মঙ্গলবার , ১৭ জুলাই ২০১৮
মূলপাতা » ক্রিকেট » বোলিংয়ে নিষিদ্ধ হাফিজ

বোলিংয়ে নিষিদ্ধ হাফিজ

পাকিস্তানি ক্রিকেটার হাফিজঅবৈধ বোলিং অ্যাকশনের কারণে পাকিস্তানি ক্রিকেটার মোহাম্মদ হাফিজকে বোলিংয়ে নিষিদ্ধ করেছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)।

রোববার বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি এক ঘোষণায় একথা জানিয়েছে। খবর- দ্য ডন অনলাইন
অবৈধ বোলিং অ্যাকশনের দায়ে নিষিদ্ধ হওয়া দ্বিতীয় পাকিস্তানি ক্রিকেটার হাফিজ। এর আগে গত জুনে অফ স্পিনার সাঈদ আজমলকে নিষিদ্ধ করে আইসিসি। আজমল নিষিদ্ধ হওয়ার পর আগামী বিশ্বকাপে পাকিস্তানের অন্যতম বোলিং ভরসা ছিলেন হাফিজ।
তবে ক্রিকেটীয় ‘পাণ্ডিত্বের’ কারণে সতীর্থদের কাছে ‘প্রফেসর’ খেতাব পাওয়া হাফিজ ও আজমল দু’জনকেই বিশ্বকাপের প্রাথমিক দলে রেখেছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)।
নভেম্বরের প্রথমদিকে দুবাইয়ে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম টেস্টে তার বিরুদ্ধে সন্দেহজনক বোলিং অ্যাকশনের অভিযোগ ওঠে।
এর পর  ২৪ নভেম্বর ইংল্যান্ডের লোব্রোতে বোলিং অ্যাকশনের পরীক্ষা দেন এই অলরাউন্ডার। বায়ো-মেক্যানিক পরীক্ষায় অ্যাকশনে ত্রুটি ধরা পড়ে হাফিজের। আইসিসি বলছে বোলিংয়ের সময় হাফিজের হাত ১৫ ডিগ্রির বেশি বাঁকা হয় যা অনুমোদিত নয়।
ফলে বোলিংয়ে নিষিদ্ধ হন এ ক্রিকেটার। তবে বোলিং বাদ দিয়ে শুধু ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলতে পারবেন তিনি।
আর অ্যাকশন শুধরানোর পর আইসিসির কাছে আবারো বোলিং অ্যাকশন পরীক্ষার আবেদন করতে পারবেন হাফিজ। তখন সমস্যা ধরা না পড়লে আবার বোলিংও করতে পারবেন আগের মতোই।
১৪৯ ওয়ানডেতে ৩০ দশমিক ৯৮ গড়ে ৪ হাজার ৩৩৮ রানের পাশাপাশি ১২২টি উইকেটও রয়েছে এই অলরাউন্ডারের ঝুলিতে। আজমলের পর হাফিজের বোলিং অস্ত্র হারানো তাই ফেব্রুয়ারিতে শুরু হওয়া বিশ্বকাপে স্পিন আক্রমণ নিয়ে ভাবাবে পাকিস্তানকে।

আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print