রবিবার , ২৪ জুন ২০১৮
মূলপাতা » স্বাস্থ্য » ব্রেন ক্যান্সার সম্পর্কিত ১০ টি বিষয় জেনে রাখা উচিত

ব্রেন ক্যান্সার সম্পর্কিত ১০ টি বিষয় জেনে রাখা উচিত

healt ব্রেনব্রেন ক্যান্সার সৃষ্টি হয় তখনই যখন বড় ক্যান্সারের টিস্যু (যা ব্রেন টিউমার নামেও পরিচিত) ব্রেনের স্বাভাবিক কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করে।

WHO

বর্তমান পরিসংখ্যান অনুসারে প্রতি বছর প্রায় ২২০০০ নতুন রোগী ব্রেন ক্যান্সারে আক্রান্ত হচ্ছে। এর মধ্যে আনুমানিক ১৩০০০ মানুষ মারা যাচ্ছে।

Neurosurgery Department of Rockland hospital

, নিউ দিল্লির রকল্যান্ড হাসপাতালের Neurosurgery Department এর Associate consultant Dr. Rakesh K Dua, Ms. Mch সম্প্রতি ব্রেন ক্যান্সার বিষয়ে ১০ টি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় তুলে ধরেছেন। চলুন এ বিষয়ে জেনে নিই।

১। সবচেয়ে পরিচিত ব্রেন ক্যান্সারের মধ্যে রয়েছে সেকন্ডারি ব্রেন ক্যান্সার। (শরীরের অন্য জায়গার ক্যান্সার যখন ব্রেনে ছড়িয়ে পড়ে।) Gliobalastoma আর এক ধরনের ব্রেন ক্যান্সার, যাকে প্রাইমারি ব্রেন ক্যান্সার বলা হয়।

২। প্রাইমারি ব্রেন ক্যান্সার Gliobalastoma হলে, রোগী সার্জারি, কেমোথেরাপি এবং রেডিওথেরাপির পরও সব মিলিয়ে ১০-১২ মাস বাঁচতে পারে। সেকন্ডারি ব্রেন ক্যান্সারের রোগীর বাঁচার হার নির্ভর করে প্রাইমারি ক্যান্সারের উপর। তবে রোগী সাধারণত ৬-১২ মাস বেঁচে থাকে।

৩। ব্রেন ক্যান্সারের পরিচিত লক্ষণগুলো হচ্ছে প্রচণ্ড মাথাব্যাথা হওয়া, স্নায়ুগত দুর্বলতা, হাত পায়ে দুর্বলতা অনুভূত হওয়া, কথা বলায় সমস্যা, হাঁটা চলায় বিঘ্ন হওয়া, আচরণগত পরিবর্তন হওয়া ইত্যাদি।

৪। চিকিৎসা নির্ভর করে কোন ধরনের ক্যান্সার হয়েছে তার উপর। প্রাইমারি ব্রেন ক্যান্সারে সার্জারি হচ্ছে প্রথম ধাপ। এরপর রয়েছে রেডিওথেরাপি এবং কেমোথেরাপি। সেকেন্ডারি ব্রেন ক্যান্সারের চিকিৎসায় সার্জারি, রেডিওথেরাপি, কেমথেরাপি এবং Gamma knife surgery এর মধ্যে যে কোন চিকিৎসা পদ্ধতি বেছে নেওয়া হতে পারে। মূলত চিকিৎসা পদ্ধতি নির্ভর করে টিউমারের আকার এবং সংখ্যার উপর।

৫। ২০ বছরের নিচে মানুষেরও ব্রেন টিউমার হতে পারে। ৫-১০ বছরে টিউমারগুলো ক্যান্সারে রূপ নিতে পারে।

৬। রেডিয়েশন ব্রেন ক্যান্সার হওয়ার একটি অন্যতম প্রধান কারণ।

৭। অনেক ধরনের ব্রেন টিউমার আছে। কিন্তু একটি টিউমার অন্য একটি টিউমার থেকে ভিন্ন। সব ব্রেন টিউমার ক্যান্সারে রূপ নাও নিতে পারে।

৮। পরিবারে কারো ব্রেন টিউমার হওয়ার ইতিহাস থাকলে পরিবারের অন্য সদস্যদের বেশি সচেতন হতে হবে।

৯। ব্রেন ক্যান্সারে সবচেয়ে পরিচিত লক্ষণ হচ্ছে মাথা ব্যথা। এই ব্যথা ধীরে ধীরে ভয়াবহ আকার ধারণ করতে পারে। বিশেষ করে কারো যদি সকালবেলা প্রচণ্ড মাথা ব্যথা হয় তাহলে সে বিষয়ে গুরুত্ব দিতে হবে।

১০। প্রাইমারি ব্রেন ক্যান্সারে শরীরের বিভিন্ন অঙ্গ দান করা যেতে পারে। কিন্তু সেকেন্ডারি ব্রেন ক্যান্সারে রোগীর এমন কোন সুযোগ থাকে না।

টাইমস অফ ইন্ডিয়া অবলম্বনে।


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print