রবিবার , ২২ জুলাই ২০১৮
মূলপাতা » টেনিস » ‘আমেরিকা-কানাডা সভ্য দেশ হয়েও খুনিদের আশ্রয় দিচ্ছে’

‘আমেরিকা-কানাডা সভ্য দেশ হয়েও খুনিদের আশ্রয় দিচ্ছে’

hasinaবঙ্গবন্ধু হত্যার সাজাপ্রাপ্ত পলাতক খুনিদের আশ্রয়দাতা দেশগুলোর প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, অত্যন্ত দুঃখের বিষয়, আমেরিকা-কানাডা সভ্য দেশ, উন্নত দেশ হওয়া সত্ত্বেও খুনিদের আশ্রয় দিচ্ছে? তারা খুনিদের কেন রাখছে?

বুধবার বিকেলে দশম জাতীয় সংসদের সপ্তম অধিবেশনের দ্বিতীয় কার্যদিবসে নির্ধারিত প্রশ্নোত্তরকালে সরকার দলীয় সংসদ সদস্য অধ্যক্ষ আব্দুস শহীদের সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীদের বিচার হয়েছে, কয়েকজনের রায়ও কার্যকর হয়েছে, বাকিদেরও হবে। বঙ্গবন্ধুর খুনিদের মধ্যে যারা বিদেশে পলাতক রয়েছে, তাদের ফিরিয়ে এনে রায় কার্যকর করা হবে। তবে যেসব দেশে খুনিরা পালিয়ে আছে, সেসব দেশের সরকার আমাদের সহযোগিতা করছে না।’

শেখ হাসিনা আরো বলেন, ‘অত্যন্ত দুঃখের বিষয়, আমেরিকা-কানাডার মতো সভ্য দেশ কেন খুনিদের সেখানে রাখছে এটা আমার জানা নেই। তাদের সরকারের কাছে অনুরোধ করেছি, কিন্তু তারা কোনো সহযোগিতা করছে না। যেকোনো কারণেই হোক, আমাদের সহযোগিতা করছে না এটাই  হলো বাস্তবতা, এটা দেশবাসীর জানা দরকার।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘খুনি খুনিই। সে যেখানেই থাকুক। তবে সেসব দেশ কেন সহযোগিতা করছে না, সেটা আমার জানা নেই। আমরা অনেকবার সেসব দেশের সরকারের কাছে খুনিদের ফিরিয়ে দিতে অনুরোধ করেছি, তারা দেয়নি। আমাদের চেষ্টা এখনো অব্যাহত রয়েছে। আমরা আমেরিকা-কানাডায় আইনজীবী নিয়োগ করেছি। আমাদের আইন মন্ত্রণালয়, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে যৌথভাবে চেষ্টা অব্যাহত রেখেছি। ইন্টারপোলে এদের বিরুদ্ধে ওয়ারেন্ট জারি করা আছে। সরকারের পক্ষ থেকে ১৯৯৬ সালে কমিটি করে দিয়েছি।’

তিনি আরো বলেন, ‘বর্তমানে বঙ্গবন্ধুর খুনিদের মধ্যে দুজন আমেরিকায়, একজন কানাডায় রয়েছে। দুজন লিবিয়ায় ছিল, পরে পাকিস্তানে গেছে। বাকি দুজন ঠিক কোথায় আছে এখনো তাদের খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না। বিভিন্ন মাধ্যমে জানা গেছে, তারা পাকিস্তানে আছে। যদিও পাকিস্তান সরকার স্বীকার করে না। এরই মধ্যে চ্যানেল আই কর্নেল রশিদ চৌধুরীর স্বাক্ষাৎকার নিয়ে এসেছে। কাজেই সেখানে যে রশিদ চৌধুরী রয়েছে এটা নিশ্চিত। খুনিদের বিচারের মুখোমুখি করা, রায় কার্যকর করা, এটা আমাদের কর্তব্য, আমরা তা করছি।’


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print