বৃহস্পতিবার , ১৯ জুলাই ২০১৮
মূলপাতা » প্রধান খবর » ইন্ডিপেনডেন্ট টিভির ১০ কোটি টাকা জরিমানা

ইন্ডিপেনডেন্ট টিভির ১০ কোটি টাকা জরিমানা

indipendad TVমানহানির মামলায় ইন্ডিপেনডেন্ট টিভির চেয়ারম্যান সালমান এফ রহমানসহ চার সাংবাদিকের বিরুদ্ধে ১০ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। কুমিল্লা সদর আসনের সংসদ সদস্য হাজী আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার মানহানির এ মামলা দায়ের করেছিলেন।
বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় কুমিল্লা টাউন হলে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে মামলার বাদী কুমিল্লা সদর আাসনের সংসদ সদস্য হাজী আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার ও তার আইনজীবীরা এ কথা জানান।
তারা জানান, কুমিল্লার প্রথম যুগ্ম-জেলা জজ আদালতের বিচারক মীর মো. এমতাজুল হক এ নির্দেশ দেন। রায়ে বলা হয় সংশ্লিষ্টরা আগামী এক বছরের মধ্যে এ অর্থ বাদীকে প্রদান করতে হবে।
ইন্ডিপেনডেন্ট টেলিভিশনের চেয়ারম্যান সালমান এফ রহমান, ইন্ডিপেনডেন্ট টেলিভিশনের হেড অব নিউজ খালেদ মহিউদ্দিন, রিপোর্টার মাহাবুব আলম ও কুমিল্লা প্রতিনিধি এস এম সোলায়মানের বিরুদ্ধে মামলা করেন এমপি।

মামলায় অভিযোগ করা হয়, গত বছরের ২৯ সেপ্টেম্বর ‘বিএনপি-জামায়াতের অপকর্মের পৃষ্ঠপোষক কয়েকজন মন্ত্রী, এমপি’শিরোনামে ইন্ডিপেনডেন্ট টেলিভিশনে দিনরাত মিথ্যা, বানোয়াট, উদ্দেশ্য প্রণোদিত ও মানহানিকর সংবাদ প্রচার ও প্রকাশ করে। এমনই একটি সংবাদ প্রচারে এমপি বাহারের মানহানি হয়।

টেলিভিশনে সম্প্রচারিত ওই সংবাদের একটি অংশে কুমিল্লা (দ.) জেলা বিএনপির যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও সিটি মেয়র মনিরুল হক সাক্কুকে পৃষ্ঠপোষকতা দিচ্ছেন আ.লীগের স্থানীয় সংসদ সদস্য আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার।

প্রতিবেদনটি দিনরাত প্রচারের সময় বারবার টেলিভিশনের পর্দায় হাজী আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার এমপির ছবি প্রদর্শন করে তাকে জনসম্মুখে হেয়প্রতিপন্ন করা হয়েছে। প্রকৃতপক্ষে ওই সংবাদটি প্রচার করে এমপি বাহারের দীর্ঘদিনের রাজনৈতিক, পারিবারিক-সামাজিক সুনাম ও সম্মান চরমভাবে ক্ষুন্ন করা হয়েছে।

পরে একই বছরের ৪ অক্টোরের একটি প্রতিবাদলিপি টেলিভিশনে প্রচারের জন্য দেয়া হলেও তা প্রচার করা হয়নি। এতে কুমিল্লা-৬ আসনের সংসদ সদস্য হাজী আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার বাদী ৪ জনের বিরুদ্ধে কুমিল্লার যুগ্ম-জেলা জজ প্রথম আদালতে ১০ কোটি টাকার ক্ষতিপূরণ চেয়ে মানহানির মামলাটি দায়ের করেন।
পরবর্তীতে ওই বছরের ১৫ অক্টোবর মামলাটি অ্যাডমিট হিয়ারিং শেষে ২৭ নভেম্বর উল্লেখিত বিবাদীদের প্রতি সমন জারির আদেশ প্রদান করা হয়। কিন্তু বিবাদীদের কেউ আদালতে হাজির হননি।
এ মামলার শুনানি শেষে আদালত চলতি বছরের গত ২১ জুলাই মামলার রায় প্রদান করেন এবং ২৭ জুলাই বিবাদীদের বিরুদ্ধে উক্ত টাকা বাদীকে প্রদানের জন্য ডিক্রি জারি করেন।
সংবাদ সম্মেলনে এমপি বাহার জানান, রায়ে ঘোষিত ১০ কোটি টাকা পেলে তিনি ৫ কোটি টাকা কুমিল্লার সাংবাদিকদের কল্যাণ ফান্ডে প্রদান করবেন এবং বাকি ৫ কোটি টাকা দিয়ে সাংবাদিকদের মোরাল ডেভেলপমেন্টের জন্য ইন্সটিটিউট নির্মাণ করবেন।

আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print