বৃহস্পতিবার , ২৬ এপ্রিল ২০১৮
মূলপাতা » টেনিস » গ্যাস-বিদ্যুতের দাম বাড়লেই আন্দোলন: খালেদা

গ্যাস-বিদ্যুতের দাম বাড়লেই আন্দোলন: খালেদা

গ্যাস-বিদ্যুতের দাম বাড়লেই আন্দোলনবিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া বলেছেন, গ্যাস, বিদ্যুৎ  ও জ্বালানি তেলের দাম বাড়ালে কঠোর কর্মসূচি দেয়া হবে। তিনি বলেন, দেশের মানুষ ভালো নেই, শান্তিতে নেই। সর্বত্র অন্যায়, অনাচার ছড়িয়ে পড়েছে। এ সরকার নির্যাতনের মাধ্যমে ক্ষমতা টিকিয়ে রাখতে চায়। আওয়ামী লীগ এখন জনগণের জন্য বোঝা হয়ে দাঁড়িয়েছে। এই বোঝাকে সরাতে হবে। এর জন্য সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।

শনিবার নারায়ণগঞ্জের কাচপুরে ২০ দলীয় জোটের জনসভায় এই ঘোষণা দেন তিনি।

ঢাকা থেকে রওনা হয়ে বেলা সাড়ে ৩টার দিকে বালুর মাঠে পৌঁছান তিনি। খালেদা পৌঁছলে নেতা-কর্মীরা স্লোগানে স্লোগানে তাকে স্বাগত জানান। তিনিও হাত উঁচিয়ে নেতা-কর্মীদের শুভেচ্ছা জানান।

নির্দলীয় সরকারের অধীনে আগাম নির্বাচনের দাবিতে কর্মসূচি ঘোষণার আগে বিভিন্ন জেলায় জনসভা করছেন খালেদা জিয়া। ৫ জানুয়ারির সংসদ নির্বাচন বর্জনের পর ঢাকার বাইরে এটি তার দশম জনসভা।

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কাছে বালুর মাঠে জনসভায় সকাল থেকে বিভিন্ন উপজেলা ও ওয়ার্ড থেকে মিছিল আসতে শুরু করে। এতে মহাসড়কে যানজটের সৃষ্টি হয়।

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক ও আশপাশের এলাকায় ব্যানার ও ফেস্টুনে ছেয়ে গেছে। খালেদাকে শুভেচ্ছা জানিয়ে তোরণও বসানো হয় বিভিন্ন স্থানে।

জিয়াউর রহমান, খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের ছবি খচিত কয়েকটি বেলুনও ওড়ানো হয় জনসভাস্থলে। ২০ দলের শরিক জামায়াতে ইসলামী যুদ্ধাপরাধে দণ্ডিত তাদের নেতা মতিউর রহমান নিজামী, দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদী, আলী আহসান মো. মুজাহিদ, এম কামারুজ্জামান, মীর কাসেম আলীর ছবি সম্বলিত বেলুনও ওড়ায়।

জনসভার পূর্ব পাশে মঞ্চের পাশেই টানানো হয় বিশাল ব্যানার, যাতে নারায়ণগঞ্জের আলোচিত খুনের ঘটনায় নিহত সাতজনের ছবির ওপর বড় অক্ষরে লেখা- ‘এই জুলুমের দৃশ্য দেখার জন্য কি আমরা দেশ স্বাধীন করেছি। মানবতার কি নিষ্ঠুর আঘাত হায়েনারদের’।

ওই ব্যানারে এক পাশে পুরান ঢাকায় ছাত্রলীগের হামলায় নিহত বিশ্বজিত দাস এবং সীমান্তে বিএসএফের গুলিতে নিহত কিশোরী ফেলানীর কাঁটাতারে ঝুলে থাকা লাশের ছবিও ছিল।

বালুর মাঠটি আকারে ছোট হওয়ায় কাঁচপুর ব্রিজ থেকে ঢাকা চট্টগ্রাম মহাসড়কের ওপর ছড়িয়ে পড়ে জনসমাগম। মহিলা দলের নেতা-কর্মীরা ধানের শীষ খচিত লাল রঙের শাড়ি এবং যুব-ছাত্রদলের নেতা-কর্মীরা হলুদ টুপি পড়ে সমাবেশে অংশ নেন।

অনেক মিছিলের নেতা-কর্মীরা বিএনপির নির্বাচনী প্রতীক ধানের শীষ হাতে বাদক দলকে নিয়ে জনসভায় আসে।

জেলা বিএনপির সভাপতি তৈমুর আলম খন্দকারের সভাপতিত্বে এই জনসভার মঞ্চে কেন্দ্রীয় ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, জনসভা প্রস্তুতি কমিটির সমন্বয়কারী ও দলের যুগ্ম মহাসচিব আমান উল্লাহ আমানসহ কেন্দ্রীয় নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে ২০১৩ সালের ১ মে কাঁচপুরের বালুর মাঠে শ্রমিক সমাবেশে বক্তব্য রেখেছিলেন খালেদা জিয়া।


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print