বুধবার , ২৫ এপ্রিল ২০১৮
মূলপাতা » টেনিস » আ.লীগ-যুবলীগ সংঘর্ষে আহত ১৫

আ.লীগ-যুবলীগ সংঘর্ষে আহত ১৫

2015_08_25_13_55_43_UE5vTiLwOBMs5vBzAbWHFaOlVTj7qy_originalনির্বাচনী প্রচারণা শেষে যুবলীগের বর্ধিত সভায় বক্তব্য দেয়াকে কেন্দ্র করে কুমিল্লার হোমনায় আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটছে। এতে উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম সরকার এবং কেন্দ্রীয় নেতাসহ অন্তত ১৫ জন আহত হয়েছেন।

সোমবার সন্ধ্যায় হোমনা পৌর আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে কেন্দ্রীয় নেতাকর্মীদের উপস্থিতিতে বর্ধিত সভা চলাকালে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

দলীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলা যুবলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এসএম আলালের সভাপতিত্বে বর্ধিত সভা চলাকালে কুমল্লা উত্তর জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক বাহার উদ্দিন বাহারের বক্তব্যের পূর্বে যুগ্ম-আহ্বায়ক সারওয়ার হোসেন বাবুকে বক্তব্য দিতে না দেয়ায় সভাস্থল ত্যাগ করেন তিনি। পরে সভাস্থলে গিয়ে কেন্দ্রীয় নেতাকর্মীদের ওপর হামলা চালান তিনি ও তার লোকজন। এ সময় বিক্ষিপ্তভাবে কার্যালয়ের চেয়ার-টেবিল ভাঙচুর শুরু করেন তারা। এতে জাহাঙ্গীর আলম সরকার, বাহার উদ্দিন বাহার, উপজেলা যুবলীগ নেতা মেজবাহ উদ্দিন সরকার, কাউছার আহমেদ, মনিরুজ্জামান টিপু, স্বজল মিয়াসহ কমপক্ষে ১৫ জন আহত হন।

এর কিছুক্ষণ পর সারওয়ার হোসেন বাবুর সমর্থকরা মনিরুজ্জামান টিপুর নেতৃত্বে হোমনা চৌরাস্তা মোড় থেকে লাঠিসোঠা নিয়ে বিক্ষোভ মিছিল বের করে। এ সময় কিশোর, মেজবাহ ও মজিব তাদের লোকজন নিয়ে ধাওয়া দিলে পুনরায় সংঘর্ষ শুরু হয়। পরে টিপু গ্রুপের লোকজন পিছু হটে। এক পর্যায়ে হোমনা থানা পুলিশ পরিস্থিত নিয়ন্ত্রণে আনে।

কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম সরকার ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন।

এ ব্যাপারে হোমনা থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল ফয়সল জানান, ঘটনার সময় তিনি কুমিল্লায় ছিলেন। তবে বক্তব্য দেয়া নিয়ে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটলেও হতাহতের বিষয়টি তার জানা নেই।


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print