সোমবার , ২৩ জুলাই ২০১৮
মূলপাতা » জাতীয় » ভোলার ইলিশা, রাজাপুর, ফেরিঘাটের অস্তিত্ব রক্ষায় মানব বন্ধন

ভোলার ইলিশা, রাজাপুর, ফেরিঘাটের অস্তিত্ব রক্ষায় মানব বন্ধন

DSC_0213আজ ঢাকা প্রেসক্লাব এর সামনে ইলিশা ফেরি ঘাট ও ভোলা বাঁচাও সংগ্রাম কমিটি র পক্ষে  ‘ভোলা বাঁচাও’ শিরোনামে এক বিশাল মানব বন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মেঘনার করাল গ্রাসে ভোলার ইলিশা, রাজাপুর ও ফেরিঘাটের অস্তিত্ব বিলীন হওয়ার উপক্রম হওয়ায় ঢাকাস্থ ভোলাবাসীর উদ্যোগে ভোলা রক্ষায় মাননীয় পানি সম্পদ মন্ত্রী ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দ্রুত হস্তক্ষেপ কামনা করে ভোলার ইলিশা-রাজাপুরের হাজার হাজার গৃহহারা মানুষের জীবন ও সম্পদ রক্ষার দাবিতে এ মানব বন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

বক্তারা বলেন,বাংলাদেশের সর্ব বৃহৎ দ্বীপ জেলা ভোলা্ । ধান, সুপারি, নারিকেল খ্যাত বাংলার অপূর্ব শস্য ভান্ডার। সু-স্বাধু ইলিশের জন্য বিখ্যাত এ ভোলার  গ্যাস থেকে ৫০ হাজার মেগাওয়াটবিদ্যুৎ উৎপন্ন হয়ে সারা দেশে পৌছে। দক্ষিণাঞ্চলের ২০ টি জেলার সংযোগস্থল ভোলা ইলিশা ফেরি ঘাট এখন নদী ভাঙ্গনের ফলে অব্যবহৃত। সারা দক্ষিণাঞ্চলের পণ্য পরিবহন আজ ব্যাহত। প্রায় কুড়ি হাজার মানুষ বাস্তুহারা হয়ে আশ্রয়হীন জীবন যাপন করছে।

বক্তারা আরও বলেন, বীর শ্রেষ্ঠ মোস্তফা কামালের জন্মস্থান ভোলা আজ নদীর ভাঙনে হারিয়ে যেতে বসেছে। ইতোমধ্যে মাননীয় পানি সম্পদ মন্ত্রী ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদের নির্দেশে জিও পাইপের ভেতর বালু ভর্তি করে নদীর পাড়ে কাজ শুরু হলেও বক্তারা অভিযোগ করে বলেন, হঠাৎ করেই ভোলা পানি উন্নয়ন বোর্ডে’র নির্বাহী প্রকৌশলী কাজী তোফায়েল এর ব্যক্তিগত সিদ্ধান্তে সে কাজ টুকুও বন্ধ রয়েছে। অবিলম্বে নদী ভাঙন প্রতিরোধে কাজ শুরু করারও তাগিদ দেন বক্তারা। স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা, হাসপাতাল সব রক্ষা করে বাকী ভোলার জীবন মান রক্ষা ওইলিশা ফেরি রক্ষার আবেদন জানান তারা।

মানব বন্ধনে ‘ইলিশা ফেরি ঘাট ও ভোলা বাঁচাও সংগ্রাম কমিটি’র আহবায়ক জনাব মো. শাহেদ আলীর এর সভাপতিত্বে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক রাজীব মীর, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের উপ-কমিটির সম্পাদক মিজানুর রহমান শাহীন ও হেমায়েত উদ্দিন হিমু , ঢাকা মহানগর উত্তর শ্রমিক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো.ফারুক ও ভোলা জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জহিরুল ইসলাম নকীব বক্তব্য প্রদান করেন।  ঢাকাস্থ ভোলাবাসীগণ এবং ঢাকা ও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভোলার শিক্ষার্থীবৃন্দমানব বন্ধনে অংশ নেন।


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print