সোমবার , ১১ ডিসেম্বর ২০১৭
মূলপাতা » আন্তর্জাতিক » এখন থেকে পশ্চিমবঙ্গের নাম ‘বাংলা’

এখন থেকে পশ্চিমবঙ্গের নাম ‘বাংলা’

west-bangaপশ্চিমবঙ্গের নাম পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত রাজ্যে বিধানসভায় পাস হয়েছে। রাজ্যের নাম আর পশ্চিমবঙ্গ থাকছে না। নতুন নাম হচ্ছে বাংলা। ইংরেজিতে বেঙ্গল আর হিন্দিতে বাঙাল। আজ সোমবার রাজ্য বিধানসভায় নাম পরিবর্তনের এই প্রস্তাব বিপুল ভোটের ব্যবধানে পাস হয়েছে। প্রস্তাবের পক্ষে ১৮৯ ভোট পড়ে আর বিপক্ষে পড়ে ৩১ ভোট।

বিধানসভার বিশেষ অধিবেশনে নাম পরিবর্তনের প্রস্তাব পেশ করেন সংসদবিষয়ক ও শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। প্রস্তাব নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আলোচনা শুরু করলে হট্টগোল শুরু হয়। মমতা বাম-কংগ্রেস জোটকে নিয়ে কটাক্ষ করলে কংগ্রেস বিধায়কেরা এ নিয়ে আপত্তি তুলে অধিবেশন বর্জন করেন। কিন্তু উপস্থিত থাকেন বাম বিধায়কেরা। তাঁরা এই প্রস্তাবের সংশোধনী আনলে স্পিকার তা খারিজ করে দেন। এরপরে ভোটাভুটিতে প্রস্তাব পাস হয়।

প্রস্তাব পাসের পর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এক সাংবাদিক সম্মেলনে বলেন, ‘আজকের দিনটি আমাদের কাছে এক ঐতিহাসিক দিন। বাংলা নামের প্রতি আমাদের আবেগ জড়িত। তাই এই রাজ্যের নাম বাংলা হওয়ায় আমরা গর্বিত। আশা করি, রাজ্যবাসীও খুশি। তাই রাজ্যবাসীকে জানাই অভিনন্দন। বাংলা নামে আমরা আজও স্বচ্ছন্দ বোধ করি। তাই আজ এই রাজ্যবাসীর জন্য এক নতুন ইতিহাস সৃষ্টি হলো।’
মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘যুগের প্রয়োজনে কখনো সিদ্ধান্ত বদল করতে হয়। আমরা সেই পথে এগিয়ে আমাদের রাজ্যের নাম বাংলা করেছি। কবিগুরুর নানা লেখায় ফুটে উঠেছে এই বাংলা নামের কথা।’ তিনি আরও বলেন, ‘আজ যাঁরা এই নামের বিরোধিতা করেছে, তারা ফের আরও একটি ঐতিহাসিক ভুল করল। ইতিহাস তাদের ক্ষমা করবে না। নাম বদলের বিরোধিতা সত্যিই দুঃখজনক। এখন আমাদের এই নাম পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত পাঠানো হবে দিল্লিতে অনুমোদনের জন্য। আমরা চেষ্টা করব দ্রুত নাম পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত কেন্দ্রীয় সরকার কর্তৃক অনুমোদনের জন্য।’
মমতা আরও বলেন, ‘এখন থেকেই আমরা এই রাজ্যের নাম বাংলা লিখব।’

পশ্চিমবঙ্গের নাম পরিবর্তন নিয়ে রাজ্য মন্ত্রিসভায় এ মাসের ২ তারিখে দুটি প্রস্তাব গৃহীত হয়। বাংলা অথবা বঙ্গ। তবে অধিকাংশের মত ছিল ‘বাংলা’ নামের পক্ষে। সেই নামকেই অনুমোদন করেন মমতা। এরপরে আজ তা পেশ করা হয় বিধানসভা অধিবেশনে।

যদিও ইতিমধ্যে ‘বাংলা’ নাম নিয়ে রাজনৈতিক মহলে প্রশ্ন উঠেছিল। কেউ কেউ বলেছেন, আমাদের প্রতিবেশী রাষ্ট্রের নাম বাংলাদেশ। রাজ্যের নাম বাংলা হলে সমস্যা হতে পারে। তাই এই প্রসঙ্গে মমতা আগেই জানিয়ে দেন, ‘বাংলার মাটি, বাংলার জল ঠিকই আছে। পাশে বাংলাদেশ তো একটা দেশ। আর রাজ্যের নাম বাংলা হলে অসুবিধা কোথায়? পাকিস্তানেও পাঞ্জাব আছে, আমাদের দেশেও পাঞ্জাব আছে।’

প্রসঙ্গত, এর আগেও ভারতের বিভিন্ন রাজ্যের নাম পরিবর্তন করা হয়েছে। সংযুক্ত প্রদেশের নাম পরিবর্তন হয়ে হয়েছে উত্তর প্রদেশ, হায়দরাবাদের পরিবর্তে হয়েছে অন্ধ্র প্রদেশ, মধ্য ভারতের নাম হয়েছে মধ্যপ্রদেশ, উত্তরাঞ্চলের পরিবর্তে হয়েছে উত্তরাখন্ড, উড়িষ্যার পরিবর্তে হয়েছে ওডিশা, ত্রিবাঙ্কুর-কোচিনের পরিবর্তে কেরালা, মাদ্রাজের পরিবর্তে তামিলনাড়ু এবং মহীশুরের পরিবর্তে রাজ্যের নাম হয়েছে কর্ণাটক।

সূত্র: প্রথম আলো অনলাইন


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print