বুধবার , ২৫ এপ্রিল ২০১৮
মূলপাতা » জ্ঞান-বিজ্ঞান » নিবন্ধনের অনুরোধে সাড়া না দিলে সিম বন্ধ

নিবন্ধনের অনুরোধে সাড়া না দিলে সিম বন্ধ

সিমমোবাইল সিমকার্ড নিবন্ধন প্রক্রিয়ায় প্রথম পর্যায়ে গ্রাহকদের ভোগান্তির আশঙ্কা না থাকলেও দ্বিতীয় পর্যায়ে গ্রাহকগণ অনুরোধ পেয়ে সাড়া না দিলে সেই সব সিম বন্ধ করে দেওয়া হবে।

পুরাতন সিমকার্ড নিবন্ধন প্রক্রিয়ায় দু’টি ও নতুন সিমকার্ড নিবন্ধনের ক্ষেত্রে একটি পর্যায় রেখে এ কথা জানিয়েছে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগ।

এ নির্দেশনাটি নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনকে (বিটিআরসি) পাঠানো হয়েছে বলে বাংলানিউজকে জানিয়েছেন সংস্থার একজন কর্মকর্তা।

পুরাতন ও নতুন সিমকার্ডের নিবন্ধনের তিনটি পর্যায়ের কথা বলা হয়েছে টেলিযোগাযোগ বিভাগের নির্দেশনায়।

পরে বিটিআরসি’র সহকারী পরিচালক (মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিকেশনস উইং) জাকির হোসেন স্বাক্ষরিত ‘সিম নিবন্ধন সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি’ প্রকাশ করা হয়।

প্রথম পর্যায়ের ক্ষেত্রে বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন (এনআইডি) কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সিম/রিম যাচাই প্রক্রিয়া চলছে। যাচাই শেষে সঠিক এবং ভুয়া জাতীয় পরিচয়পত্র ব্যবহার করে নিবন্ধিত সিম/রিম পৃথক ও শনাক্ত করা হবে।

এ পর্যায়ে গ্রাহকদের সম্পৃক্ততার প্রয়োজন পড়বে না বিধায় কোন ভোগান্তির আশঙ্কা নেই, বলে বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়।

দ্বিতীয় পর্যায়ের ক্ষেত্রে বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, কোন প্রকৃত জাতীয় পরিচয়পত্রের বিপরীতে একাধিক সিম/রিম বা জাতীয় পরিচয়পত্রের  জাল কপির ভিত্তিতে নিবন্ধিত সিম/রিমধারীগণকে সঠিক জাতীয় পরিচয়পত্রের বিপরীতে প্রতিটি সিমের নিবন্ধনের জন্য অনুরোধ জানানো হবে।

নির্ধারিত সময়ের মধ্যে ব্যবহারকারী সাড়া প্রদান না করলে সংশ্লিষ্ট সিম/রিম বন্ধ করে দেওয়া হবে।

তৃতীয় পর্যায়ের ক্ষেত্রে (নতুন সিম/রিম ক্রয়ের ক্ষেত্রে) বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘আগামী ১৬ ডিসেম্বর থেকে দেশের সকল সিম/রিম আঙ্গুলের ছাপসহ নিবন্ধন করা হবে। সকল গ্রাহককে জাতীয় পরিচয়পত্রসহ বিটিআরসি’র নির্ধারিত ফরম পূরণ করে সশরীরে নিকটতম কাস্টমার কেয়ার/সার্ভিস সেন্টারে উপস্থিত হয়ে নিবন্ধন সম্পন্ন করতে হবে।

এতে আরও বলা হয়, ‘মনে রাখবেন আপনার এখন ক্রয়কৃত সিম/রিম এর ভেরিফিকেশনও এনআইডি কর্তৃপক্ষের নিকট প্রেরিত হবে।’

এছাড়া নির্ধারিত সময় শেষে বাজারে প্রি-অ্যাকটিভেটেড বা অনিবন্ধিত সিম/রিম পাওয়া গেলে সংশ্লিষ্ট অপারেটরের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানিয়েছে বিটিআরসি।

বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে গ্রাহকগণকেও অনিবন্ধিত সিম ব্যবহারের ক্ষেত্রে সাবধান করে দিয়েছে সরকার।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়,‘সঠিকভাবে নিবন্ধন না করা সিম/রিম ব্যবহার করলে কৃত অপরাধের দায় আপনাকে বহন করতে হবে।’

বিজ্ঞপ্তিতে গ্রাহকদের সহযোগিতা চেয়েছে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগ এবং বিটিআরসি।

এতে বলা হয়,‘দেশ ও জাতির নিরাপত্তার স্বার্থে আপনাদের সকলের সহযোগিতা কাম্য। এ দেশ আপনার, দেশের স্বার্থ রক্ষায় আপনার ভূমিকা মূল্যবান।’

উল্লেখ্য, নতুন প্রতিমন্ত্রী হিসাবে দায়িত্ব নেওয়ার পর তারানা হালিম সিমকার্ড পুনঃনিবন্ধন এবং অবৈধ ভিওআইপি ব্যবসা বন্ধের উদ্যোগ নেন। গ্রাহকদের তথ্য এনআইডিকে জানানোর ব্যাপারে অপারেটরগুলোর সঙ্গে একটি চুক্তিও করা হবে বলে জানিয়েছেন প্রতিমন্ত্রী।


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print