মহান বিজয় দিবসের সূচনা করেন।

এর আগে প্রধানমন্ত্রী সকাল ৬টা ২২ মিনিটে ও রাষ্ট্রপতি ৬টা ৩০ মিনিটে স্মৃতিসৌধে পৌঁছান।    এরপর ক্রমান্বয়ে জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ, দলটির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ, মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু, প্রাক্তন মহাসচিব রুহুল আমিন হাওলাদার দলবদ্ধভাবে স্মৃতিসৌধে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন।

এরপর স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী, মন্ত্রিপরিষদের সদস্য, সংসদ সদস্য এবং বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতারা শহীদদের প্রতি সম্মান জানানো শুরু করেন।   শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ দূত হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেন, ‘তিনি ও তার দল যুদ্ধাপরাধের বিচারের পক্ষে। এ দেশের মাটিতে যুদ্ধাপরাধের বিচার তারা চান। জামায়াতে ইসলামীকে রাজনৈতিক দল হিসেবে নিষিদ্ধ করার দায়িত্ব সরকার ও নির্বাচন কমিশনের। দেশের জনগণ যদি জামায়াতকে নিষিদ্ধ চায়, আমরাও সেটাটে সমর্থন দেব।’

#


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print