সোমবার , ২৩ জুলাই ২০১৮
মূলপাতা » টেনিস » জয়’কে প্রধানমন্ত্রীর অবৈতনিক উপদেষ্টা নিয়োগ করে প্রজ্ঞাপন

জয়’কে প্রধানমন্ত্রীর অবৈতনিক উপদেষ্টা নিয়োগ করে প্রজ্ঞাপন

৪৩ বছর বয়সী জয়কে উপদেষ্টা হিসেবে নিয়োগ দিয়ে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে গত ১৭ নভেম্বর একটি প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার এটি প্রকাশ পেয়েছে।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের পরিচালক (প্রশাসন) দেওয়ান মুহাম্মদ হুমায়ূন কবীর স্বাক্ষরিত এই প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, প্রধানমন্ত্রী তার ক্ষমতাবলে সজীব ওয়াজেদ জয়কে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা পদে নিয়োগ দিয়েছেন।

“এই দায়িত্ব পালনে তিনি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ ও পরামর্শ অনুযায়ী কাজ করবেন। এই নিয়োগ খণ্ডকালীন ও অবৈতনিক।”

যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী জয় এতদিন মা আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা ছিলেন। এখন তিনি প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টার দায়িত্বেও এলেন।

আওয়ামী লীগ সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্য অর্জনে বিভিন্ন কার্যক্রমে তথ্য প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ জয়ের অংশ গ্রহণ রয়েছে।

এর মধ্যেই গত সেপ্টেম্বরে নিউ ইয়র্কে এক অনুষ্ঠানে এক দর্শকের প্রশ্নের জবাবে তৎকালীন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিমন্ত্রী আব্দুল লতিফ সিদ্দিকী বলেন, জয় সরকারের কেউ না।

ওই অনুষ্ঠানেই হজ নিয়ে এক মন্তব্যের জন্য দেশে ব্যাপক সমালোচনার মধ্যে মন্ত্রিত্ব হারানোর পাশাপাশি আওয়ামী লীগ থেকেও বহিষ্কৃত হন লতিফ সিদ্দিকী।

এরপর ওই অনুষ্ঠানে দেওয়া লতিফ সিদ্দিকীর বক্তব্য উদ্ধৃত করে বিএনপি নেতারা দাবি করেন, জয় সরকারি অর্থ নিচ্ছেন, যা বিদেশে চলে যাচ্ছে।

মঙ্গলবার এক সভায় বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, “প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও প্রযুক্তি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় প্রতিমাসে ১ কোটি ৬০ লাখ টাকা বেতন নিয়েছেন। এই তথ্য মন্ত্রী ফাঁস করে দিয়েছেন। লতিফ সিদ্দিকীর চাকরিও চলে গেছে।”

একদিন পর আরেক সভায় বিএনপি নেতা আ স ম হান্নান শাহ বলেন, “বর্তমান প্রধানমন্ত্রীর সুপুত্র সজীব ওয়াজেদ জয় মন্ত্রী পদমর্যাদায় প্রতিমাসে ২ লাখ ডলার বেতন নিচ্ছেন। এরকম বেতন রাষ্ট্রপতিও পান না। এভাবে দেশের অর্থ বিদেশে যাচ্ছে, এজন্য মানি লন্ডারিং আইনে মামলা করা যায়। আগামীতে তা কার্য্কর করা হবে।”


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print