শুক্রবার , ২৭ এপ্রিল ২০১৮
মূলপাতা » কলেজ » শিক্ষা ব্যবস্থা বাঁচাতে জামায়াতের আন্দোলনের ডাক!

শিক্ষা ব্যবস্থা বাঁচাতে জামায়াতের আন্দোলনের ডাক!

jamat

সরকার পরিকল্পিতভাবে বাংলাদেশের শিক্ষা ব্যবস্থাকে ধ্বংস করার গভীর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত বলে মন্তব্য করেছেন জামায়াতে ইসলামীর ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারি জেনারেল ডা. শফিকুর রহমান। শিক্ষা ব্যবস্থাকে বাঁচতে গণআন্দোলনের ডাকও দিয়েছেন তিনি।

রোববার এক বিবৃতিতে শফিকুর বলেন, ‘সরকারি পৃষ্ঠপোষকতায় প্রাইমারি স্কুলের পরীক্ষা থেকে শুরু করে সব পর্যায়ের পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র ফাঁস করে দিয়ে সরকার দেশের শিক্ষাব্যবস্থা ধ্বংস করে দিচ্ছে। এমনকি পাবলিক সার্ভিস কমিশনের পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস হচ্ছে। ভাইভা পরীক্ষা ছাড়াই ছাত্রলীগের ক্যাডারদের প্রশাসনে নিয়োগ দেয়ার ব্যাপারটি অতিসম্প্রতি প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা এইচটি ইমাম জাতির সামনে ফাঁস করে দিয়েছেন। মেডিকেল কলেজে ভর্তির ক্ষেত্রেও চলছে ব্যাপক অনিয়ম, দুর্নীতি ও বিশৃঙ্খলা। শুধু তাই নয়, ভিন্ন দেশ থেকে পাঠ্যপুস্তক ছাপিয়ে আনার ক্ষেত্রেও চলছে ব্যাপক ঘুষ ও দুর্নীতি।’

শফিকুর বলেন, ‘তাছাড়া উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে ছাত্রলীগের ভর্তি বাণিজ্য, পাস করিয়ে দেয়ার বাণিজ্য, হল এবং হোস্টেলে সিট দখল ও সিটের পজিসন বিক্রি এবং টেন্ডারবাজী ও চাঁদাবাজী চলছে ব্যাপকভাবে। আওয়ামীপন্থি দুর্নীতিবাজ শিক্ষক ও ছাত্রলীগের সন্ত্রাসী ক্যাডার বাহিনীর কাছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এবং সাধারণ ছাত্র, ছাত্রী ও শিক্ষক এবং শিক্ষাঙ্গন জিম্মি হয়ে পড়েছে। শিক্ষাব্যবস্থার প্রতি স্তরে স্তরে চলছে ব্যাপক দুর্নীতি। আর শিক্ষামন্ত্রী সব অভিযোগ অস্বীকার করে কার্যত দুর্নীতিকেই প্রশ্রয় দিয়ে চলেছেন। শিক্ষামন্ত্রীর দুর্নীতি, ব্যর্থতা ও অযোগ্যতার কারণেই আজ দেশের শিক্ষাব্যবস্থায় শৃঙ্খল ভেঙে পড়েছে।’

গণআন্দোলন গড়ে তোলার আহ্বান জানিয়ে শফিকুর বলেন, ‘দেশের উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে শিক্ষার কোনো সুষ্ঠু পরিবেশ নেই। ছাত্রলীগের হত্যা, সন্ত্রাস, দখলদারীর কারণে শিক্ষাঙ্গনে শিক্ষার কোনো সুষ্ঠু পরিবেশ নেই। কিন্তু সেদিকে সরকারের ভ্রুক্ষেপ নেই। সরকার তার গদি রক্ষায়ই ব্যস্ত রয়েছে। সরকারি দলের নেতা, মন্ত্রী ও উচ্চপদস্থ আমলাদের সন্তানরা দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পড়াশুনা করে না। তারা বিদেশে পড়াশুনা করে বলেই দেশের শিক্ষাব্যবস্থার উন্নয়নের দিকে সরকারের কোনো নজর নেই। এতে দেশের কৃষক, শ্রমিক ও সাধারণ মানুষের সন্তানরা সুশিক্ষা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। জাতিকে পরিকল্পিতভাবে মেধাশূন্য করা হচ্ছে। ফলে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে দেশের ১৬ কোটি মানুষ। দেশের মানুষের প্রশ্ন সরকার কার স্বার্থে দেশের শিক্ষাব্যবস্থাকে ধ্বংস করছে? বর্তমান সরকার জাতিকে মূর্খ বানিয়ে ক্ষমতা কুক্ষিগত করার উদ্দেশ্যেই দেশের শিক্ষাব্যবস্থাকে ধ্বংস করার ষড়যন্ত্র করছে। জাতিকে সর্বগ্রাসী ধ্বংসের হাত থেকে রক্ষা করার জন্য আন্দোলনের কোনো বিকল্প নেই।’

#


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print