বুধবার , ২৫ এপ্রিল ২০১৮
মূলপাতা » ফুটবল » পুরো খ্রিস্টানপল্লী মুসলমান হওয়ার হুমকি

পুরো খ্রিস্টানপল্লী মুসলমান হওয়ার হুমকি

2015_10_11_20_07_48_cYKpmQCkdPv8CdvceEkjfgjjlomtMT_originalসার্বিয়ার একটি গ্রামের খ্রিস্টান বাসিন্দারা এক যোগে ধর্মান্তরিত হয়ে মুসলিম হয়ে যাবেন বলে কর্তৃপক্ষকে হুমকি দিয়েছেন। তাদের দাবি  ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত গীর্জাটি দ্রুত মেরামত করে দিতে হবে। তা না হলে তারা মুসলমান হয়ে যাবেন।

বেলগ্রেডের কাছে সোপিচ গ্রামের এই ক্ষতিগ্রস্ত গির্জাটি ভেঙে পুনর্নির্মাণ করতে চাইছে কর্তৃপক্ষ, কিন্তু গ্রামবাসী চান সেটি না ভেঙে সংস্কার করা হোক।

এজন্য গ্রামবাসীরা সার্বিয়ার অর্থোডক্স গির্জাকে চিঠি দিয়ে জানিয়েছেন, পুরনো গীর্জাটি রক্ষার এ উদ্যোগে তারা যদি সমর্থন না জানান, তাহলে গ্রামের সব লোক একসাথে ধর্মত্যাগ করে মুসলমান হয়ে যাবেন। এর ফলে র্বিয়ার আইনের আওতায় তারা বেশি সুরক্ষা পেতে পারেন।

এই ধর্মত্যাগকে গ্রামবাসী ‘শহীদ’ হওয়ার সঙ্গে তুলনা করে বলেছেন, এরপরও তারা অবশ্য যিশুখ্রিস্টকে তাদের হৃদয়ে ধারণ করবেন।

গত জুলাই মাসে এক শক্তিশালী ঝড়ে ১৫০ বছরের পুরনো গির্জাটি মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হয়, এর টাওয়ারটির ছাদ ভেঙে যায়। এরপর স্থানীয় যাজক সিদ্ধান্ত নেন, গির্জাটি ভেঙে নতুন করে বানাতে হবে, কারণ এর ভিত্তির মাটি দুর্বল হয়ে গেছে।

কিন্তু গ্রামের একজন বাসিন্দা প্রেদ্রাগ লাজারেভিচ যিনি ওই চিঠিটির মুসাবিদা করেছেন তিনি বলছেন, তিনি নিজে একজন ভূতত্ববিদ এবং তার মূল্যায়ন অনুযায়ী গির্জাটির ভিত্তি ঠিকই আছে এব তা ভেঙে ফেলার কোনো দরকার নেই, সংস্কার করাই যথেষ্ট।

লাজারেভিচ রেডিও সারায়েভোকে দেয়া সাক্ষাৎকারে বলেছেন, তারা নতুন গির্জা নির্মাণের বিরোধী নন, তবে তা করতে হবে পুরনো গির্জাটি অক্ষত রেখে।


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print