বুধবার , ২৫ এপ্রিল ২০১৮
মূলপাতা » ফুটবল » আড়াই কোটি ডলার পেলেন বাদশাহ ফাহাদের ‘গোপন স্ত্রী’

আড়াই কোটি ডলার পেলেন বাদশাহ ফাহাদের ‘গোপন স্ত্রী’

Fahad-Wifeপ্রয়াত সৌদি বাদশাহ ফাহাদের ‘গোপন স্ত্রী’ দাবি করে লন্ডনের হাইকোর্টে মামলা করে আড়াই কোটি মার্কিন ডলার ক্ষতিপূরণ পেয়েছেন এক মহিলা। ৬৮ বছর বয়সী জানান হার্ব দাবি করেন- সৌদি বাদশাহ ফাহাদ ১৯৬৮ সালে তাকে গোপনে বিয়ে করেছিলেন। -খবর বিবিসি`র।

ফাহাদের ‘গোপন স্ত্রী’ দাবিদার জানান হার্ব ফিলিস্তিনি বংশোদ্ভূত। তিনি জানান, বাদশাহ ফাহাদের পরিবার তাদের বিয়ের বিরোধী ছিলেন, কারণ তিনি খ্রীষ্টান পরিবার থেকে এসেছেন। কিন্তু বিয়ের আগে তিনি ইসলাম ধর্মগ্রহণ করেন।

মামলায় তিনি অভিযোগ করেন, ২০০৫ সালে বাদশাহ ফাহাদের মৃত্যুর আগে যখন গুরুতর অসুস্থ ছিলেন, তখন তার এক ছেলে প্রিন্স আবদুল আজিজ লন্ডনের ডরচেষ্টার হোটেলে তার সঙ্গে দেখা করেন। সেসময় প্রিন্স আবদুল আজিজ তাকে আশ্বাস দেন যে, রাজপরিবার তার ভরণপোষণের দায়িত্ব নেবে। বাদশাহ ফাহাদের প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী প্রিন্স আবদুল আজিজ তার সৎ মাকে ১২ মিলিয়ন ডলার নগদ অর্থ ছাড়াও চেলসীর দুটি ফ্ল্যাট দেয়া হবে বলেও জানান।

কিন্তু লন্ডনের হাইকোর্টে পেশ করার লিখিত বিবৃতিতে প্রিন্স আবদুল আজিজ এ রকম কোন প্রতিশ্রুতির কথা অস্বীকার করেন। তবে হাইকোর্ট এই মামলায় জানান হার্বের পক্ষেই রায় দিয়েছে।

হাইকোর্টের রায়ে বলা হয়, জানান হার্বকে পনের মিলিয়ন ডলার ক্ষতিপূরণ এবং লন্ডনের চেলসীতে দুটি বাড়ীর মূল্য বাবদ আরও দশ মিলিয়ন ডলার দিতে হবে।


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print