সোমবার , ১৬ জুলাই ২০১৮
মূলপাতা » প্রধান খবর » শীতের প্রকোপ আরও বাড়বে

শীতের প্রকোপ আরও বাড়বে

শীত আরও বাড়বেশীতের প্রকোপ আরও বাড়বে। চলতি মাসের শেষের দিকে একটি মৃদু শৈত্য প্রবাহও জেকে বসতে পারে। তবে কুয়াশার তীব্রতা দু’তিন দিনের মধ্যে কমে যাবে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর।

আবহাওয়াবিদ আবুল কালাম মল্লিক শুক্রবার দ্য রিপোর্টকে বলেন, কুয়াশার কারণে এখন উত্তরাঞ্চলসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে শীত একটু বেশি অনুভূত হচ্ছে। তবে শীতের মৌসুম চলে আসায় পর্যায়ক্রমে শীত আরও বাড়বে। চলতি মাসের শেষার্ধে উত্তর, উত্তর-পূর্বাঞ্চল, পশ্চিম ও মধ্যাঞ্চলে এক থেকে দুটি মৃদু শৈত্য প্রবাহ বয়ে যেতে পারে।

তিনি আরও বলেন, কুয়াশার তীব্রতা দু’তিন দিনের মধ্যে হয়তো কমে যাবে। তবে আগামী কয়েকদিন দিনের তুলনায় রাতের তাপমাত্রা খুব একটা কমবে না।

আবহাওয়া বিজ্ঞান অনুযায়ী, বাতাসের তাপমাত্রা ৬ থেকে ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে হলে মাঝারি ও তাপমাত্রা ৮ থেকে ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে হলে তাকে মৃদু শৈত্য প্রবাহ বলে। তাপমাত্রা ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে হলে তাকে বলে তীব্র শৈত্য প্রবাহ।

আবহাওয়া অধিদফতরের শুক্রবার সকাল ৬টা পর্যন্ত হিসেব অনুযায়ী সারাদেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ঈশ্বরদীতে ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াস। ঢাকায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৩ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

শুক্রবার সকাল ৬টা থেকে আগামী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, আকাশ আংশিক মেঘলাসহ সারাদেশের আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে।

আবহাওয়া অধিদফতরের শুক্রবার সকাল ৬টা পর্যন্ত হিসেব অনুযায়ী সারাদেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ঈশ্বরদীতে ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াস। ঢাকায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৩ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

শুক্রবার সকাল ৬টা থেকে আগামী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, আকাশ আংশিক মেঘলাসহ সারাদেশের আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে।

শীতের কারণে দুর্ভোগে পড়েছে অসহায় মানুষ। বেশি বিপাকে পড়েছে ফুটপাত ও খোলা আকাশের নিচে বাসবাস করা ছিন্নমূল মানুষগুলো।

শীত বস্ত্র বিতরণের বিষয়ে জানতে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ে যোগাযোগ করা হলে মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. ওমর ফারুক দেওয়ান বলেন, জেলা পর্যায়ে এ বিষয়ে বরাদ্দ দেওয়া আছে। জনপ্রতিনিধিসহ স্থানীয় প্রশাসন চাইলে এ বরাদ্দ থেকে শীত বস্ত্র বিতরণ করতে পারেন।


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print