সোমবার , ২৩ এপ্রিল ২০১৮
মূলপাতা » টেনিস » ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনতে ছাত্রলীগকে ময়লা মুক্ত হতে হবে- খাদ্যমন্ত্রী

ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনতে ছাত্রলীগকে ময়লা মুক্ত হতে হবে- খাদ্যমন্ত্রী

foodএক সময়ের ঐতিহ্যবাহী সংগঠন ছাত্রলীগকে ময়লা মুক্ত হতে হবে। তবেই ছাত্রলীগ আবার ফিরে পাবে তাঁর হারানো ঐতিহ্য। আজ মঙ্গলবার জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের উদ্যোগে সপ্তাহব্যাপী (১-৭ ডিসেম্বর) ‘ক্লিন ক্যাম্পাস এন্ড সেফ ক্যাম্পাস কর্মসূচী গ্রহণ’ উদ্ভোধন কালে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের খাদ্যমন্ত্রী এডভোকেট মোঃ কামরুল ইসলাম এম.পি. প্রধান অতিথির বক্তব্যে এই মন্তব্য করেন।

তিনি আরও  বলেন, “এটি একটি ব্যতিক্রধর্মী কর্মসূচী।  ক্যাম্পাস ক্লিনিং-এর সাথে সাথে সংগঠনটিরও অতি যতনে সংস্কার করতে হবে। সন্ত্রাস মুক্ত ক্যাম্পাস এবং মুক্তিযুদ্ধের বিরুদ্ধবাদীদের থেকে ক্যাম্পাসকে মুক্ত করতে হবে। এসকল অপশক্তির হাত থেকে ক্যাম্পাসসমূহ মুক্ত রাখার দায়িত্ব পালন করতে হবে ছাত্রলীগকে।”

তিনি আরো বলেন, “বর্তমান সরকার দেশকে এগিয়ে নিতে চায়। বর্তমান সরকার শুধু দেশের উন্নয়ন ধারা অব্যাহত রাখেনি পদ্মা সেতুর তৈরীর কার্যক্রম, সমুদ্রের তলদেশ থেকে সম্পদ আহরণসহ নানা ধরনের কার্যক্রম হাতে নিয়েছে।

উপাচার্য অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমান বলেন, “ক্যাম্পাস পরিস্কার শুধু একদিনের জন্য নয়। সুস্থ থাকার জন্য যেমন নিজেদের পরিস্কার পরিচ্ছন্ন রাখতে হয়, তেমনি ক্যাম্পাসের পরিবেশ সুস্থ রাখার জন্য নিয়মিত পরিস্কার পরিচ্ছন্ন করতে হবে। শিক্ষক, ছাত্র-ছাত্রী, কর্মকর্তা ও কর্মচারী সকলের ক্যাম্পাস পরিস্কার থাকে সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে। এটি অবশ্য প্রতীকী হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে।

ট্রেজারার অধ্যাপক মোঃ সেলিম ভূঁইয়া বলেন “এধরণের ক্যাম্পাস ক্লিনিং কার্যক্রম শুধু ক্যাম্পাসকে পরিচ্ছন্ন রাখে না ছাত্র-ছাত্রীদের লেখাপড়ার পরিবেশ সুন্দর করে গড়ে তুলতে সহায়তা করে। পরিস্কার কার্যক্রম শুধু বাহ্যিক হলে চলবে না উন্নত শিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে মন পরিচ্ছন্ন রাখতে হবে।

এছাড়াও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. পরিমল বালা এবং নীল দলের সভাপতি অধ্যাপক মোঃ আশরাফ-উল-আলম বক্তব্য রাখেন। এসময় ইংরেজি বিভাগের চেয়ারম্যান ও ছাত্র-কল্যাণ পরিচালক নাসির উদ্দিন আহমদ, বাংলা বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. হোসনে আরা বেগম, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের সহ-সভাপতি জয় দেব নন্দী, সহ-সম্পাদক পি. এম. আনোয়ার হোসেন, অন্যান্য ছাত্র-নেতৃবৃন্দ, কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। সভাপতিত্ব  করেন ছাত্রলীগ, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি এফ. এম. শরিফুল ইসলাম এবং সঞ্চালনা করেন সাধারণ সম্পাদক এস. এম. সিরাজুল ইসলাম। কর্মসূচীতে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, ছাত্রনেতৃবৃন্দ, ছাত্র-ছাত্রী, কর্মকর্তা, কর্মচারীবৃন্দ অংশগ্রহণ করেন।


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print