সোমবার , ১৬ জুলাই ২০১৮
মূলপাতা » সাম্প্রতিক খবর » বিদেশি প্যাভেলিয়নের অপেক্ষায় বাণিজ্য মেলা

বিদেশি প্যাভেলিয়নের অপেক্ষায় বাণিজ্য মেলা

Mela

মাসব্যাপী ২১তম ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলার দ্বিতীয় দিনে ক্রেতার চে‌য়ে দর্শনার্থী বেশি।  মেলা ঘুরে বি‌ভি‌ন্ন স্টলের কর্মী‌দের সাথে কথা বলে তাই জানা গেছে।  ত‌ারা বল‌ছে আর কিছুদিন পার হ‌লেই মেলা জমবে।

এ ধরনের মেলায় সাধাণত বিত্তশালীরাই কেনা-কেটা ক‌রে।  তাদের বেশিরভাগ নজর থাকে বিদেশি প্যাভে‌লিয়ান  ও  স্টলের  দিকে।  কিন্তু এখনও চালু হয়নি বেশির ভাগ বিদেশি প্যাভেলিয়ন ও স্টল।  এর মধ্যে কসমেটিকস, ব্যাগ, জুতা, জুয়েলারি, কাপড় ও ইলেট্রনিক্স পণ্যের প্যাভেলিয়ন ও স্টলই বেশি।
মেলা সূ‌ত্রে জানা যায়, এবারের মেলায় নতুন সাতটিসহ ২১টি দেশ অংশ নিয়েছে।  এর মধ্যে রয়েছে, মরিশাস, ঘানা, নেপাল, ভারত, পাকিস্তান, চীন, মালয়েশিয়া, ইরান, থাইল্যান্ড, যুক্তরাষ্ট্র, তুরস্ক, সিঙ্গাপুর, অস্ট্রেলিয়া, ব্রিটেন, দক্ষিণ কোরিয়া, জার্মানি, নেপাল, হংকং, জাপান ও আরব আমিরাত।
এসব দেশকে ৩৮টি প্যাভেলিয়ন বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।  এগুলোর বেশিরভাগ কাজ শেষ করতে না পারায় এখনো চালু করা  সম্ভব  হয়নি।   করতে পারেনি।  দেশি বেশ কিছু প্যাভেলিয়ন ও স্টলেরও একই অবস্থা।
শনিবার দ্বিতীয় দিনে বাণিজ্য মেলা ঘুরে ও মেলা সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।
প্যাভেলিয়ন ও ডিআইটিএফ কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, বিদেশি প্রতিষ্ঠানের পণ্য আসতে কিছুটা সময় লাগছে।  কাজও কিছুটা বাকি।  ২ থেকে ৩ দিনের মধ্যে চালু হয়ে যাবে।
ইরানি থাই ইম্পেরিয়াম (প্যাভেলিয়ন-৯) দেখাশোনা করছেন সোলাইমান নামে একজন বিক্রয়কর্মী।  ভেতরের কাজ শনিবারের মধ্যে শেষ হয়ে যাবে বলে জানান তিনি।
মালেয়শিয়ার (প্রিমিয়ার প্যাভেলিয়ন-২৫) একটি প্যাভেলিয়নের কাজ শেষ হয়নি এখনো।  বিক্রির পণ্য আসতে দেরি হচ্ছে ও কাজ শেষ হতে সময় লাগছে।
দেখাশোনার দায়িত্বে থাকা একজন বির্বাতাকে জানান, কাজ শেষ হতে সময় লাগবে।  তবে পণ্য এলে বিক্রি শুরু হবে।
কাজ চলছে পাকিস্তানের বেশিরভাগ প্যাভেলিয়নেরও।  কয়েকটি বন্ধও পাওয়া গেছে।  পাকিস্তানের প্যাভেলিয়নের মধ্যে বেশিরভাগেই খাবার, কাপড় ও ইলেট্রনিক্স পণ্য বিক্রি হবে।
পাকিস্তানের বার-বি কিউ ও স্টিম বয়লার (প্রিমিয়ার প্যাভেলিয়ন-১০) স্ট্রিল প্যাভেলিয়ন পাহারা দিচ্ছেন নুর হোসেন নামে নিরাপত্তাকর্মী।  তিনি বির্বাতাকে জানান, কবে চালু হবে জানি না, তবে গত রাতে পাকিস্তানের কয়েকজন এসে দেখে গেছেন।
মেলা ঘুরে দেখা গেছে, মেলার প্রায় ৩০ শতাংশ প্যাভেলিয়ন ও স্টলের কাজ এখনো কাজ শেষ হয়নি।  বিশেষ করে মেলার পশ্চিম পাশের প্যাভেলিয়ন ও স্টল।
মেলার সদস্য সচিব রেজাউল করিম জানান, কাজ শেষ করে চালু করতে আমরা তাদের তাগাদা দিয়েছি।  আশা করি, ২ থেকে ৩ দিনের মধ্যে চালু হবে।
মেলা আয়োজক সূত্রে জানা যায়, ১৩ ক্যাটাগরিতে মোট ৫৫৩টি স্টল ও প্যাভিলিয়ন বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।  এর মধ্যে ৬০টি প্রিমিয়ার, ১০ জেনারেল, ৩টি রিজার্ভ ও ৩৮টি ফরেন প্যাভিলিয়ন।  এছাড়া ৩৬টি প্রিমিয়ার মিনি প্যাভিলিয়ন, ১৩টি জেনারেল মিনি প্যাভিলিয়ন, ৬টি রিজার্ভ মিনি প্যাভিলিয়ন, ২৫টি ফুডস্টল ও ৫টি রেস্টুরেন্ট রয়েছে এবারের বাণিজ্য মেলায়।
শুক্রবার থেকে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের রফতানি উন্নয়ন ব্যুরোর আয়োজনে আগারগাঁও বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রের পাশে শুরু হয়েছে মাসব্যাপী বাণিজ্য মেলা।

আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print